Thursday, July 25, 2024
বাড়িবিশ্ব সংবাদ‘নিখোঁজ’ নভোযান ভয়েজারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পেরেছে নাসা

‘নিখোঁজ’ নভোযান ভয়েজারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পেরেছে নাসা

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক,৫ আগস্ট: মাসখানেক আগে ভয়েজার-২-এর সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল মার্কিন মহাকাশ সংস্থার (নাসা)। অবশেষে নভোযানটির সঙ্গে আবার যোগাযোগ স্থাপন করতে সক্ষম হয়েছেন নাসার বিজ্ঞানীরা। বলা হচ্ছে, প্রত্যাশিত সময়ের আগেই নতুন করে যোগাযোগ স্থাপন করা সম্ভব হয়েছে।নাসা জানিয়েছে, গত মঙ্গলবার ভয়েজার-২ নভোযান থেকে পাঠানো সংকেত পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এর আগে গত মাসে নভোযানটিকে একটি ভুল নির্দেশনা পাঠানো হয়েছিল। এর পর সেটি অবস্থান বদল করে। বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় যোগাযোগ। এখন ভয়েজার-২-এর অ্যান্টেনা পৃথিবীর দিকে ফিরে এসেছে।তবে নাসার বিজ্ঞানীরা আশা করছিলেন, আগামী অক্টোবর মাস নাগাদ ভয়েজার-২-এর সঙ্গে নতুন করে যোগাযোগ স্থাপন করা সম্ভব হতে পারে। এর মাস দুয়েক আগেই সফল হলেন তাঁরা।ভয়েজারের প্রকল্প ব্যবস্থাপক সুজান ডড জানান, নাসার বিজ্ঞানীরা ভয়েজার-২ নভোযানে একটি বার্তা পাঠাতে সর্বোচ্চ শক্তির ট্রান্সমিটার ব্যবহার করেছিলেন।

১৯৭৭ সালে ভয়েজার-২ মহাকাশে পাঠায় নাসা। মহাকাশযানটি মহাজাগতিক রশ্মি বৃদ্ধির মুখে পড়েছে, ইন্টারস্টেলার স্পেসে ঢুকতে পেরেছে। অর্থাৎ, এটি হেলিওপজ এলাকা অতিক্রম করছে। ওই এলাকা সৌরঝড়ে তৈরি বুদ্‌বুদের প্রান্ত বা হেলিওস্ফেয়ার হিসেবে পরিচিত।হেলিওস্ফেয়ার হলো সূর্যের চারপাশে ও গ্রহগুলোর চারপাশের সুবিশাল বুদ্‌বুদ, যা সৌর উপাদান ও চৌম্বকক্ষেত্র দ্বারা প্রভাবিত। ভয়েজার-১-এর পরে এটিই মানুষের তৈরি দ্বিতীয় মহাকাশযান, যা ইন্টারস্টেলার স্পেসে ভ্রমণ করেছে।এর আগে এই মহাকাশযান বৃহস্পতি (১৯৭৯), শনি (১৯৮১), ইউরেনাস (১৯৮১) ও নেপচুন (১৯৮৯) ভ্রমণ করেছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য