Wednesday, November 30, 2022
বাড়িখেলা২০১৯ ফাইনালের অভিজ্ঞতায় আত্মবিশ্বাসী ইংল্যান্ড

২০১৯ ফাইনালের অভিজ্ঞতায় আত্মবিশ্বাসী ইংল্যান্ড

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, আগরতলা, ১২  নভেম্বর: যেন রোমাঞ্চের ঝাঁপি খুলে বসেছিল ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপের ফাইনাল। উত্তেজনার পারদ ছিল চূড়ায়। রুদ্ধশ্বাস লড়াই শেষে ট্রফি উঁচিয়ে ধরেছিল ইংল্যান্ড। ভিন্ন সংস্করণে এবার আরেকটি শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে নামার অপেক্ষায় ইংলিশরা। দলটির অধিনায়ক জস বাটলার মনে করছেন, তিন বছর আগের সেই ম্যাচের অভিজ্ঞতা তাদের আত্মবিশ্বাসের পালে দেবে জোর হাওয়া।টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অষ্টম আসরের শিরোপা ঘরে তোলার লড়াইয়ের মঞ্চে পাকিস্তানের মুখোমুখি ইংল্যান্ড। মেলবোর্নে রোববার বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায় মাঠে গড়াবে ম্যাচটি।২০১৯ বিশ্বকাপ হয় ইংল্যান্ডে। ঘরের মাঠে সেবার ফাইনালে নিউ জিল্যান্ডের সঙ্গে খেলে স্বাগতিকরা। লর্ডসে দুই দল মিলে উপহার দেয় শ্বাসরুদ্ধকর এক ম্যাচ। নিশ্চিতভাবেই ক্রিকেট রূপকথায় চিরস্থায়ী জায়গা করে নিয়েছে ওই লড়াই।শিরোপার লড়াইয়ে নেমে টস জিতে আগে ব্যাটিং নেয় কিউইরা। হেনরি নিকোলসের ফিফটি, টম ল্যাথামের কার্যকর ইনিংস ও বাকিদের টুকটাক অবদানে ৮ উইকেটে ২৪১ রান করে তারা।রান তাড়ায় ৮৬ রানে প্রথম ৪ ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে কাঁপছিল ইংল্যান্ড। এরপর বেন স্টোকস ও বাটলার ১১০ রানের জুটি গড়ে তাদের ফেরান কক্ষপথে। ৫৯ রান করে যখন বাটলার আউট হন ইংল্যান্ডের চাই ৩১ বলে ৪৬ রান।

এরপর স্টোকসের ব্যাটে রোমাঞ্চের নানা গলি পেরিয়ে ম্যাচ গড়ায় শেষ ওভারে। যেখানে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল ১৫ রান। দুই বল ডট খেলার পর ট্রেন্ট বোল্টকে ছক্কায় ওড়ান স্টোকস। পরের বলেও ৬ রান পেয়ে যায় ইংল্যান্ড, যেখানে চার আসে বাই থেকে।রান আউট থেকে বাঁচতে স্টোকস ঝাঁপ দিলে ডিপ মিডউইকেট থেকে করা মার্টিন গাপটিলের থ্রোয়ে বল তার ব্যাটে লেগে চলে যায় বাউন্ডারিতে। সঙ্গে দৌড়ে আসে দুই রান। ২ বলে ৩ রানের সমীকরণ মেলাতে পারেনি ইংল্যান্ড। ম্যাচ হয় টাই। খেলা গড়ায় সুপার ওভারে।অবিশ্বাস্যভাবে সুপার ওভারও হয় টাই! দুই দলই করে ১৫ রান। শেষ পর্যন্ত বাউন্ডারি সংখ্যায় এগিয়ে বিজয়ী হয় ইংল্যান্ড। ঘরে তোলে ওয়ানডে বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম শিরোপা। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বাদ অবশ্য এর আগেই পায় ইংল্যান্ড। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ২০১০ আসরে শিরোপা জিতেছিল তারা চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে। ২০ ওভারের ক্রিকেটে দ্বিতীয়বার বিশ্ব জয়ের অপেক্ষায় থাকা দলটি। এর আগে আলোচনায় অবশ্য আসছে ২০১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালের কথা।ওই ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য বাটলার এবার ইংলিশদের নেতা। পাকিস্তানের বিপক্ষে লড়াইয়ে নামার আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে তিনি বললেন, লর্ডসের সেই ফাইনালের অভিজ্ঞতা তাদের সুবিধা দেবে।

“আমার মনে হয়, যেকোনো অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হওয়া, ভালো কিংবা খারাপ, সেগুলো থেকে শেখা যায় এবং প্রতিকূল কিংবা এলোমেলো পরিস্থিতিতে ওই সব অভিজ্ঞতার কাজে লাগানো যায়। ওই ধরনের (২০১৯ ফাইনালের মতো ঘটনা) সবকিছুই ঘটতে পারে। আর বিশ্বকাপ ফাইনালে এমন কিছু ঘটার ভালো সম্ভাবনা থাকে। তাই ওই অনুভূতিগুলো বোঝা এবং সে সময়ের প্রতিক্রিয়া কী হবে সেটা সম্পর্কে অভিজ্ঞতা যতবেশি থাকবে, আমি অবশ্য এটাকে সুবিধা হিসেবেই দেখি।”“আমি মনে করি, এটা সেই (২০১৯) বিশ্বকাপের ফাইনালই হোক বা ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের বিভিন্ন ফাইনালই হোক কিংবা দল হিসেবে আমরা যেকোনো অভিজ্ঞতা যেটার মধ্য দিয়ে আমরা গিয়েছি, সেসব আমাদের সুবিধা দেবে।”২০১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালে ম্যাচের আগে হানা দিয়েছিল বৃষ্টি। খেলা শুরু হয়েছিল দেরিতে। এবার মেলবোর্নেও ফাইনালের দিন বৃষ্টি নামার শঙ্কা প্রবল। তবে আপাতত প্রকৃতির বাগড়ার কথা ভাবছে না ইংল্যান্ড। বাটলার বললেন, যেকোনো পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকতে চান তারা।“অবশ্যই আমি মনে করি, আবহাওয়া এমন কিছু যা আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না। যা-ই ঘটুক না কেন, আমাদের অবশ্যই যেকোনো পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। জানি না কী হবে, আমরা সবাই একটি স্বাভাবিক ম্যাচের আশায় আছি এবং কামনা করছি যেন বিরূপ প্রকৃতির প্রভাব না ফেলে। তবে আজকে এটা নিয়ে ভেবে শক্তি অপচয় করতে চাই না। আগামীকাল আবহাওয়া নিয়ে ভাবা যাবে।”

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য