Tuesday, October 4, 2022
বাড়িরাজ্যসিপিআইএমের সভা ঘিরে রণক্ষেত্র হাঁপানিয়া

সিপিআইএমের সভা ঘিরে রণক্ষেত্র হাঁপানিয়া

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২২ সেপ্টেম্বর : রাজধানীর হাঁপানিয়ায় সি পি আই এম -এর সভা ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে উঠে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ এবং আধা সামরিক বাহিনী। জানা যায় বৃহস্পতিবার পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার দাবিতে সিপিআইএমের মিছিল এবং পথ সভার আয়োজন করা হয়। সভা ডুকলি মহকুমা অফিসের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। এদিন সকাল থেকেই এলাকার পরিস্থিতি ছিল থমথমে। পুলিশের পক্ষ থেকে কোন ধরনের অনুমতি দেওয়া হয় না সভা করার জন্য।

 তারপরও বিরোধী দলনেতা মানিক সরকারের উপস্থিতিতে নির্ধারিত সময় অনুযায়ী এদিন শুরু হয় কর্মসূচি। কিন্তু কর্মসূচি শুরু হওয়ার সাথে সাথে রাস্তার দুপাশে জমায়েত হতে শুরু করে কয়েক শতাধিক বিজেপি কর্মী সমর্থক। টানটান পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে চলতে থাকে বামেদের কর্মসূচি। পুলিশ, টি এস আর এবং আধা সামরিক বাহিনী সিপিআইএম-এর কর্মসূচিতে ব্যারিকেড দিয়ে নিরাপত্তা দিতে শুরু করে। সভা শেষ হওয়ার পর অধিকাংশ সিপিএম কর্মী সমর্থকদের পুলিশ বাসে করে নিরাপদে বাড়ি ফেরাতে সক্ষম হলেও কয়েকজন কর্মী সমর্থক বিজেপির দুর্বৃত্তদের মুখে পড়ে। দুর্বৃত্তরা তাদের ব্যাপক প্রহার কর বলে অভিযোগ। শেষ পর্যন্ত এলাকায় বাড়ানো হয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

কিন্তু বর্তমানে পরিস্থিতি অনেকটাই থমথমে। এদিন সভায় বিরোধী দলনেতা মানিক সরকার ডাবল ইঞ্জিনের সরকারের তীব্র সমালোচনা করে বলেন, মানুষ ব্যাপক সমস্যায় পড়ে আছে। সরকার প্রতিশ্রুতি পালন করছে না। সবচেয়ে বড় জ্বলন্ত সমস্যা হল কর্মসংস্থানের অভাব। ১০,৩২৩ -এর কোন স্থায়ী ব্যবস্থা হয়নি। মানুষের নিরাপত্তা হরণ করে নেওয়া হয়েছে। রাজ্যের টি এস আর ব্যাটেলিয়ান বহিঃ রাজ্যে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। প্রতিদিন মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে। কিন্তু শাসক দল বিজেপি আগের মতো এখন লোক জমায়েত করে সন্ত্রাস করতে পারছে না। মানুষ বুঝতে শুরু করেছে নিজের পায়ে নিজে কুড়াল মেরেছে। মানুষ এখন এই বিজেপি সরকারকে আর চাইছে না বলে জানান তিনি। আরো বলেন, যেভাবে উপনির্বাচন লোকসভা নির্বাচনে শাসকদল বিজেপি ভোট লুট করেছে, সেভাবে ২০২৩ -এর নির্বাচনে ভোটর করতে পারবে বলে ভাবলে বিজেপি ভুল করবে। কারণ মানুষ তৈরি হয়ে আছে এ স্বৈরাচারী ও অগণতান্ত্রিক সরকারকে বিসর্জন দিতে। শ্রী সরকার আরো বলেন মানুষ যাতে বিজেপির প্ররোচনার ফাঁদে পা না দেয়। এ সরকারকে উৎখাত করার লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। কারণ বিজেপিকে পরাস্ত না করা গেলে মানুষের অস্তিত্ব বিপন্ন হয়ে যাবে বলে জানান তিনি।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য