Monday, February 6, 2023
বাড়িরাজ্যনির্বাচন কমিশনের রঙ্গলি উৎসবের আয়োজন

নির্বাচন কমিশনের রঙ্গলি উৎসবের আয়োজন

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৪ জানুয়ারি :  ভোট মানেই গণতান্ত্রিক উৎসব। এ গণতান্ত্রিক উৎসব শান্তিপূর্ণ ভাবে সম্পন্ন করা এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখার উপর গুরুত্ব আরোপ করে রঙ্গলি উৎসবের আয়োজন করা হয় শনিবার। রাজ্য মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের কার্যালয়ের উদ্যোগে রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবনের সামনে রাজ্যস্তরীয় রঙ্গলি উৎসবের আয়োজন করা হয়। পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে এই রঙ্গলি উৎসবে উপস্থিত ছিলেন মুখ্য সচিব জে কে সিনহা,  মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক কিরন গিত্যে ৭ ও ৮ নং বিধানসভা কেন্দ্রের রিটার্নিং অফিসার সহ অন্যান্য আধিকারিকেরা।

এদিনের উদ্যোগের বিষয়ে রাজ্য মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক কিরন গিত্যে জানান জাতীয় নির্বাচন কমিশন ত্রিপুরায় মিশন জিরো পোল ভায়োলেন্স শুরু করেছে। নির্বাচন শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠু করার প্রথা এই রাজ্যে চালু করতে এধরনের উদ্যোগ নিয়েছে কমিশন। তারই অঙ্গ হিসেবে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে একটি হলো রঙ্গলি উৎসব। রাজ্যের ১০ লক্ষ বাড়িতে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, এবং সহজগম্য নির্বাচন এর উপর রঙ্গলি আকার প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এদিন সকালে প্রায় দেড় লক্ষ বাড়িতে এধরনের রঙ্গলি আঁকা হয়েছে। এই সংখ্যা বিকেল পর্যন্ত দাঁড়াবে সাড়ে তিন লক্ষে। বাড়ি থেকে  কোন বার্তা বেরুলে তা সেই বাড়ির সদস্যদের উপর পড়ে।  তাই এধরনের উদ্যোগ গ্রহণ। মকর সংক্রান্তির এই পর্বে রাজ্যবাসীকে শুভেচ্ছা জানান মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক। নির্বাচনের আগে এই উৎসবের পর্বের মধ্য দিয়ে একটি সঠিক বার্তা যাবে বলে আশা বাক্ত করেন তিনি। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটুক তা চায়না কমিশন।

 এধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটলে তার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবে কমিশন। রাজ্যবাসী এমন কোন ঘটনা সংঘটিত করবে না , যাতে সমগ্র দেশে একটা ভুল বার্তা যায়। ত্রিপুরার নাম সুস্থ সংস্কৃতি, পর্যটন শিল্পের বিকাশে , শান্তির রাজ্য হিসেবে আলোকিত হোক এটাই চান মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক। আতঙ্কের তালিকায় ত্রিপুরার নাম পৌঁছে গেলে তা আখেরে রাজ্যের জন্য ক্ষতিকারক। ত্রিপুরার ভবিষ্যতের জন্য এই ধরনের ঘটনা যাতে না ঘটে তার দিকে সকলের দৃষ্টি দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি। শান্তিপূর্ণ নির্বাচন করতে দায়বদ্ধ নির্বাচন কমিশন। তার জন্য যা যা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হয় তাই  করবে নির্বাচন কমিশন। পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হচ্ছে । নির্বাচনকে কেন্দ্র করে  রাজনৈতিক সন্ত্রাসের ঘটনা রাজ্যে শূন্যে নিয়ে আসাই কমিশনের মূল লক্ষ্য বলে জানান মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক কিরন গিত্যে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য