Saturday, June 15, 2024
বাড়িরাজ্যমন্ত্রী রতন লাল নাথের মন্তব্যের প্রতিবাদে তীব্র নিন্দা বর্ষণ করল আগরতলা প্রেস...

মন্ত্রী রতন লাল নাথের মন্তব্যের প্রতিবাদে তীব্র নিন্দা বর্ষণ করল আগরতলা প্রেস ক্লাব

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৯ মে : সাংবাদিকদের সাদর আমন্ত্রণ জানিয়ে বিশ্রী ভাষায় গালিগালাজ করার প্রতিবাদে রবিবার আগরতলা প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা জানানো হয়েছে। কারণ সংবাদ মাধ্যমকে বিশ্রী ভাষায় গালিগালাজ করার অধিকার দেশের সংবিধান দেয় নি কোন মন্ত্রী বাহাদুরকে।

বিজেপি দলের নেতা তথা রাজ্যের মন্ত্রী রতন লাল নাথের বিশ্রী ভাষার গালিগালাজের প্রতিবাদ জানিয়ে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে তিনি কতটা দাম্ভিক এবং কতটা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। কিন্তু তথাকথিত যোগ্য মন্ত্রী বাবু কিছুটা মুখে লাগাম রাখুন, সেটাই বলতে চায় আজ সংবাদ মাধ্যম। কারণ সংবাদমাধ্যম জনগণের কাছে দায়বদ্ধ। আপনার মত এবং আপনাদের মত ব্যক্তির কাছে দায়বদ্ধ নয়। এবং আপনাদের অঙ্গুলী হেলনে চলবে না রাজ্যের সংবাদ মাধ্যম। ২০১৮ সালের আগে বামফ্রন্ট আমলে এই মন্ত্রী রতন বাবুর দেখা মিলত রাজ্যের সংবাদমাধ্যমের অফিস গুলিতে।

 তিনি সেখানে গিয়ে সংবাদ মাধ্যমের কর্মীদের কাছে অনুরোধ করতেন উনার খবর প্রকাশ করার জন্য। আজ মন্ত্রী হয়ে তিনি মুখে লাগাম রাখতেই ভুলে যাচ্ছেন। তাই এবার আগরতলা প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে রবিবার একটি বিবৃতি প্রেস করে বলা হয়েছে, শনিবার শাসক বি জে পি – র আমন্ত্রণে তাদের রাজনৈতিক কর্মসূচি র সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে অপ্রত্যাশিত ভাবে অত্যন্ত অসম্মান জনক পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছেন সাংবাদিক চিত্র সাংবাদিকরা। রাজ্যমন্ত্রী সভার সদস্য বিদ্যুৎমন্ত্রী রতন লাল নাথ কুৎসিত বিকৃত ভঙ্গিতে সাংবাদিকদের হেয় করার চেষ্টা করেন। তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে বলেন, সাংবাদিকদের ‘খাইয়া দাইয়া কাম নাই “-। একজন মন্ত্রীর এই ধরনের আচরণের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে আগরতলা প্রেসক্লাব। একই সঙ্গে আগরতলা প্রেস ক্লাব উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছে সাংবাদিকদের সঙ্গে অসহিষ্ণুতার পরিচয় দিচ্ছে একাংশ রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব এবং আমলা। আগরতলা প্রেস ক্লাব এই ধরনের আচরণ থেকে বিরত থাকতে সকলের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছে। সাংবাদিকদের অসম্মান ও অমর্যাদা করার ঘটনা কোন ভাবেই বরখাস্ত করবে না আগরতলা প্রেস ক্লাব। শনিবার দুপুরে আগরতলা প্রেস ক্লাবের সহ-সম্পাদক অভিষেক দে এক বিবৃতি প্রকাশ করে এ বিষয়ে অবগত করেছেন। কারণ, জনগণের জন্য সাংবিধানিক আসনে কাজ করতে বসে সাংবাদিকদের গালিগালাজ করবে এবং মুখে যা আসবে তাই বলবে সেটা যে কতটা অন্যায় সেটা আঙ্গুল দিয়ে মন্ত্রী রতন লাল নাথকে দেখিয়ে দিতে ভুল করবে না রাজ্যের সংবাদ মাধ্যম। কারণ ওনাকে জনগণ নির্বাচিত করেছে জনগণের স্বার্থে কাজ করার জন্য।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য