Monday, March 4, 2024
বাড়িখেলাদ্বিতীয় সুপার ওভারে রোহিতের ব্যাটিং কি বৈধ ছিল

দ্বিতীয় সুপার ওভারে রোহিতের ব্যাটিং কি বৈধ ছিল

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ১৮ জানুয়ারি: রোহিত শর্মা কি রিটায়ার আউট না রিটায়ার হার্ট ছিলেন? আইসিসির প্লেয়িং কন্ডিশন অনুসারে, প্রথম সুপার ওভারে আউট হওয়া ব্যাটসম্যান পরের সুপার ওভারে নামতে পারেন না।কাল রাতে দুটি সুপার ওভারে সমাপ্ত হওয়া ভারত আফগানিস্তান টি-টোয়েন্টি ম্যাচের প্রথম সুপার ওভারে মাঠ ছেড়ে যাওয়া রোহিত দ্বিতীয় সুপার ওভারেও ব্যাট করেছেন। ম্যাচশেষে ভারত দলের কোচ রাহুল দ্রাবিড় বলেছেন, রোহিত রিটায়ার আউট ছিলেন। যদি সেটাই হয়ে থাকে, তাহলে দ্বিতীয় সুপার ওভারে ভারত অধিনায়কের ব্যাটিং বৈধ ছিল না।

বেঙ্গালুরুতে ৪২৪ রানের ম্যাচ টাই হওয়ার পর সুপার ওভারেও দুই দলই তোলে ১৬ রান করে। এই সুপার ওভারে আফগানিস্তানের দেওয়া ১৭ রানের লক্ষ্যে ভারত ১৬ রান তুলতে পারে রোহিতের দুটি ছক্কায়। তবে শেষ বলে রোহিত ছিলেন নন–স্ট্রাইকে। ভারতের প্রয়োজন ছিল ২ রান। এ সময় রোহিত উঠে গিয়ে রিংকু সিংকে মাঠে পাঠান। কারণটা সহজে অনুমেয়, এর আগে ২০ ওভার ব্যাটিং করা রোহিতের চেয়ে রিংকু দ্রুত প্রান্ত বদল করতে পারবেন। স্পষ্টতই, স্বেচ্ছা অবসর নিয়েছেন রোহিত, যার অর্থ তিনি রিটায়ার আউট। শেষ বলে ভারত ১ রানের বেশি না তুলতে পারায় ম্যাচ গড়ায় দ্বিতীয় সুপার ওভারে। স্বেচ্ছায় মাঠ ছেড়ে যাওয়া রোহিত আবারও মাঠে নামেন। ভারত অধিনায়ক আফগান পেসার ফরিদ আহমেদের প্রথম ৩ বলে তোলেন ১১ রান। এবার ১২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে আফগানিস্তান আটকে যায় ১ রানেই।

ম্যাচ শেষে রাহুল যা বলেছেন, তাতে রোহিত আউট ছিলেন বলেই ধারণা পাওয়া যায়। এ ক্ষেত্রে তিনি উদাহরণ হিসেবে টেনে আনেন আইপিএলে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের ঘটনাকে। ২০২২ আইপিএলে লক্ষ্ণৌর বিপক্ষে রাজস্থানের হয়ে খেলা অশ্বিন ২৩ বলে ২৮ রান করে নিজেকে আউট ঘোষণা করেন। আইপিএলে কৌশলগত আউটের যেটি প্রথম ঘটনা। রাহুল বলেছেন, ‘নিজেকে ওই সময়ে আউট করা অশ্বিন পর্যায়ের চিন্তাভাবনা।’আফগানিস্তানের কোচ জোনাথন ট্রটের অবশ্য পুরো বিষয়টি সম্পর্কে ধারণাই নেই। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে রোহিত প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘আমার কোনো ধারণা নেই। এর আগে কি কখনো দুটি সুপার ওভার হয়েছে? বলতে চাচ্ছি, এটা নতুন কিছু। আমি যেটা বলার চেষ্টা করছি, আমরা নিয়মগুলোকে প্রতিনিয়ত পরীক্ষা করছি, নীতিমালাকে পরীক্ষা করছি।’

নিয়ম অনুযায়ী প্রথম সুপার ওভারে বল করা বোলার এর পরের সুপার ওভারে বল হাতে নিতে পারেননি। যে কারণে প্রথম সুপার ওভারে আজমতউল্লাহ ওমরজাইকে বোলিং করালেও পরেরটিতে ফরিদের দ্বারস্থ হতে হয় আফগানিস্তানকে। আউট হওয়া ব্যাটসম্যানের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম প্রযোজ্য হলেও রোহিত কীভাবে ব্যাটিং করেছেন, সেটি একটি বড় প্রশ্ন। যদিও আইসিসি বা ম্যাচ অফিশিয়ালসদের কারও বক্তব্য পাওয়া যায়নি। ভারতের কোচ রোহিতকে ‘রিটায়ার আউট’ বললেও তিনি আদতে ‘রিটায়ার হার্ট’ ছিলেন, না অন্য কোনো নিয়মের আওতায় পড়েছেন—এমন কৌতূহল তাই রয়েই গেল।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য