Saturday, July 2, 2022
বাড়িরাজ্যঝড়ো পাচারে শাসক বিরোধী প্রার্থীরা

ঝড়ো পাচারে শাসক বিরোধী প্রার্থীরা

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১২ জুন : দীর্ঘ ২৫ বছরের বাম অপ্রশাসনের পর শিক্ষা, স্বাস্থ্য, পানীয় জল, রাস্তাঘাট সহ সবক্ষেত্রে গত চার বছরে রাজ্যে শুধু উন্নয়নের জোয়ার বইছে। ২৫ বছরের কিছুই করেনি বামফ্রন্ট। এমনটাই দাবি তুলে ইতিমধ্যে উপনির্বাচনে ঝড়ো প্রচারে নেমেছেন ৬ আগরতলা এবং ৮ বড়দোয়ালি বিধানসভা কেন্দ্রের শাসক দলের দুই প্রার্থী যথাক্রমে ডাঃ অশোক সিনহা এবং ডা. মানিক সাহা।

 আর বিরোধীদের পক্ষ থেকে প্রচারের নমুনা কায়দা অনেকটাই বিপরীত। বিরোধীদের বক্তব্য গত চার বছরে রাজ্যে গণতন্ত্র ভূলুন্ঠিত এবং আইনের শাসন নেই, উন্নয়ন স্তব্ধ হয়ে পড়েছে। সুতরাং গল্প নিয়ে মানুষের দুয়ারে দুয়ারে প্রতিদিন সকালে পৌঁছে যাচ্ছেন বিজেপি, কংগ্রেস সহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের মনোনীত প্রার্থীরা। উল্লেখ্য, রবিবার ছুটির দিনে ভোট প্রচারে বের হন বিজেপি মনোনীত প্রার্থী ডা. মানিক সাহা। তিনি জয় নিয়ে ১০০ শতাংশের বেশি নিশ্চিত। তিনি বলেছেন, বাড়ি বাড়ি যাওয়ার পর মানুষ নাকি বলেছেন ধরে নিন আপনি ভোট পেয়ে গেছেন। আর মানুষের উপর এতটাই আস্থাশীল মানিকবাবু, যা শুনে হয়তো হাসি লুকোতে পারছেন না। তিনি আরো বলেন ভোট প্রচার মানে শুধু মানুষের কাছে যাওয়া। কিন্তু অভিজ্ঞ মহল বলছে, সবচেয়ে বড় বিষয় হলো জয়ের পর বিধায়ককে কতটা কাছে পাওয়া যাবে। এবং তিনি মুখ্যমন্ত্রী বটে। যার সুবাদে হয়তো অনেকে ভালোবেসে ভোট দিতে পারেন মানিকবাবুকে। সবটাই হলো জনসংযোগ। অপরদিকে মাস্টার পাড়া এলাকায় বাড়ি বাড়ি প্রচার বের হয়েছেন কংগ্রেস প্রার্থী আশীষ কুমার সাহা। তিনি বলেন, গত চার বছরে সরকারের ব্যর্থতা নজিরবিহীন। উন্নয়ন স্তব্ধ হয়ে পড়েছে। তাই মানুষ এই বিজেপি সরকারের পতন করতে প্রস্তুতি নিয়েছ। বাড়ি বাড়ি প্রচারে গিয়ে বুঝতে পারছেন বলে জানান আশীষ কুমার সাহা।

এদিকে ৬ আগরতলা কেন্দ্রে ভোট প্রচারে বের হয়ে মানুষের সেবা করার সুযোগ চাইলেন বিজেপি প্রার্থী ডাঃ অশোক সিনহা। সঙ্গে রয়েছেন মন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী। প্রার্থী জানান, জয় নিয়ে তিনি নিশ্চিত। কিন্তু একই কেন্দ্র থেকে কংগ্রেস প্রার্থী সুদীপ রায় বর্মনের হয়ে বের হয়েছেন সুদীপ অনুগামীরা। বাড়ি বাড়ি গিয়ে মানুষের কাছে সুদীপ রায় বর্মনের জন্য ভোট চাইছেন অনুগামীরা। তারা জানান, ৩৬৫ দিন সুদীপবাবুর হয়ে এলাকায় রোদ বৃষ্টি গরমে মানুষের জন্য নাকি সার্ভিস দিয়ে থাকেন তারা। শাসকদলের মাসেল পাওয়ার এবং অর্থের পাওয়ার সুদীপ রায় বর্মনকে পরাজয় করতে পারবে না বলে আশাবাদী অনুগামীরা।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য