Wednesday, May 29, 2024
বাড়িবিশ্ব সংবাদতাইওয়ানে অন্তত ২০০ ভূমিকম্প, ক্ষতি সামান্য

তাইওয়ানে অন্তত ২০০ ভূমিকম্প, ক্ষতি সামান্য

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ২৩ এপ্রিল: তাইওয়ানের ভূমিকম্প ক্ষতিগ্রস্ত পূর্বাঞ্চলীয় কাউন্টি হুয়ালিয়েনে সোমবার বিকাল থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত দুইশরও বেশি ভূমিকম্প হয়েছে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি আর সামান্য ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।জনবিরল হুয়ালিয়েনের অধিকাংশই গ্রামীণ এলাকা। ৩ এপ্রিল এখানে ৭ দশমিক ২ মাত্রার একটি ভূমিকম্পে অন্তত ১৪ জন নিহত হয়েছিল। তারপর থেকে অঞ্চলটিতে ১০০০ এরও বেশি পরাঘাত অনুভূত হয়েছে।  তাইওয়ানের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া প্রশাসন জানিয়েছে, এবারের ভূমিকম্পের ঝাপটাটা শুরু হয় মঙ্গলবার বিকাল থেকে, এগুলো সব ৩ এপ্রিলের বড় ভূমিকম্পটির পরাঘাত। সবগুলো ভূমিকম্পের উৎপত্তি ভূপৃষ্ঠের অল্প গভীরে।  এসব ভূমিকম্পের মধ্যে সবচেয়ে তীব্রতমটি ছিল ৬ দশমিক ৩ মাত্রার। এতে তাইওয়ানের উত্তরাঞ্চল, পূর্বাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চলের অধিকাংশ এলাকার ভবনগুলো কেঁপে ওঠে।

রাজধানী তাইপেইয়ের বাসিন্দা চিকিৎসা বিজ্ঞানী এডেন পেং (৪৪) রয়টার্সকে বলেন, “বিশেষকরে রাত ২টার দিকে প্রবল ঝাঁকুনি অনুভূত হয়। এক পর্যায়ে আমি নিচে চলে যাওয়ার কথা ভেবেছিলাম, কিন্তু সাততলায় থাকার কারণে নিচে যাওয়াও সমস্যা মনে হচ্ছিল। পরে তেমন কিছু হবে না আশা করে শুয়েই থাকলাম।”তাইওয়ানের ভূমিকম্প কেন্দ্রের পরিচালক উ চিয়েন-ফু জানিয়েছেন, পরাঘাতগুলোর মাধ্যমে ‘ভূগর্ভে সঞ্চিত শক্তিগুলো মুক্ত’ হচ্ছে আর এ ধরনের আরও ভূমিকম্প হতে পারে, তবে সেগুলো হয়তো এতো শক্তিশালী হবে না। চলতি সপ্তাহে পুরো তাইওয়ানজুড়ে ভারি বৃষ্টি হতে পারে, তাই আরও দুর্যোগের জন্য হুয়ালিয়েনের বাসিন্দাদের প্রস্তুতি নেওয়া দরকার।”হুয়ালিয়েনের দমকল পরিষেবা জানিয়েছে, ৩ এপ্রিলের ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত দু’টি ভবন আরও ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে অনেকটা হেলে পড়েছে। প্রথম ভূমিকম্পের পর থেকেই ভবন দু’টি খালি ছিল, তাই হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি। পার্বত্য হুয়ালিয়েন কাউন্টিতে পাথর ধসের পর কিছু সড়ক বন্ধ হয়ে গেছে বলে খবর হয়েছে। অঞ্চলটিতে সব ধরনের কাজ ও স্কুল মঙ্গলবার বন্ধ রাখা হয়েছে।তাইওয়ান দ্বীপের অবস্থান দু’টি ভূতাত্ত্বিক প্লেটের সন্ধিস্থলের কাছে, তাই অঞ্চলটি ভূমিকম্প প্রবণ।২০১৬ সালে দ্বীপটির দক্ষিণাঞ্চলে ভূমিকম্পে শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছিল। আর ১৯৯৯ সালে ৭ দশমিক ৩ মাত্রার একটি ভূমিকম্পে মৃত্যু হয়েছিল দুই হাজারেরও বেশি মানুষের।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য