Monday, February 6, 2023
বাড়িরাজ্যদিনভর বিক্ষোভ ১০,৩২৩ -এর, হুঁশিয়ারি সরকার পরিবর্তনের

দিনভর বিক্ষোভ ১০,৩২৩ -এর, হুঁশিয়ারি সরকার পরিবর্তনের

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৬ জানুয়ারি :  আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি বিরোধী দলগুলির হয়ে লড়াই করবে ১০,৩২৩ -এর শিক্ষক শিক্ষিকারা। পরিবর্তন করা হবে সরকার। এর জন্য পচারও করা হবে বলে ভোটের মুখে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানায় ১০,৩২৩ এর যৌথ মঞ্চ। কারণ ১০,৩২৩ -এর জন্য ধারণা ছিল অন্তিম মন্ত্রিসভার বৈঠকে সরকার কোন এক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে।

কিন্তু নির্বাচন আগামী দু-তিন দিনের মধ্যেই ঘোষণা হয়ে যাওয়ার ইতিমধ্যে ইঙ্গিত রয়েছে। এখন পর্যন্ত কোন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকার গ্রহন করেনি। তাই শেষবারের মতই সোমবার দিনভর শহরে আন্দোলন সংগঠিত করেছে ১০,৩২৩-এর যৌথ মঞ্চ। কখনো মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনের সামনে, কখনো শিক্ষামন্ত্রী বাসভবনের সামনে, কখনো আবার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের বাড়ির সামনে আবার কখনো শিক্ষা দপ্তরের সামনে ধর্নায় সামিল হয় তারা। কিন্তু কোন রকম আশার বাণী দেখেনি এদিনও। উল্লেখ্য এ দিন পূর্ব নির্ধারিত ঘোষণা অনুযায়ী রাজধানীর প্যারাডাইস চৌমুহনি এলাকা থেকে মিছিল করে চাকুরিচ্যুত শিক্ষক-শিক্ষিকারা শ্রীকৃষ্ণ মন্দির স্থিত মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবন উদ্দেশ্যে রওনা হয়। মহিলা কলেজ সংলগ্ন এলাকায় যেতেই মিছিলটি আটকে দেয় পুলিশ। পুলিশের সাথে দীর্ঘক্ষণ ধস্তাধস্তি হয় ১০,৩২৩ শিক্ষক শিক্ষিকাদের। তারপরও সেখানে বেরিকেড দিয়ে আটকে রাখা হয় আন্দোলনরত চাকরিচ্যুত শিক্ষক-শিক্ষিকাদের। সেখানে পুলিশের ব্যারিকেডের গণ্ডিতে মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ মানিক সাহা, শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের কোষ পুতুল পোড়ানো হয়। তারপর সেখান থেকে মিছিল করে আবার শিক্ষামন্ত্রীর বাসভবনের সামনে এসে গলা থেকে প্লে কার্ড খুলে শিক্ষামন্ত্রীর বাসভবনের দেওয়ালে ঝুলিয়ে বিক্ষোভ দেখায় চাকরিচ্যুত শিক্ষক শিক্ষিকারা। দীর্ঘক্ষণ বিক্ষোভের পর পুনরায় মিছিলটি শিক্ষামন্ত্রীর বাসভবনের সামনে থেকে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের বাসভবনের সামনে এসে বিক্ষোভে সামিল হয়। এ স্থানেও দীর্ঘক্ষণ বিক্ষোভের পর শিক্ষা দপ্তরের সামনে গিয়ে আন্দোলন করে বর্তমান শিক্ষা দপ্তরের আধিকারিকদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দেয়। তারপর রাজধানীর সিটি সেন্টারের সামনে এসে মিছিলটি শেষ করে সরকারের গঠন করা উপদেষ্টা কমিটির বিবৃতি পুড়ানো হয়।আন্দোলনরত চাকরিচ্যুত শিক্ষক কমল দেব সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানান, দিনভর এই বিক্ষোভ কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে রাজ্য সরকারকে জানান দেওয়া হয়েছে সরকার যাতে ইতিমধ্যে ১০,৩২৩ -কে চাকুরিতে পুনর্বহাল করে, নাহলে পরিবর্তনের করা হবে। কোন অংশে কম নয় এই শিক্ষক শিক্ষিকারা। তিনি বলেন এই সরকারের ২৯৯ টি প্রতিশ্রুতির মধ্যে ১০,৩২৩ এর স্থায়ী সমাধান করার প্রতিশ্রুতিও ছিল। যা পালন করেনি।

এদিকে চাকরিচ্যুত শিক্ষক বিজয়কৃষ্ণ সাহা জানান, ১০,৩২৩ জবাব ভোট বাক্সে দেবে। এর জন্য তারা প্রস্তুত বলে জানান। আরো বলেন এতদিন চাকুরি হারা শিক্ষক-শিক্ষিকারা ভদ্রতার সাথে আশা করেছিল সরকার কোন ব্যবস্থা করবে। বারবারই এ সরকার জুমলাগিরি করেছে। এই সরকারের প্রতারণার জবাব দেওয়া হবে। তাই এ সরকারকে ভোটের মাধ্যমে পরাজিত করা হবে। বিজেপি বিরোধী ভোট দেবে। কারণ সবকটি রাজনৈতিক দলের কর্মী সমর্থক ১০,৩২৩ -এর মধ্যে রয়েছে বলে হুঁশিয়ারি দেন এদিন। আরো বলেন বিজেপি ছাড়া যে দল শক্তিশালী হবে দলকে জয়যুক্ত করা হবে। এবং এর জন্য আসন্ন নির্বাচনে পচার করা হবে বিজেপির বিরুদ্ধে বলে জানান তিনি। মিছিল থেকে এক জনজাতি ব্যক্তি আবার বলে উঠে ঘরে চাল নেই, ডাল নেই। আরক্ষা দপ্তর গুলি করো। কিন্তু এদিন কেউ কেউ রাস্তায় কেঁদে বলে পাঁচ বছরে সরকার তাদের সমস্যা পূরণ করেনি। তাই তারা রাস্তায় থাকবে বলে জানান এদিন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য