Wednesday, May 29, 2024
বাড়িখেলাজিম্বাবুয়েকে হারিয়ে চমকে দিল গণ-অর্থায়নে খেলতে আসা দল ভানুয়াতু

জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে চমকে দিল গণ-অর্থায়নে খেলতে আসা দল ভানুয়াতু

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ২৬ এপ্রিল: ওশেনিয়ার ছোট্ট দ্বীপদেশ, যেখানে স্রেফ ৩ লাখের একটু বেশি মানুষের বসবাস, সেই ভানুয়াতুর খেলাধুলার ইতিহাসের সবচেয়ে বড় সাফল্যগুলির একটি মনে করা হচ্ছে এটিকে।ছেলে কিংবা মেয়ে, সব মিলিয়েই এই প্রথমবার তারা অংশগ্রহণ করছে বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে।পূর্ব-এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের বাইরের কোনো দেশের সঙ্গে এটিই ছিল ভানুয়াতুর প্রথম ম্যাচ। কিন্তু তাদের পারফরম্যান্সে এসব কিছুই ফুটে ওঠেনি। দাপট দেখিয়েই তারা হারিয়ে দেয় জিম্বাবুয়েকে।আবু ধাবিতে শুক্রবার ভানুয়াতুর দুই স্পিনার ভ্যানেসা ভিরা ও নাসিমানা নাভাইকার সামনে খাবি খায় জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং। চার ওভারে ১৩ রান দিয়ে চার উইকেট নেন ২৮ বছর বয়সী লেগ স্পিনার নাভাইকা। ১৭ বছর বয়সী অফ স্পিনার ভিরার শিকার ১৪ রানে তিন উইকেট। এছাড়া পেসার র‌্যাচেল অ্যান্ড্রুর প্রাপ্তি দুটি উইকেট।জিম্বাবুয়ে ১৩.৩ ওভারেই গুটিয়ে যায় ৬১ রানে। তাদের সর্বনিম্ন দলীয় স্কোর এটি।রান তাড়ায় ২১ বল বাকি থাকতে লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে ভানুয়াতু। বোলিংয়ে চার উইকেটের পর নাভাইকা ব্যাট হাতে দলের সর্বোচ্চ ২১ রান করেন তিন নম্বরে নেমে।গত ৬-৭ মাসে ভানুয়াতু অবশ্য বেশ কবারই খবরের শিরোণামে উঠে এসেছে ইতিবাচকভাবে। গত সেপ্টেম্বরে তারা হারিয়ে দেয় আঞ্চলিক প্রতিন্দ্বন্দ্বী পাপুয়া নিউনিগিকে, ক্রিকেট ঐতিহ্যে যারা অনেক এগিয়ে। পরে প্রথমবারের মতো পূর্ব-এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের বাছাইপর্বে জিতে বিশ্বকাপের এই মূল বাছাইয়ে জায়গা করে নেয়।

আবু ধাবিতে এই বাছাইপর্বের আগ পর্যন্ত মূলত ধার করা কিংবা উপহার হিসেবে পাওয়া ব্যাট-প্যাড ও ক্রিকেট সামগ্রী দিয়ে চলছিল তাদের ক্রিকেট দল। আবু ধাবিতে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে খেলতে আসার মতো যথেষ্ট অর্থও তাদের ছিল না। আইসিসি থেকে বছরে তারা ৫ লাখ মার্কিন ডলারের মতো পায়, যা দিয়ে তাদের ক্রিকেট বোর্ড পরিচালনা করাসহ গোটা বছরের সব কার্যক্রম চালাতে হয়।বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের আগে অর্থ জোগাড়ের জন্য ভানুয়াতু ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের অপারেশন্স ম্যানেজার জামাল ভিরা ও মার্কেটিং ম্যানেজার হারমিয়োন ভিরা তাই গণ-অর্থায়ন থেকে আয় করার পরিকল্পনা করেন। সেই অনুযায়ী তারা প্রচারণা চালাতে থাকেন এবং শেষ পর্যন্ত জনগনের দান থেকে সাড়ে সাত লাখ ভাতু (৬ হাজার ৩০০ মার্কিন ডলারের একটু বেশি) তুলতে পারেন তারা। তাদের জন্য এটিই ছিল বিশাল কিছু। সেই অর্থ থেকেই বাছাইপর্বের জন্য ক্রিকেট সামগ্রী কেনা হয় এবং ক্রিকেটারদের বোনাস-ভাতাসহ অন্যান্য কিছুর জোগান দেওয়া হচ্ছে।সেই দলটিই বাছাইপর্বের শুরুতে উপহার দিল আরেকটি চমকপ্রদ পারফরম্যান্স।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য