Tuesday, July 16, 2024
বাড়িখেলাশরীর সাড়া দিলে ‘অন্তত আরও এক মৌসুম’ খেলতে চান ধোনি

শরীর সাড়া দিলে ‘অন্তত আরও এক মৌসুম’ খেলতে চান ধোনি

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক,,৩০ মে: ভারতীয় ক্রিকেটে এবং আইপিএলে ধোনি কিংবদন্তির উচ্চতায় পৌঁছে গেছেন আরও অনেক আগেই। এবারের আসর দিয়ে নিজের অবস্থানকে আরও উঁচুতে নিয়ে গেছেন তিনি, আরও পোক্ত ও গৌরবময় করেছেন তার উত্তরাধিকার। আসরজুড়ে অসাধারণ নেতৃত্বের পাশাপাশি ব্যাট হাতেও রেখেছেন কার্যকর অবদান। শেষটাও হয়েছে দারুণ মধুর। রুদ্ধশ্বাস উত্তেজনার ফাইনালে শেষ বলে গুজরাট টাইটান্সকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে চেন্নাই সুপার কিংস। তাতে রেকর্ডে নাম উঠে গেছে দলের ও অধিনায়কের। ৫ শিরোপা জিতে চেন্নাই এখন যৌথভাবে আইপিএলের সফলতম দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের সঙ্গে। ৫ শিরোপায় নেতৃত্ব দিয়ে রোহিত শর্মার রেকর্ড স্পর্শ করেছেন ধোনি। জনপ্রিয়তার দিক থেকে অবশ্য ধোনির জুড়ি পাওয়া কঠিন। এবারের মৌসুমেও তিনি যে মাঠেই খেলেছেন, গ্যালারিতে দেখা গেছে তার সমর্থনে জোয়ার। আসরের শুরুর দিকে তিনি বলেছিলেন, ক্যারিয়ারের শেষ পর্যায়ে চলে এসেছেন। পরে তার আরও অনেক কথা ও কাজে ছিল বিদায়ের ইঙ্গিত। তবে ভারতের নানা প্রান্তে, মাঠ থেকে মাঠে, গ্যালারিতে তার প্রতি ভালোবাসা, কৃতজ্ঞতার প্রকাশ যেমন ছিল, তেমনি নানা ব্যানার-পোস্টারে ছিল তার খেলা চালিয়ে যাওয়ার অনুরোধ ও আকুতিও। 

লোকের সেই চাওয়া প্রবলভাবেই স্পর্শ করছে ধোনিকে। আর কদিন পরই তার বয়স পূর্ণ হবে ৪২। আগামী বছর ৪৩ ছুঁইছুঁই বয়সে আইপিএল খেলাটা কঠিন হবে বটে। তবে আহমেদাবাদে সোমবার আইপিএলে ফাইনালের পর তিনি বললেন, লোকের ভালোবাসার প্রতিদান দিতে পরের মৌসুমেও মাঠে নামতে চান চেন্নাইয়ের জার্সিতে।“পরিস্থিতি যদি দেখেন, তাহলে  আমার জন্য অবসর ঘোষণা করে দেওয়ার সেরা সময় এটিই। এই বছর যেখানেই গেছি, যে পরিমাণ ভালোবাসা ও অনুরাগের ছোঁয়া পেয়েছি, তাতে খুব সহজেই বলে দিতে পারি যে, ‘ধন্যবাদ, অনেক হয়েছে…।’ তবে আমার জন্য কঠিন ব্যাপারটি হলো, আরও ৯ মাস কঠোর পরিশ্রম করা এবং আবার ফিরে এসে আইপিএলের অন্তত আর একটি মৌসুম খেলা।” “যদিও এটা অনেকটা নির্ভর করছে শরীরের ওপর। সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য আরও ৬-৭ মাস সময় আছে আমার হাতে। এটা (আরেক মৌসুম খেলা) আমার তরফ থেকে হবে উপহার (ভক্তদের জন্য)। কাজটি যদিও আমার জন্য সহজ হবে না। তবে তারা (ভক্তরা) যতটা ভালোবাসা ও আবেগ দেখিয়েছে, তাদের জন্য এটা আমার করা উচিত।”ফাইনালে ভেন্যু আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়াম গুজরাট টাইটান্সের ঘরের মাঠ। কিন্তু ফাইনালে গ্যালারিতে চেন্নাইয়ের হলুদ জার্সির জোয়ারও ছিল বেশ। বলার অপেক্ষা রাখে না, তা মূলত ধোনির জন্যই। এই দর্শকদের জন্যই আরেক মৌসুমে মাঠে নামার লক্ষ্য ঠিক করছেন তিনি। 

“ক্যারিয়ারের এই শেষ ভাগে এসে আবেগ স্পর্শ করাটা স্বাভাবিক এবং আমার মনে হয়, এবার এখানে প্রথম ম্যাচ থেকেই এটা শুরু হয়েছিল। মাঠে নামার পর থেকেই পুরো গ্যালারি আমার নামে গর্জন করছিল। আমার চোখ ভরে উঠেছিল (অশ্রুতে)।” “তখন ডাগ আউটে কিছুক্ষণের জন্য দাঁড়িয়ে থাকলাম, সময় নিলাম ও উপলব্ধি করলাম, এটা আমি উপভোগ করব এবং চাপ নেব না। চেন্নাইয়ে একইরকম ব্যাপার ছিল, সেখানে যখন শেষ ম্যাচটি খেললাম। তাই আরেকবার ফিরতে পারা এবং যতটা পারি, খেলতে পারা হবে দারুণ ব্যাপার।” ক্যারিয়ার জুড়ে এত অর্জন, এত প্রাপ্তি, এত এত মানুষের ভালোবাসা, তার পরও পা মাটিতেই রাখেন কীভাবে, এই প্রশ্নে ধোনি বললেন, নিজের মতো থাকতে চাওয়াই তাকে অসংখ্য মানুষের হৃদয়ে পৌঁছে দিয়েছে। “তারা আমাকে এতটা ভালোবাসে আমি এরকম বলেই। মাটিতে পা রাখি বলেই তারা আমাকে পছন্দ করেন। আরেকটি ব্যাপার হলো, যে ধরনের ক্রিকেট আমি খেলি। স্টেডিয়ামে সবাই মনে করেন যে, তারাও এরকম খেলতে পারেন, কারণ এখানে প্রথাগত বলে কিছু নেই।” “এজন্য আমার মনে হয়, তারা আমার সঙ্গে নিজেদের মেলাতে পারে। তবে যেমনটি বললাম, আমি কখনোই নিজেকে বদলাতে চাই না বা কখনোই নিজেকে এমনভাবে তুলে ধরতে চাইনি, যেমনটি আমি সত্যিকার অর্থে নই। আমি নিজের মতোই থেকেছি এবং সবকিছু সাধারণ রেখেছি।”

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য