Wednesday, August 10, 2022
বাড়িরাজ্যঅতি বর্ষণে পার্শ্ববর্তী রাজ্যের বন্যার প্রভাব রাজ্যে, বহুগ্রাম জলের নিচে

অতি বর্ষণে পার্শ্ববর্তী রাজ্যের বন্যার প্রভাব রাজ্যে, বহুগ্রাম জলের নিচে

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৯ জুন : আসাম এবং মিজোরামের প্রাকৃতিক দুর্যোগের প্রভাব এবার পড়তে শুরু করেছে ত্রিপুরা রাজ্যে। রাজ্যের সীমান্তবর্তী গ্রামগুলি জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। বহুগ্রাম জলের নিচে। গৃহহীন বহু পরিবার। এমনটাই চিত্র উঠে এসেছে উত্তর জেলার কুর্তি ও তারকপুর গ্রামে। সবচেয়ে প্রভাবিত কুর্তি গ্রাম পঞ্চায়েতের মানিকনগর গ্রাম। গ্রামের ৫৭ টি পরিবারকে উদ্ধারের কাজে লাগানো হয়েছে এন ডি আর এফ টিম। বন্যা পরিস্থিতির কারণে আশপাশ এলাকায়  বর্তমানে ৯২ টি পরিবার জলবন্দি।

উদ্ধার অভিযান যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চলছে। প্রায় ৪৫ টি পরিবারকে নিয়ে আসা হয়েছে শরণার্থী শিবিরে । এক আতঙ্কময় পরিবেশ গোটা এলাকা জুড়ে। জানা গেছে শুক্রবার থেকে রবিবার পর্যন্ত  টানা তিনদিনের রেকর্ড বৃষ্টিতে উত্তর জেলার ত্রিপুরা অসম সীমান্তের কুর্তি গ্রাম পঞ্চায়েতের ১ নং ওয়ার্ডের মানিকনগর এলাকার বিস্তীর্ণ অঞ্চল জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। মিজোরামের জল আসামের বুক চিরে লঙ্গাই ও সিংলা নদীর জল কুর্তি এলাকায় প্রবেশ করছে। মোট ১০ টি ছড়া এবং ৩টি নদীর জল মানিকনগর এলাকা জলমগ্ন করে ফেলেছে। বিশেষ করে কুর্তি নদী, থাল নদী ও কয়লা নদীর জল ঢুকে প্লাবিত করেছে বিস্তীর্ণ অঞ্চল বলে জানাই গ্রামবাসী। বর্তমানে মিজোরাম ও অসমের জল তীব্র বেগে ধেয়ে আসছে। আশঙ্কা রয়েছে বাংলাদেশের জুড়ি নদীর জল প্রবেশ করার। তবে ক্রমশ জলস্তর বৃদ্ধি হচ্ছে। এদিকে শনিবার দিনে মানিকনগর এলাকা পরিদর্শন করেন কদমতলা ব্লকের বিডিও প্রনয় দাস,পঞ্চায়েত সমিতির চেয়ারম্যান সুব্রত দেব,কুর্তি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সুব্রত শব্দকর সহ অন্যান্য প্রতিনিধিরা।তাঁরা গোটা দিনভর ত্রান সামগ্রী বিতরণ করেন ও খোঁজখবর নিয়ে উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের অবগত করেন।

খোঁজ খবর নেন বন্যার কবলে পড়া ও রিলিফ ক্যাম্পে আশ্রয় নেওয়া মানুষের সাথে। বর্তমানেও বন্যা কবলিত এলাকার মানুষ তাদের আসবাপত্র সহ গবাদিপশু নিয়ে শরণার্থী শিবিরের আশ্রয় নিয়েছে। রবিবার সকাল থেকেই উদ্ধার কাজ চলছে। অ্যাসিস্ট্যান্ট বিডিও স্বপন দাস জানান মানিক নগরের ৫৭ পরিবারের মধ্যে ২০ টি পরিবার রিলিফ ক্যাম্পে এসে পড়েছে৷ বাকিদেরও উদ্ধারের কাজ চলছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য