Sunday, June 23, 2024
বাড়িরাজ্যরাস্তার ইট চুরি করাকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার কান্ড

রাস্তার ইট চুরি করাকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার কান্ড

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৩ জুন : সরকারি রাস্তার ইট চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোমবার ধুন্ধুমার কান্ড ঘটে যায় বক্সনগর ব্লকের কলসিমুড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের ৬ নং ওয়ার্ডের ব্লক টিলা এলাকায়। জানা যায় ব্লক টিলা এলাকার রাস্তার পাশে সম্প্রতি ড্রেইন নির্মাণ করা হয়।

 ফলে ইট সলিং রাস্তাটি থেকে ইট তুলে রাস্তার পাশে রাখা হয়। অভিযোগ এলাকার বাসিন্দা গোপাল দাস সেই ইট চুরি করে নিয়ে নিজের ঘর নির্মাণের কাজে লাগাচ্ছেন। প্রায় প্রতিদিন তিনি রাস্তা থেকে ইট চুরি করে নিয়ে যাচ্ছেন। এলাকাবাসিরা এই নিয়ে গোপাল দাসকে সতর্ক করলেও গোপাল দাস কারো কথায় কর্ণপাত করেন নি। অবশেষে ইট চুরির ঘটনার প্রতিবাদ জানান এলাকার বাসিন্দা হারাধন সরকার। সরকারি রাস্তা থেকে ইট চুরির খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় সংবাদ প্রতিনিধিরা।

এলাকার বাসিন্দা হারাধন সরকার সাংবাদিকদের সামনে স্পষ্ট জানান এলাকার বাসিন্দা গোপাল দাস রাস্তার ইট চুরি করে নিয়ে গেছে। সাংবাদিকরা এই বিষয়ে গোপাল দাসকে প্রশ্ন করলে গোপাল দাস এক প্রকার স্বীকার করে নেন তিনি রাস্তার ইট চুরি করেছেন। তিনি জানান গ্রামের আরও অনেকে রাস্তার ইট চুরি করেছে। তিনি নিজের বাড়ির সামনের রাস্তার সকল ইট তুলে নিয়ে গেছেন। এইদিকে গ্রামের বাসিন্দা হারাধন সরকার সংবাদ মাধ্যমের সামনে মুখ খোলায় গোপাল দাস ও গোপাল দাসের ছেলে সুমন দাস ক্ষেপে লাল হয়ে যান। গোপাল দাস ও ওনার ছেলে সুমন দাস চড়াও হয় হারাধন সরকারের উপর। হারাধন সরকারকে বেধড়ক ভাবে মারধর করে অভিযুক্তরা। হারাধন সরকারের শার্ট ছিঁড়ে দেওয়া হয়। আক্রান্ত হারাধন সরকার সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানান রাস্তা থেকে ইট চুরির প্রতিবাদ করায় গোপাল দাস ও গোপাল দাসের ছেলে সুমন দাস ওনাকে মারধর করেছে।আক্রান্ত হারাধন সরকার অভিযুক্ত গোপাল দাস ও গোপাল দাসের ছেলে সুমন দাসের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। থানায় মামলা দায়ের করার পর পুলিশ অভিযুক্তদের সন্ধানে এলাকায় যায়। তার আগেই এলাকা ছেরে পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চাঞ্চল্য বিরাজ করছে। দাবি উঠেছে অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তি প্রদানের। এখন দেখার পুলিশ কি ব্যবস্থা গ্রহণ করে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য