Tuesday, April 16, 2024
বাড়িরাজ্যস্বামীর অত্যাচার ও পুলিশের দুর্বলতায় আত্মহত্যা গৃহবধূর

স্বামীর অত্যাচার ও পুলিশের দুর্বলতায় আত্মহত্যা গৃহবধূর

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৯ ফেব্রুয়ারি : স্বামী অত্যাচারের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেও বিচার মিলল না গৃহবধূর। শেষ পর্যন্ত নিজেকে শেষ করে দিল তরুণী গৃহবধূ পলি রাণী বণিক। ঘটনা বন নারায়ণ এলাকায়। মৃতার বয়স ২২ বছর। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গত ২৯ জানুয়ারি স্বামীর মারধরে গুরুতর আহত হয়েছিলেন পলি রানী বণিক।

তারপর বাপের বাড়ির লোকজনেরা তাকে চিকিৎসা করায়। কিন্তু স্বামীর মারধরে মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে অসুস্থতায় ভুগছিল গৃহবধূ। চিকিৎসায় সাড়া উঠছিল না। মাথা ব্যাথায় ছটফট করত প্রায়ই। গৃহবধূর পিতা আরো জানান, গৃহবধূর বাপের বাড়ি যাত্রাপুর থানার উত্তর মহেশপুর স্কুলটিলা এলাকায়। গৃহবধু একটি আড়াই বছরের সন্তান রয়েছে। স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করলে পুলিশ দুর্বল ধারায় মামলা নেয়। সুষ্ঠু তদন্ত হয় নি। এদিকে গৃহবধূকে মামলা প্রত্যাহার করার জন্য তার স্বামী হুমকি দিতে থাকে। শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বৃহস্পতিবার আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।

ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামী অঞ্জন দাস পলাতক। গৃহবধূর বাপের বাড়ির লোকজনদের অভিমত যদি পুলিশ অভিযুক্ত স্বামীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করত তাহলে ২২ বছর বয়সী তাদের মেয়ে বিচার পেত। কিন্তু পুলিশের দুর্বলতা এবং উদাসীনতার কারণে মাত্র ২২ বছর বয়সে নিজেকে শেষ করে দিল তরুণী। ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ এসে নিয়ম রক্ষা করলেন এই দিন। মৃতদেহ পাঠালো ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে। কান্নায় ভেঙে পড়ে গৃহবধূর বাপের বাড়ির লোকজন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য