Tuesday, April 16, 2024
বাড়িরাজ্যধর্মনগরের শ্মশানে ইলেকট্রিক চুল্লি এবং রানা দীঘির পাড়ে মার্কেট স্টলের শিলান্যাস করলেন...

ধর্মনগরের শ্মশানে ইলেকট্রিক চুল্লি এবং রানা দীঘির পাড়ে মার্কেট স্টলের শিলান্যাস করলেন অধ্যক্ষ বিশ্ববন্ধু সেন

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৯ মার্চ : শনিবার শিবরাত্রির শুভক্ষণে ধর্মনগর মহাশ্মশানে ইলেকট্রিক চুল্লি এবং রানা দিঘির পারে মার্কেট স্টলের শিলান্যাস করলেন ধর্মনগরের বিধায়ক তথা রাজ্য বিধানসভার অধ্যক্ষ বিশ্ববন্ধু সেন। উপস্থিত ছিলেন পুরো পরিষদের চেয়ারম্যান প্রদ্যুৎ দে সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান মনজু রানী নাথ, বিশিষ্ট সমাজসেবী শ্যামল নাথ এবং পুরো পরিষদের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার শ্যামজয় জমাতিয়া।

 উল্লেখ্য মার্কেট স্টলে বরাদ্দ রয়েছে তিন কোটি দুই লক্ষ ৫৭৯৪৭ টাকা এবং ইলেকট্রিক চুল্লির জন্য ব্যয় হবে এক কোটি ৯ লক্ষ ৯৫৫১ টাকা। উদ্বোধন করে অধ্যক্ষ বলেন রাজ্যে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। আগে একটা সময় ছিল শুধু নেই নেই নিপীড়িত শোষিত বঞ্চিত পরস্ত্রী কাতর এই করে করে 25 টা বছর আমাদেরকে পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কোন কিছু না করে শুধু আন্দোলন আর আন্দোলন। বাস্তবে আন্দোলনের কোন ফলপ্রসূ প্রভাব পরিলক্ষিত হতো না। এখন আন্দোলন না করি একের পর এক উন্নয়ন হয়ে চলেছে। দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে দেশের প্রতিটি স্তরের মানুষের উন্নয়ন সাধিত হচ্ছে।

এখন আর আন্দোলন করে ন্যায্য পাওনা গুলি পেতে হয় না এমনিতেই সরকার মুখিয়ে আছে মানুষের ন্যায্য পাওনা যেগুলি উন্নয়নমুখী কেমন করে সেগুলি দেওয়া সম্ভব। পুরো পরিষদের চেয়ারম্যান বলেন প্রতিটি মার্কেট স্টলের ঘর হবে ১১ ফুট এবং সাত ফুট মাপের অর্থাৎ প্রতিটি ঘরের ক্ষেত্রফল দাঁড়াচ্ছে ৭৭ বর্গফুট করে। যেকোনো ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে একটা সঠিক প্রমাণ মাপ বলে বর্ণনা করা হয়। আরো কি কি উন্নয়নের পরিকল্পনা রয়েছে তা উপস্থিত অতিথিদের বক্তব্যে ফুটে ওঠে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য