Saturday, April 13, 2024
বাড়িখেলাবিপাকে পড়েছেন ঈশান কিষান এবং শ্রেয়স আইয়ার

বিপাকে পড়েছেন ঈশান কিষান এবং শ্রেয়স আইয়ার

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ০৩ মার্চ : ঘরোয়া ক্রিকেটকে উপেক্ষা করে বেশ ভালোরকমই বিপাকে পড়েছেন ঈশান কিষান এবং শ্রেয়স আইয়ার। অদূর ভবিষ্যতে সম্ভবত তাঁদের জন্য খুলবে না জাতীয় দলের দরজা। এমনকী আইপিএলে ভালো পারফর্ম করলেও না। বোর্ড সূত্রের তেমনটাই খবর।

রনজি ট্রফিকে বাঁচানোর জন্য বড় পদক্ষেপ নিয়েছে বিসিসিআই । বিসিসিআই আগেই জানিয়ে দিয়েছে, বোর্ডের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারদের অবসর সময়ে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলতেই হবে। বিশেষ করে জাতীয় দলের তিন ফরম্যাটে যেসব ক্রিকেটাররা নিয়মিত খেলেন না, তাঁদের ক্ষেত্রে এই নিয়ম আরও কঠোরভাবে বলবত হবে। কিন্তু বিসিসিআইয়ের সেই নির্দেশ মানেননি শ্রেয়স এবং ঈশান। শ্রেয়স চোটের অজুহাতে রনজি না খেলে যোগ দেন কেকেআর শিবিরে। আর ঈশানও রনজি না খেলে আইপিএলের প্রস্তুতির জন্য খেলেন অফিস লিগে।.
ভারতীয় দলের সঙ্গে যুক্ত না থাকা সত্ত্বেও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট না খেলায় বোর্ডের কুনজরে পড়ে যান ঈশান কিষাণ এবং শ্রেয়স আইয়ার । টিম ইন্ডিয়ার দুই ক্রিকেটারের এমন মানসিকতা একেবারেই মেনে নিতে পারেনি বিসিসিআই। দুজনকেই কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। এখন শোনা যাচ্ছে, জাতীয় দলের দরজাও বন্ধ ঈশানদের জন্য।


এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি অনুযায়ী, বোর্ডের এক কর্তা জানিয়েছেন, ঘরোয়া ক্রিকেট না খেলায় ঈশানদের আইপিএলের পরও জাতীয় দলের জন্য ভাবা হবে না। অর্থাৎ টি-২০ বিশ্বকাপে তাঁদের দলে ফেরার রাস্তা একপ্রকার বন্ধ। ওই কর্তা বলছেন, “ঈশানদের প্রতিভা নিয়ে বোর্ডের সংশয় নেই। তবে জাতীয় দলে ফিরতে হলে ওদের আগে ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরতে হবে। ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো পারফর্ম করতে হবে।” ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত খেললে শ্রেয়সরা বোর্ডের চুক্তিও ফেরত পেতে পারেন। তেমনটাই ইঙ্গিত বোর্ডের।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য