Wednesday, June 19, 2024
বাড়িরাজ্যভাজপার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হতেই অগ্নিগর্ভ রাজ্য

ভাজপার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হতেই অগ্নিগর্ভ রাজ্য

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৭ জানুয়ারি :  বিজেপির প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হতে দিকে দিকে শুরু হয়েছে বিদ্রোহ। নিয়ন্ত্রণে নেই শীর্ষ নেতৃত্বের। চলছে বিজেপি অফিস ভাঙচুর, খালি হয়ে যায় দলীয় কার্যালয়। বিজেপির চন্ডীপুর মন্ডল কার্যালয়ে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার পরেই স্বদলীয় কর্মীদের হাতে আগুনে পুড়লো বিজেপি অফিসের নথিপত্র। ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় ভগবান নগর বিজেপির ৪২ নং বুথ, গৌরনগর ৪১ নং বুথ অফিস, কাউলিকুড়া বুথ অফিস।

ঘটনাস্থলে মোতায়েন বিশাল পুলিশ, টি এস আর সহ আধা সামরিক বাহিনী। মন পছন্দের প্রার্থী না হওয়ায় কদমতলায় বিজেপির মন্ডল অফিসে বিক্ষোভ। প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হতে শুনশান হয়ে যায় দলীয় কার্যালয়। বন্ধ করে দেওয়া হয় দশটি বুথ অফিস। বাগবাসা বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী তালিকায় স্থান পেয়েছেন যাদব লাল নাথ। তীব্র ক্ষোভ দলীয় কর্মীদের মধ্যে বিজেপির দলীয় কার্যালয় থেকে খুলে নেওয়া হয় প্রচার সজ্জা। এদিকে দীর্ঘ আট বছর যাবত কমলাসাগর মন্ডল সভাপতির দায়িত্ব নিষ্ঠা সাথে পালন করে আসছে কমলাসাগর মন্ডল সভাপতি সুবীর চৌধুরী। উল্লেখ্য, ২০২৩ বিধানসভা নির্বাচনেৱ অনেক পূর্ব থেকে এলাকার জনগণ কিংবা শাসক দল বিজেপির কর্মীরা কমলাসাগর বিধানসভা থেকে ২০২৩ বিধানসভা নির্বাচনে স্থানীয় হিসেবে এবং যোগ্যতা সম্পন্ন ব্যক্তি হিসেবে বেছে নিয়েছে। যদিও সে খবর উপর মহল পর্যন্ত সকলের জানা রয়েছে।

তারই মধ্যে এলাকায় খবর ছড়িয়ে পড়েছে বর্তমান মন্ডল সভাপতি সুবীর চৌধুরী কমলাসাগর বিধানসভা থেকে টিকিট পাচ্ছেন না। যার ফলেই শাসক বিজেপি টিকিট ঘোষনার পূর্বেই অশান্তি দেখা গেল কমলাসাগর বিধানসভাতে। একাংশ শাসক দলের সমর্থকরা ইতিমধ্যে রাস্তায় নেমে পড়েছেন। তাদের বক্তব্য যদি কমলাসাগর বিধানসভা থেকে এই বছর সুবীর চৌধুরীকে বিজেপি টিকিট না দেওয়া হয় তাহলে বিরোধী দল সিপিআইএমে যোগদান করবে দলীয় কর্মীরা। এলাকার সকলের একটাই বক্তব্য বিজেপি থেকে এই বছর নির্বাচনের লড়তে হলে কমলাসাগর বিধানসভা থেকে  সুবীর চৌধুরীকে টিকিট দিতে হবে। নতুবা অন্যদলে চলে যাবে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের কড়া হুঁশিয়ারি দিলেন। এমনকি কর্মী সমর্থকরা আরো বলেন যদি কমলাসাগর বিধানসভা থেকে সুবীর চৌধুরীকে বিজেপি থেকে টিকিট দেওয়া হয় তাহলেই এলাকায় পদ্মফুল ফুটবে। নাহলে জয়ের জন্য বিরোধী দল সি পি আই এম বাড়তি মাইলেজ পেয়ে যাবে। শেষ মুহূর্তে প্রার্থী তালিকার ঘোষণা দিয়েও এই তোষের আগুন কিভাবে মেটাবে সেটাই এখন বড় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য