Tuesday, April 16, 2024
বাড়িখেলাঅশ্বিন-কুলদীপ ধামাকায় ৪ ঘণ্টাতেই শেষ ইংল্যান্ড !

অশ্বিন-কুলদীপ ধামাকায় ৪ ঘণ্টাতেই শেষ ইংল্যান্ড !

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ২৫ ফেব্রুয়ারি : সকাল ১১:৪০ মিনিটের দিকে অলআউট হয়ে গিয়েছিল ভারত। ধ্রুব জুরেল ৯০ রানের লড়াকু ইনিংস খেললেও অনেকেই মনে করেছিলেন অ্যাডভান্টেজ ইংল্যান্ড । কারণ রাঁচির ঘূর্ণি পিচে ৪৬ রানের লিড মন্দ নয়। এরমধ্যে ইংরেজরা ‘বাজবল’ মেজাজেই শুরু করেছিল। কিন্তু মাত্র চার ঘণ্টার মধ্যেই সব হিসেব বদলে দিলেন কুলদীপ যাদব এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিন । এবং দুজনকে যোগ্য সঙ্গত দিলেন রবীন্দ্র জাদেজা । টিম ইন্ডিয়ার তিন স্পিনারের দাপট এবং রোহিত শর্মার দারুণ অধিনায়কত্বের সৌজন্যে মাত্র ১৪৫ রানে গুটিয়ে গেল ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংস। ফলে চতুর্থ টেস্ট জেতার সঙ্গে সিরিজ পকেটে পুরে ফেলার জন্য ভারতের দরকার ১৫২ রান।


স্পিন ত্রয়ীর দাপটে শুধু আক্রমণ করতে পেরেছিলেন জ্যাক ক্রলি। এবং জনি বেয়ারস্টো। ওপেনার ক্রলি ৬০ রান করেন। এদিকে বেয়ারস্টোর ব্যাট থেকে এল ৩০ রান। এছাড়া আর কোনও ইংরেজ ব্যাটার প্রভাব ফেলতে পারেননি। ফলে বিপক্ষের ব্যাটারদের যাওয়া-আসা লেগেই ছিল। যা দেখার জন্য বেন স্টোকস মোটেও প্রস্তুত ছিলেন না। কুলদীপ ২২ রানে ৪ উইকেট নিলেন। অশ্বিনের ঝুলিতে এল ৫১ রানে ৫ উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে মারমুখী মেজাজেই শুরু করেন রোহিত ও যশস্বী জয়সওয়াল। দুই ওপেনারের আগ্রাসী মেজাজে মাত্র ৮ ওভারে ৪০ রান তুলে নেয় ভারত। রোহিত ২৭ বলে ২৪ এবং যশস্বী ২১ বলে ১৬ রানে ক্রিজে রয়েছেন।
এর মধ্যে সাহেবদের বিরুদ্ধে দাপট দেখালেন অশ্বিন। দ্বিতীয় ইনিংসে অশ্বিনের প্রথম শিকার ছিল বেন ডাকেট। ইংল্যান্ডের ওপেনারকে আউট করে এবার ঘরের মাঠে ভারতীয়দের মধ্যে সবচেয়ে বেশি উইকেট নেওয়ার নজির গড়লেন। তাও আবার সেই রেকর্ড গড়লেন অনিল কুম্বলের সামনেই। এতদিন তালিকার শীর্ষে ছিলেন কুম্বলে। দেশের মাঠে ৬৩টি টেস্টে কুম্বলে নিয়েছিলেন ৩৫০টি উইকেট। এবার তাঁকে টপকে গেলেন অশ্বিন। এদিকে অশ্বিন হলেন মুথাইয়া মুরলীধরন, জেমস অ্যান্ডারসন, স্টুয়ার্ট ব্রড ও কুম্বলের পর পঞ্চম বোলার যিনি ঘরের মাঠে ৩৫০টির বেশি উইকেট নেওয়ার নজির গড়লেন। একইসঙ্গে এই ইনিংসে তাঁর আরও দুই শিকার জো রুট এবং অলি পোপ। সেখান থেকে ইংল্যান্ডের ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব হয়নি। বাকি কাজটা সারেন কুলদীপ।

একটা সময় মনে হচ্ছিল ইংল্যান্ডের লিড প্রায় ১৫০ রানের কাছাকাছি হবে। তবে প্রথম সেশনেই তফাৎ গড়ে দেন ধ্রুব জুরেল। রাঁচি টেস্টের প্রথম ইনিংসে তাঁর ব্যাট থেকে এসেছিল লড়াকু ৯০ রান। লোয়ার অর্ডারে ব্যাট করতে নেমে কুলদীপ যাদব করেন ২৮ রান। ফলে ৩০৭ রানে শেষ হয়ে যায় টিম ইন্ডিয়ার প্রথম ইনিংস। এদিকে জো রুটের অপরাজিত ১২২ রানের সৌজন্যে ইংল্যান্ড তুলেছিল ৩৫৩ রান। ফলে বেন স্টোকসের দল ৪৬ রানে এগিয়ে থাকে। অফ স্পিনার শোয়েব বশির নিয়েছিলেন ১১৯ রানে ৫ উইকেট।
২১৯ রানে ৭ উইকেট নিয়ে তৃতীয় দিন মাঠে নামেন ধ্রুব ও কুলদীপ। প্রবল চাপের মুখেও বুক চিতিয়ে ব্যাট করেন ২১ বছরের তরুণ। একইসঙ্গে কৃতিত্ব দিতে হবে কুলদীপকেও। ১৩১ বল খেলে ২৮ রান করে আউট হন কুলদীপ।

কুলদীপ আউট হওয়ার পর ধ্রুবকে সঙ্গ দেন আকাশ দীপ। মাত্র ৯ রান করলেও আকাশ খেলে দেন ২৯টি বল। ফলে নবম উইকেটে উঠে যায় মূল্যবান ৪০ রান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ধসে পড়ে ইংল্যান্ডের ব্যাটিং অর্ডার। ভারতের তিন স্পিনারের দাপটে চোখের নিমেষে গুটিয়ে গেল ইংরেজদের দ্বিতীয় ইনিংস। তাই বিরাট কোনও অঘটন না ঘটলে ভারতের চতুর্থ টেস্ট জেতার সঙ্গে সিরিজে নাম লিখিয়ে ফেলা শুধু সময়ের অপেক্ষা।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য