Sunday, April 14, 2024
বাড়িবিশ্ব সংবাদ মস্কোর কনসার্ট হলে জঙ্গি হামলার ৪৮ ঘণ্টা পরে নিহতের সংখ্যা দেড়শো ছুঁল

 মস্কোর কনসার্ট হলে জঙ্গি হামলার ৪৮ ঘণ্টা পরে নিহতের সংখ্যা দেড়শো ছুঁল

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক,২৫ মার্চ :   মস্কোর কনসার্ট হলে জঙ্গি হামলার ৪৮ ঘণ্টা পরে নিহতের সংখ্যা দেড়শো ছুঁল। শৌচাগার, সিঁড়ির মতো নানা জায়গায় মিলছে থরে থরে দেহ। কেউ গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন, কেউ দমবন্ধ হয়ে, কেউ আগুনে পুড়ে। একের পর এক দেহ বেরোচ্ছে ভেঙে পড়া ছাদের ধ্বংসস্তূপ থেকে। ইগর পোগাদায়েভের মতো অনেকে ছুটে বেড়াচ্ছেন তার মধ্যে। শুক্রবার সন্ধ্যায় কনসার্ট হল থেকে দু’টি ছবি পাঠানোর পর থেকে নিখোঁজ তাঁর স্ত্রী ইয়ানা।

২০০২ সালে মস্কোর দুব্রোভকা থিয়েটারে চেচেন জঙ্গিদের হামলায় প্রাণ যায় ১৭২ জনের। এ বার নিহতের সংখ্যা তা ছাপিয়ে যেতে পারে, শঙ্কা রুশ সংবাদমাধ্যমের একাংশের। অন্য দিকে, ধোঁয়াশা ক্রমশ গাঢ় হচ্ছে ধৃত চার সন্দেহভাজন জঙ্গির পরিচয় ঘিরে।

রক ব্যান্ড ‘পিকনিক’-এর কনসার্ট শুরুর মুখে শুক্রবার ক্রাসনোগরস্কের ক্রকাস সিটি হলে জঙ্গি হামলা হয়। বিবৃতিতে হামলার দায় নিয়েছে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট-খোরাসান। রাশিয়া আবার ইউক্রেন যোগের কথা বলছে। ধৃতদের থেকে তাজিকিস্তানের পাসপোর্ট মেলার দাবিও করছে। এর মধ্যে সমাজমাধ্যমের যোগাযোগ রক্ষাকারী অ্যাপ ‘টেলিগ্রাম’-এ একটি ভিডিয়ো ছড়িয়েছে। ছোরা, অ্যাসল্ট রাইফেল হাতে কিছু হামলাকারীকে দেখা যাচ্ছে তাতে। মুখ ঘষে দেওয়া, যান্ত্রিক ভাবে বিকৃত করা স্বর। দেখে মনে হয়, সিটি হলের লবি। নির্বিচারে গুলি চালাচ্ছে তারা, নিথর দেহ ছড়িয়ে, আগুন জ্বলে উঠছে পিছনে। মিনিট দেড়েকের ভিডিয়ো ক্লিপটি আইএস-এর সংবাদ শাখা আমাক-এর সঙ্গে যুক্ত টেলিগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে প্রকাশিত, দাবি আমেরিকার গোয়েন্দাদের।

অন্য একটি ভিডিয়োয় পিছমোড়া করে হাত বাঁধা এক জনের মাথা বুট দিয়ে মাটিতে চেপে ধরে জংলা পোশাক পরা কিছু লোক। ছুরি দিয়ে কান কেটে নৃশংস অত্যাচার করা হচ্ছে। কিছু রুশ সংবাদমাধ্যমের দাবি, ভিডিয়োটি খাটসুন গ্রামের কাছে এম৩ ইউক্রেন হাইওয়ের কোনও বাঁকে তোলা। ইউক্রেন সীমান্ত থেকে ১৪০ কিলোমিটার, ব্রায়ানস্ক থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরের ওই এলাকা থেকে ধরা হয় চার সন্দেহভাজন জঙ্গিকে। আর একটি ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, পিছমোড়া করে হাত বেঁধে হাঁটু গেড়ে বসিয়ে রাখা এক জন দাবি করছে, দশ লক্ষ রুবলের বিনিময়ে তাদের হামলা করার জন্য বলা হয়। তার দাবি, টেলিগ্রামে এক ধর্মপ্রচারকের বাণী শুনতে বলা হত। সেই ব্যক্তির সহকারী যোগাযোগ করে মাস কয়েক আগে। ব্যাঙ্কের কার্ডে প্রতিশ্রুতির অর্ধেক অর্থ অগ্রিম দেয়। দেয় অস্ত্র। দু’মাস প্রশিক্ষণ চলে। হামলার ঠিক আগে বলা হয়, কোথায় যেতে হবে। নিজেদের পরিচয় দেয়নি সেই নিয়োগকারীরা।

মস্কো ভিডিয়োগুলির সত্যতা নিয়ে কিছুই বলেনি। এই ঘটনার প্রেক্ষিতে রাশিয়ায় ফের মৃত্যুদণ্ড চালুর দাবি উঠেছে। রুশ আইনসভার এক সদস্যের মতে, বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হবে। ৩১, ৫১, ২১ এবং ২৯ বছর বয়সি চার জনের নাম-পরিচয় ঘুরছে কিছু রুশ টেলিগ্রাম চ্যানেলে। তবে রুশ বিদেশ মন্ত্রকের দাবি উড়িয়ে তাজিকিস্তান বলেছে, ৩৭ এবং ৫১ বছর বয়সি হত্যাকারী বলে যাঁদের নাম করা হচ্ছে, গত ২৬ নভেম্বর সেই পরিচয়ের দু’জন রাশিয়া থেকে ফিরে এসেছেন। সেই ইস্তক নিজেদের বাড়িতেই থেকেছেন। কিছু রুশ সংবাদমাধ্যম আবার ধৃতেরা রুশ পাসপোর্টধারী বলে দাবি করছে।

ভারতের বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্কর আজ কথা বলেছেন রুশ বিদেশমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের সঙ্গে। রাশিয়ায় দিনটি ছিল জাতীয় শোকের। সিটি হলে শ্রদ্ধা জানাতে আসা আন্দ্রি কন্দাকোভ বলছিলেন, “ভিতরে তো আমিও থাকতে পারতাম।”

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য