Sunday, June 23, 2024
বাড়িবিশ্ব সংবাদমামলায় দোষী হওয়ার পর জনসমর্থন খুইয়েছেন ট্রাম্প: জরিপ

মামলায় দোষী হওয়ার পর জনসমর্থন খুইয়েছেন ট্রাম্প: জরিপ

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ৮ জুন: যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প পর্ন তারকাকে দেওয়া ঘুষের ফৌজদারি মামলায় গত সপ্তাহে নিউ ইয়র্কের আদালতে ৩৪ টি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পর কিছু জনসমর্থন খুইয়েছেন।ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আদালতের দেওয়া রায় আসন্ন নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের অবস্থানেরই কেবল ক্ষতি করবে বলে রিপাবলিকানরা দাবি করলেও নতুন কয়েকটি জরিপের ফলে দেখা যাচ্ছে ভিন্ন চিত্র।

দ্য গার্ডিয়ান পত্রিকা জানায়, মামলায় ট্রাম্প দোষী হওয়ার পর গুরুত্বপূর্ণ ভোটকেন্দ্রগুলোতে কিছুসংখ্যক ভোটার এখন বাইডেনের দিকে ঝুঁকছেন। জনসমর্থনের দিক থেকে ট্রাম্পের সঙ্গে বাইডেনের ব্যবধান কমে এসেছে।ট্রাম্প দোষী সাব্যস্ত হওয়ার আগে গত এপ্রিল এবং মে মাসে জরিপ চালানো ২ হাজার মার্কিনির মধ্যে নতুন করে চালানো নিউ ইয়র্ক টাইমস/সিয়েনা কলেজ জরিপে দেখা গেছে, ট্রাম্প আগের তুলনায় এক পয়েন্ট সমর্থন খুইয়েছেন। আর বাইডেন এক পয়েন্ট বেশি সমর্থন পেয়েছেন।এমারসন কলেজ পরিচালিত বৃহস্পতিবারের জরিপে অবশ্য ট্রাম্পের জনসমর্থন আগের মতো একইরকম আছে দেখা গেছে। তবে বাইডেনের জনসমর্থন গতমাসের তুলনায় এক পয়েন্ট বাড়তে দেখা গেছে।

তাছাড়া, প্রধান চারটি জরিপের দুইটাতে জনসমর্থনের দিক থেকে বাইডেনকে এগিয়ে যেতে দেখা গেছে: গত সপ্তাহের বৃহস্পতি ও শুক্রবার পরিচালিত রয়টার্স/ইপসোস জরিপে বাইডেন এগিয়েছেন দুই পয়েন্টে। ট্রাম্পের মামলার রায় হওয়ার সময় জরিপগুলো পরিচালানা করা হয়।শুক্রবার পরিচালিত মর্নিং কনসাল্ট জরিপে বাইডেন এগিয়ে আছেন এক পয়েন্টে। আর আইএন্ডআই/টিআইপিপি জরিপে ট্রাম্প এবং বাইডেনের সমর্থন সমানে সমান দেখা গেছে। ইকোনোমিস্ট/ইউগভ জরিপের ফলেও বুধবার বাইডেন এবং ট্রাম্প দুইজনকেই ৪২ শতাংশ জনসমর্থন পেতে দেখা গেছে।ট্রাম্পই যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম সাবেক প্রেসিডেন্ট, যিনি ফৌজদারি অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন, যিনি প্রধান একটি দল থেকে আগামী ৫ নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। আগামী ১১ জুলাই ট্রাম্পের সাজার রায় ঘোষণা হতে পারে।

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তার সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে মুখ না খুলতে ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগেসাবেক পর্নতারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে মোটা অঙ্কের ঘুষ দিয়েছিলেন ট্রাম্পের তৎকালীন আইনজীবী মাইকেল কোহেন।তাছাড়া, এই অর্থ দেওয়ার বিষয়টি গোপন রাখতে ট্রাম্প তার ব্যবসায়িক রেকর্ডেও জালিয়াতির আশ্রয় নিয়েছিলেন বলে অভিযোগ আছে।ড্যানিয়েলসের দাবি, তাদের মধ্যে যৌন সম্পর্ক হয়েছিল এবং ২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ওই বিষয়ে চুপ থাকতে তাকে ১ লাখ ৩০ হাজার ডলার দিয়েছিলেন ট্রাম্পের সে সময়ের আইনজীবী।অবশ্য ড্যানিয়েলসের সঙ্গে যৌন সম্পর্কের খবর ২০১৮ সালে ছড়ানোর পর থেকেই ট্রাম্প তা অস্বীকার করে আসছেন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য