Thursday, July 25, 2024
বাড়িবিশ্ব সংবাদউস্কানি দিলে তাৎক্ষণিক সামরিক হামলার হুমকি দিলেন কিমের বোন

উস্কানি দিলে তাৎক্ষণিক সামরিক হামলার হুমকি দিলেন কিমের বোন

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক,‌  ৮ জানুয়ারি: উত্তর কোরিয়া যে কোনও উসকানির জবাবে তাৎক্ষণিকভাবে সামরিক হামলা চালাবে। এমনই হুমকি দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং-উনের বোন কিম ইয়ো জং।দক্ষিণ কোরিয়া সীমান্তের কাছে টানা তিনদিন উত্তর কোরিয়ার গোলাবর্ষণের পর রোববার ইয়ো জং এই হুমকি দিলেন।রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ-তে এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, “আমি আবারও স্পষ্টভাবে জানাচ্ছি, কোরিয়ান পিপলস আর্মির (কেপিএ) ট্রিগারের সেফটি ক্যাচ এরই মধ্যে খুলে গেছে। যেমনটি আগেই বলেছি, শত্রু এমনকী সামান্য উস্কানি দিলেও কেপিএ তাৎক্ষণিকভাবে সামরিক হামলা চালাবে।”দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী বলেছে, উত্তর কোরিয়া শনিবার তাদের বিতর্কিত সমুদ্র সীমান্তের কাছে ৬০টিরও বেশি কামানের গোলা নিক্ষেপ করেছে। তার আগের দিন গোলা নিক্ষেপ করা হয়েছিল ২শ’রও বেশি।

রোববার উত্তর কোরিয়া আবার প্রায় ৯০ রাউন্ড গোলা ছুড়ে। যদিও উত্তর কোরিয়ার সেনাবাহিনী বলেছে,তারা দক্ষিণ কোরিয়ার জন্য কোনও হুমকি সৃষ্টি করছে না। সীমান্তের কাছে কেবল গোলাগুলির মহড়া চলছে।দক্ষিণ কোরিয়ার ইয়োনহাপ সংবাদ সংস্থা বলেছে, উত্তরের গোলা হামলার জবাবে দক্ষিণ কোরিয়া শুক্রবার নিজেদের গোলাগুলির মহড়া অনুষ্ঠান করলেও শনিবারের গোলা হামলার পর আর তা করার পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছে।

শুক্রবার সীমান্তের দুই পারে সামরিক মহড়া হওয়ায় দক্ষিণ কোরিয়ার সীমান্ত দ্বীপগুলোতে অধিবাসীদের সতর্কবার্তা দিতে হয়েছিল।বিবৃতিতে কিম শনিবার গোলা ছোড়ার কথা অস্বীকার করেছেন। বরং শত্রুকে ধোঁকা দেওয়ার কৌশল হিসাবে বিস্ফোরকের বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে।কয়েক মাস ধরেই উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে নতুন করে সম্পর্কে টানাপোড়েন দেখা দিয়েছে। দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্যে করা একটি সামরিক চুক্তি থেকে উত্তর কোরিয়া সরে যাওয়ার পরই সীমান্তে গোলা ছোড়ার ঘটনা ঘটেছে।গত নভেম্বরে উত্তর কোরিয়ার সফলভাবে গোয়েন্দা উপগ্রহ উৎক্ষেপণের পর থেকে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে সম্পর্কে উত্তেজনা তৈরি হয় এবং দু’দেশের মধ্যকার ওই সামরিক চুক্তি দুর্বল হয়ে পড়ে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য