Friday, May 31, 2024
বাড়িরাজ্যবিধায়ক ক্রয় করে বিভিন্ন রাজ্যে ক্ষমতা দখল করেছে বিজেপি : মানিক

বিধায়ক ক্রয় করে বিভিন্ন রাজ্যে ক্ষমতা দখল করেছে বিজেপি : মানিক

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১১ এপ্রিল : আসন্ন পশ্চিম ত্রিপুরা লোকসভা আসনের নির্বাচনকে সামনে রেখে ইন্ডিয়া জোটের প্রার্থী আশিস কুমার সাহার সমর্থনে  সিপিআইএম বিলোনিয়া মহকুমার কমিটির কার্যালয়ের সামনে থেকে বৃহস্পতিবার দুপুরে এক মিছিল সংগঠিত করা হয়। মিছিলটি বিলোনিয়া শহরের বিভিন্ন পথ পরিক্রমা করে ১ নং টিলা বাজারে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে হয় নির্বাচনী সভা। সভায় প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার, কংগ্রেস বিধায়ক সুদিপ রায় বর্মণ, ইন্ডিয়া জোটের প্রার্থী আশিস কুমার সাহা। সভায় ভাষণ দিতে গিয়ে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার বলেন, নির্বাচন কমিশন জগন্নাথ এবং কাঠ পুতুল। পুলিশকে তারা কাঠ পুতুল বানিয়ে রেখেছে।

কারণ শুধুমাত্র বিজেপিকেই তারা জনসভা করতে। বিরোধীদের করতে গেলেই বাধা সৃষ্টি করছে তারা। কিন্তু সকাল দুপুর সন্ধ্যা তিনটি রাজনৈতিক দল একই স্থানে কর্মসূচি করতে পারে। কিন্তু করতে দিচ্ছে না। এর তীব্র সমালোচনা করলেন তিনি। আরো বলেন নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহ -রা ১৪৬ জন সাংসদকে বহিষ্কার করে একের পর এক কালো আইন দেশের জন্য পাশ করলেন। এটা কেমন গণতন্ত্র বলে প্রশ্ন তুললেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার। তিনি আরো বলেন, গত ১০ বছর অর্থ দিয়ে সাংসদদের ক্রয় করেছে বিজেপি। বিধায়ক ক্রয় করে বিভিন্ন রাজ্যে ক্ষমতা দখল করেছে। দেশের গণতন্ত্রকে ধংস করার চেষ্টা করছে দেশের শাসক দল।

 মানিক সরকার এইদিন ব্যাখ্যা দিয়ে দাবি করেন এনডিএ জোটের মধ্যে গণতন্ত্র নেই। অপরদিকে কংগ্রেস বিধায়ক সুদিপ রায় বর্মণ বলেন, আসন্ন নির্বাচন ভারত বর্ষকে বাঁচানোর জন্য লড়াই। এ লড়াই ফ্যাসিবাদ বনাম ভারতীয় লড়াই। তাই আসন্ন নির্বাচনে দেশপ্রেমীরা ফ্যাসিবাদী বিজেপির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে বলে জানান তিনি। আরো বলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর বিগত ৪০ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে বর্তমানে বেকারত্বের রেকর্ড তৈরি হয়েছে। প্রতিটি মানুষ ঋনের জালে জড়িয়ে পড়ছে। গত ১০ বছরে দেশের ঋনের বোঝা দাঁড়িয়েছে ২০৫ কোটি লক্ষ টাকা। প্রতি ঘণ্টায় দেশে একজন করে কৃষকের মৃত্যু হচ্ছে। কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ফসলের ন্যায্য মুল্য পাচ্ছে না। কৃষকদের আন্দোলন করতে গিয়ে মার খেতে হচ্ছে। এইদিনের পথ সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী বাদল চৌধুরী, বিধায়ক দীপঙ্কর সেন, বিধায়ক অশোক মিত্র সহ অন্যান্যরা। এইদিনের মিছিল ও পথ সভায় সিপিআইএম ও কংগ্রেস কর্মীদের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যনীয়।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য