Friday, October 7, 2022
বাড়িজাতীয়দেশজুড়ে 'বৃহত্তম' তল্লাশি এনআইএ ও ইডি-র, ১৩ রাজ্যে অভিযানে ধৃত শতাধিক পিএফআই...

দেশজুড়ে ‘বৃহত্তম’ তল্লাশি এনআইএ ও ইডি-র, ১৩ রাজ্যে অভিযানে ধৃত শতাধিক পিএফআই কর্মী



নয়াদিল্লি, ২২ সেপ্টেম্বর (হি.স.): পশ্চিম, দিল্লি, বিহার-সহ দেশের বিভিন্ন রাজ্যে হিংসাত্মক কার্যকলাপে জড়িত কট্টরপন্থী সংগঠন ‘পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়া’ (পিএফআই) এবং ‘সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি অফ ইন্ডিয়া’ (এসডিপিআই)-এর বিরুদ্ধে দেশ জুড়ে অভিযান শুরু করল জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ), একইসঙ্গে অভিযান চালিয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটও(ইডি)। বৃহস্পতিবার ভোররাত থেকে পশ্চিমবঙ্গ-সহ ১৩ রাজ্যে শুরু হওয়া এই অভিযানে পিএফআই এবং এসডিপিআই-এর শতাধিক নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এনআইএ-র দেড় দশকের অভিযানে এটাই বৃহত্তম সন্ত্রাস দমন অভিযান। পিএফআই-এর বিরুদ্ধে এনআইএ-র এই অভিযানের প্রেক্ষিতে এদিনই জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা, স্বরাষ্ট্র সচিব, এনআইএ ডিজি-র সঙ্গে বৈঠক করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

এনআইএ-র এখনও পর্যন্ত সবথেকে বড় তদন্ত প্রক্রিয়ায় কেরল ও তামিলনাড়ু-সহ দেশের মোট ১৩টি রাজ্যে তল্লাশি অভিযান চালিয়েছে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ) ও প্রবর্তন নির্দেশালয় (ইডি)। এই ১৩টি রাজ্যের মধ্যে রয়েছে দিল্লি, মহারাষ্ট্র, পশ্চিমবঙ্গ, উত্তর প্রদেশ, তামিলনাড়ু, কর্ণাটক, বিহার, অন্ধ্রপ্রদেশ, রাজস্থান, অসম ও তেলেঙ্গানাও। ১০টি রাজ্যে অভিযান চালিয়ে ১০০-র বেশি পপুলার ফ্রন্ট নেতাকে গ্রেফতার করেছে এনআইএ ও ইডি। কেরলের মালাপ্পুরমের মাঞ্জেরিতে পিএফআই চেয়ারম্যান ওএমএ সালেমের বাড়িতে বুধবার মধ্যরাত থেকেই তল্লাশি অভিযান চালায় এনআইএ ও ইডি। এই অভিযানের প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখান পিএফআই কর্মীরা। এছাড়াও কেরলে পিএফআই-এর এর জেলাস্তরের নেতাদের বাড়িতেও তল্লাশি চালায় এনআইএ ও ইডি।

অন্ধ্রপ্রদেশের কুরনুলে ‘গো ব্যাক’ স্লোগান শুনতে হয় এনআইএ গোয়েন্দাদের। জয়পুরের মোতি ডুংরি রোডে পিএফআই-এর জয়পুর অফিসে এনআইএ অভিযান চালিয়েছে। পিএফআই-এর নবি মুম্বই অফিসেও এনআইএ অভিযান চালিয়েছে। মহারাষ্ট্র এটিএস রাজ্য জুড়ে পিএফআই-এর সঙ্গে যুক্ত ২০ জনকে গ্রেফতার করেছে। মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদ, পুনে, কোহালপুর, বিড, পারভানি, নান্দেদ, জলগাঁও, জালনা, মালেগাঁও, নবি মুম্বই, থানে এবং মুম্বইতে অভিযান চালিয়ে এই গ্রেফতারি। বিহারের পূর্ণিয়াতে পিএফআই অফিসে এদিন সকালে তল্লাশি চালায় এনআইএ। ম্যাঙ্গালুরুতে এনআইএ অভিযানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার সময় পিএফআই ও এসডিপিআই কর্মীদের আটক করে কর্ণাটক পুলিশ। এনআইএ আধিকারিকরা তামিলনাড়ুর ডিন্ডিগুল জেলায় পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়ার পার্টি অফিসে অভিযান চালায়। এনআইএ অভিযানের বিরুদ্ধে পার্টি অফিসের বাইরে বিক্ষোভ দেখান পিএফআই কর্মীরা। তামিলনাড়ুর কোয়েম্বাটুর, কুদ্দালোর, রামনাদ, থেনি এবং থেনকাসি-সহ বেশ কয়েকটি জায়গায় পিএফআই-এর নেতাদের বাড়িতে তল্লাশি চালায় এনআইএ ও ইডি। চেন্নাইয়ে পিএফআই-এর রাজ্য সদর কার্যালয়েও তল্লাশি চালানো হয়। কলকাতাতেও এনআইএ ও ইডি-র তল্লাশি অভিযান চালিয়েছে। বুধবার গভীর রাতে পার্ক সার্কাসে পিএফআই নেতা শেখ মোক্তারের বাড়িতে হানা দেয় এনআইএ।

প্রসঙ্গত, দেশজুড়ে ইসলামিক জঙ্গি সংগঠন পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধে এখনও পর্যন্ত সবথেকে বড় তদন্ত প্রক্রিয়া এটি। জঙ্গি কার্যকলাপে অর্থ সাহায্য, প্রশিক্ষণ শিবির সংগঠিত করা এবং নিষিদ্ধ সংগঠনে যোগদানের জন্য উৎসাহিত করা প্রভৃতি অভিযোগ রয়েছে পিএফআই-এর বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগের তদন্তেই এই অভিযান এনআইএ ও যদি-র।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য