Thursday, February 29, 2024
বাড়িরাজ্যচুরির ঘটনায় গ্রেপ্তার গৃহ পরিচারিকা

চুরির ঘটনায় গ্রেপ্তার গৃহ পরিচারিকা

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৮ জানুয়ারি : চুরির ঘটনায় সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে আটক গৃহ পরিচারিকা। ঘটনা রাজধানীর ভাটি অভয়নগর ডঃ ইন্দ্রনীল নন্দীর বাড়িতে। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল পুলিশ। বাড়ির মালিক ইন্দ্রনিল নন্দী জানান, ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ওনার বাড়িতে গৃহপরিচারিকা হিসাবে কাজে রাখা হয় পশ্চিম ভুবনবন এলাকার বাসিন্দা যমুনা ভট্টাচার্যকে।

 অভিযোগ যমুনা ভট্টাচার্যকে গৃহপরিচারিকা হিসাবে কাজে রাখার পর থেকে ধারাবাহিক ভাবে ওনাদের বাড়িতে চুরি হতে থাকে। টাকা, পয়সা, স্বর্ণালঙ্কার ইত্যাদি একের পর এক চুরি হচ্ছিল। যমুনা ভট্টাচার্য তাদের বিশ্বস্ত ছিল। তাই যমুনাকে কাউই সন্দেহ করে নি। এরই মধ্যে ইন্দ্রনিল বাবুর বিয়ের ঠিক হয়। আশীর্বাদে ইন্দ্রনিলকে শ্বশুর বাড়ি থেকে স্বর্ণের চেইন দেওয়া হয়। ইন্দ্রনিল নন্দী সেই স্বর্ণের চেইন মায়ের কাছে রাখতে দেয়

 কিন্তু বিয়ের দিন দেখা যায় সেই স্বর্ণের চেইনও চুরি হয়ে গেছে। যথারীতি ইন্দ্রনিল নন্দীর বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পরও বাড়িতে ধারাবাহিক ভাবে চুরি হতে থাকে। এতে ইন্দ্রনীল নন্দী ও ওনার সধর্মিণীর সন্দেহ হয় যমুনা ভট্টাচার্যকে। তারপর ইন্দ্রনীল নন্দী একটি মোবাইলে ভিডিও রেকর্ড দিয়ে মোবাইলটি ঘরে রেখে কর্মস্থলে চলে যান। ইন্দ্রনীল নন্দীর মাও জমুনার উপর নজর রাখতে থাকে। এরই মধ্যে ইন্দ্রনীল নন্দীর মা লক্ষ্য করেন যমুনা ঘরের আলমারি খুলে নগদ অর্থ চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে। ইন্দ্রনীল নন্দীর মা হাতেনাতে ধরার পরও যমুনা টাকা চুরির কথা অস্বীকার করে। এইদিকে ইন্দ্রনীল নন্দীর মোবাইলেও টাকা চুরির ঘটনা ক্যামেরা বন্ধি হয়। কর্মস্থল থেকে যথারীতি বাড়িতে ফিরে এসে গোটা ঘটনা প্রত্যক্ষ করে ইন্দ্রনীল নন্দী শনিবার এনসিসি থানায় যমুনা ভট্টাচার্য-র নামে অভিযোগ দায়ের করেন। এনসিসি থানার ওসি জানান থানায় মামলা দায়ের হওয়ার পর পুলিশ যমুনা ভট্টাচার্যকে গ্রেপ্তার করে। ধৃত যমুনা ভট্টাচার্যর স্বীকারোক্তি মূলে উদ্ধার করা হয় চুরি যাওয়া একটি স্বর্ণের চেইন, দুই জোরা কানের দুল, একটি ল্যাপটপ ও নগদ ২৪ হাজার ৫৬৫ টাকা। এনসিসি থানার পুলিশ রবিবার ধৃত যমুনা ভট্টাচার্যকে আদালতে সোপর্দ করে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভাটি অভয়নগর এলাকার চাঞ্চল্য বিরাজ করছে। গৃহপরিচারিকা সেজে বাড়িতে চুরি করে রীতিমতো সকলের দুশ্চিন্তা বাড়িয়ে দিয়েছে যমুনা ভট্টাচার্য। তাই বলতে হচ্ছে সকলে সাবধান। বাড়িতে কাজের লোক রাখছেন? তবে সাবধান। কাজের লোক রাখার পূর্বে সেই লোকের সম্পর্কে বিস্তারিত খবর নিন। না হয় ইন্দ্রনীল নন্দীর ন্যায় অপনাদেরকেও হারাতে হবে নগদ অর্থ, স্বর্ণালঙ্কার সহ অন্যান্য সামগ্রী।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য