Tuesday, June 28, 2022
বাড়িবিশ্ব সংবাদসোলেমানি হত্যা:৫১ মার্কিনির ওপর ইরানের নিষেধাজ্ঞা

সোলেমানি হত্যা:৫১ মার্কিনির ওপর ইরানের নিষেধাজ্ঞা

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৯ জানুয়ারি। যুক্তরাষ্ট্রের ৫১ নাগরিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ইরান। নিষেধাজ্ঞা কবলিতদের বেশির ভাগই যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর সদস্য।

২০২০ সালে ড্রোন হামলায় ইরানের জেনারেল কাসেম সোলেমানি হত্যার ঘটনার জেরে এ নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বলেছে, ‘সন্ত্রাস’ এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের কারণে ৫১ জন আমেরিকানের ওপর এ নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। ইরানে তাদের কোনও সম্পদ থাকলে তা জব্দ করা হবে। তবে এমন কোনও সম্পদ না থাকলে সেক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা হবে মূলত প্রতীকী।

স্থানীয় গণমাধ্যমে মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়, “জেনারেল কাসেম সোলেমানি ও তার সঙ্গীদের হত্যায় যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে সন্ত্রাসী অপরাধে জড়িত থাকা, সন্ত্রাসের বিস্তার ঘটানো এবং মৌলিক মানবাধিকার লঙ্ঘনের কারণে ৫১ জনকে নিষেধাজ্ঞার নিশানা করা হয়েছে।”

এই তালিকায় যুক্তরাষ্ট্রের জেনারেল মার্ক মিলি এবং জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ চেয়ারম্যান ও হোয়াইট হাউসের সাবেক জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা রবার্ট ও’ব্রায়েন রয়েছেন। গত বছর ইরান সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প এবং বেশ কয়েকজন জ্যেষ্ঠ মার্কিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধেও একইধরনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল।

ইরানি কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলেমানি হত্যার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের বিচার না হলে এ হত্যাকাণ্ডের বদলা নেওয়ার অঙ্গীকার এ সপ্তাহেই করেছে ইরান। সোলেমানি হত্যার দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে দেওয়া ভাষণে ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি এই অঙ্গীকার করেন।

ইরানে সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনির পরই সবচেয়ে ক্ষমতাধর ব্যক্তি হিসেবে আলোচিত নাম কাসেম সোলেমানি।

ইরানি রেভল্যুশনারি গার্ডের কুদস বাহিনীর এই কমান্ডার যুদ্ধক্ষেত্রে মিলিশিয়াদের উদ্বুদ্ধ করে এবং রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গে সংলাপ চালিয়ে মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে ইরানের প্রক্সি যুদ্ধে সহায়তা করেছিলেন।

২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্দেশে ইরাকের বাগদাদে চালক বিহীন বিমান (ড্রোন) হামলায় তিনি নিহত হন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য