Friday, May 31, 2024
বাড়িরাজ্যমন কি বাত শুনলেন রাজ্যপাল এবং মুখ্যমন্ত্রী

মন কি বাত শুনলেন রাজ্যপাল এবং মুখ্যমন্ত্রী

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৩০ এপ্রিল : ২০১৪ সালে দেশে বিজেপি সরকার প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মন কি বাত শুরু করেন। প্রতিমাসের শেষ রবিবার এই মন কি বাত পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। দেশের ২২ টি ভাষা এবং এগারটি বিদেশী ভাষায় সম্প্রচারিত হয় এই রেডিও অনুষ্ঠান। রবিবার ১০০ তম পর্বে পা রেখেছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মন কি বাত। এদিন প্রধানমন্ত্রী মন কি বাত পর্বে আবেগ প্রবন হয়ে পড়েন।

 ভাষণ রাখেন দেশবাসীর উদ্দেশ্যে। দলীয় নেতৃত্ব চাইছে প্রধানমন্ত্রী এই মন কি বাত যাতে মানুষের মন স্পর্শ করতে পারে। এবং এই পর্বের মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী দেশে বহু মানুষের সাথে কথা বলেন। ১০০ তম পর্বে ত্রিপুরা রাজ্য বেশ সারা লক্ষ্য করা গেছে। এদিন রাজভবনে রাজ্যপাল সত্যদেও নারায়ণ আর্য্য এবং মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ মানিক সাহা মন কি বাত অনুষ্ঠান শোনেন। মন কি বাত অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার আগে রাজভবনে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। রাজ্যপাল এবং মুখ্যমন্ত্রীর ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিসভার সদস্যরা ও প্রশাসনিক আধিকারিক সহ বিশিষ্টজনেরা। মুখ্যমন্ত্রী এদিন মন কি বাত অনুষ্ঠান শোনার পর জানান, প্রধানমন্ত্রী এদিনো অরাজনৈতিকভাবে সাধারণ মানুষের বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন।

এদিন প্রধানমন্ত্রী বলেছেন তিনি যখন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রীর ছিলেন তখন তিনি বাড়ি বাড়ি গিয়ে মানুষের সাথে জনসংযোগ করতে পারতেন। কিন্তু দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়ে দেশবাসীর সাথে জনসংযোগ করতে এই মন কি বাত অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন। এবং বর্তমানে যেভাবে মানুষের সাথে প্রধানমন্ত্রী যুক্ত হয়েছেন তা মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন অবস্থাতেও সম্ভব হয়নি বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী ডাক্তার মানিক সাহা। বিশ্বে কোন দেশে এ ধরনের রাষ্ট্রপ্রধান রয়েছে কিনা জানা নেই। যার কারণে সারা বিশ্ব ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে সর্বশ্রেষ্ঠ নেতৃত্ব হিসাবে মানছেন বলে অভিমত ব্যক্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যে প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্র এবং বুথ স্তরে এই অনুষ্ঠানে অংশ নেন স্থানীয় বিধায়ক থেকে শুরু করে জনপ্রতিনিধিরা। এদিকে ৮ নং টাউন বড়দোয়ালি বিধানসভা কেন্দ্রের উদ্যোগে দশমীঘাট ক্লাব প্রাঙ্গনে আয়োজিত মন কি বাত পর্ব শুনেন মেয়র দীপক মজুমদার। সঙ্গে ছিলেন দলীয় কর্মীরা।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য