Tuesday, April 16, 2024
বাড়িরাজ্যবিরোধীরা এক লক্ষের বেশি ভোট পাবে না : বিজেপি

বিরোধীরা এক লক্ষের বেশি ভোট পাবে না : বিজেপি

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৫ মার্চ : সম্প্রতি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি আশীষ কুমার সাহা সাংবাদিক সম্মেলন করে ঘোষনা করেছেন পশ্চিম আসনে তিনি নিজে লড়াই করবেন। আর পূর্ব ত্রিপুরা আসন থেকে বামফ্রন্টকে লড়াই করার জন্য সুযোগ দেবে কংগ্রেস। তাই পূর্ব ত্রিপুরা আসনে কংগ্রেস প্রার্থী দেবে না। এক প্রকার ভাবে ইন্ডিয়া জোট নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বদের ভরসা না করে নিজেই পরিষ্কার করে দিয়েছিলেন রাজ্যে ইন্ডিয়া জোটের বিষয়।

এরই মধ্যে কংগ্রেসের সমালোচনা করতে গিয়ে শুক্রবার প্রদেশ বিজেপি কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে প্রদেশ বিজেপি মুখপাত্র নবেন্দু ভট্টাচার্য দাবি করলেন, ত্রিপুরায় ইন্ডিয়া জোট হয়েছে কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। এ বিষয়ে ষ্পষ্ট নয় কেউ। তিনি আরো বলেন, যেকোন সময় ঘোষণা করা হতে পারে লোকসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল গুলি তাদের নিজেদের মতো করে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে। সাধারন মানুস অনুধাবন করতে পারছে কোন রাজনৈতিক দলের অবস্থান কোন জায়গায় রয়েছে। রাজ্য ও দেসের মানুষ দেখছে কারা দেশের ভক্ত, আর কারা দেশের বিরোধী, কারা দেশ বিরোধী শক্তিকে সহযোগিতা করছে। নির্বাচনের ফলাফলও সেই অনুসারে হবে।

বিজেপি দল শুধুমাত্র নির্বাচনের মধ্যে নিজেকে সিমাবদ্ধ রাখে না। সমাজের সার্বিক স্তরের উন্নয়ন ও মানব জাতির সুস্থ অগ্রগতির জন্য কাজ করে বিজেপি। নির্বাচনকে সামনে রেখে বিভিন্ন বিষয় উত্থাপন করা হচ্ছে। বিজেপি সরকার প্রতিষ্ঠা হলে কি কি কাজ করা হবে, তা বিজেপি একক ভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহন করে না। জনগণের মতামত গ্রহণ করা হয়। গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠা করতে চায় বিজেপি। সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি সুকৌশলে নাম না করে প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্বদের সমালোচনা করতে গিয়ে বলেন যারা কংগ্রেসকে ঐক্যবদ্ধ করার গেরেন্টি দিতে পারছে না। তারাই তাদের দলিয় অফিসে বসে কিছু গেরেন্টির কথা বলছে। কিন্তু বিজেপি যে সকল প্রতিশ্রুতি গুলি দিয়েছিল, সেই গুলি পূরণ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর গেরেন্টি হলো প্রতিশ্রুতি পূরণের গেরেন্টি। সিএএ নিয়ে কংগ্রেসের সর্বভারতীয় স্তর থেকে স্পষ্টীকরণের দাবি জানান প্রদেশ বিজেপির মুখপাত্র নবেন্দু ভট্টাচার্য। তিনি বলেন সিএএ নিয়ে কংগ্রেসের সর্ব ভারতীয় স্তর থেকে স্পষ্টীকরণ দেওয়ার হিম্মত নেই। কিন্তু যারা এই বিষয়ে বক্তব্য রাখছেন, তাদের আগে জেনে রাখা দরকার, অনুপ্রবেশকারী ও যারা নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য সিমান্ত পেরিয়ে আসছেন তাদের মধ্যে পার্থক্য কি। যে সকল বিষয় নিয়ে তারা চর্চা করছেন, মানুষকে আতঙ্কিত করার চেষ্টা করছেন। তাদের আগে ভালো করে দেখা প্রয়োজন মূল আইনে কি রয়েছে। তারা মূল আইনের বিষয়ে সবকিছু জেনেও মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন। নবেন্দু ভট্টাচার্য আরও বলেন বিজেপি দলের মধ্যে কাকে কি পদে রাখা হবে, তা বিরোধী দল ঠিক করবে না। বিজেপি দলে এমন অনেকে রয়েছেন যারা দলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। কিন্তু সামনে আসেন না তারা। জোট আমলের কথা উল্লেখ করে নাম না করে কংগ্রেসকে কটাক্ষ করেন প্রদেশ বিজেপির মুখপাত্র নবেন্দু ভট্টাচার্য। তিনি এইদিন আরও বলেন বিরোধী দলের সাথে এখন আর মানুষ নেই। রাজ্যে ১ লক্ষের অধিক ভোট বিরোধীরা পাবেনা বলে দাবি করেন তিনি। এইদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে নবেন্দু ভট্টাচার্যর সাথে উপস্থিত ছিলেন প্রদেশ বিজেপির মিডিয়া ইনচার্জ সুনিত সরকার।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য