Sunday, October 2, 2022
বাড়িরাজ্যবিজেপি'কে উৎখাত করে শোষণমুক্ত সমাজের ডাক দিলেন বিরোধী দলনেতা

বিজেপি’কে উৎখাত করে শোষণমুক্ত সমাজের ডাক দিলেন বিরোধী দলনেতা

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৯ সেপ্টেম্বর :  শোষিতদের স্বার্থ এবং শোষকদের বিরুদ্ধে লড়াই করে স্বার্থহীন সমাজ, অনাহারমুক্ত, অভাবমুক্ত সমাজ গড়ে তুলতে হবে। তাহলে নিরাপদ, নিরক্ষর মুক্ত সমাজ গড়ে উঠবে। সাম্প্রদায়িক হানাহানি থাকবে না। মানুষ সম্মান নিয়ে বাঁচতে পারবে। নারী পুরুষের সমান গুরুত্ব থাকবে। এর জন্য কমিউনিস্টরা লড়াই করে যাচ্ছে। কিন্তু সেই শোষকদের স্বার্থ রক্ষা করার জন্য লড়াই করছে বিজেপি। শুক্রবার আগরতলা টাউন হলে ত্রিপুরা রাজ্য মৎস্যজীবী ইউনিয়নের দশম রাজ্য সম্মেলনে বক্তব্য রেখে এমনটাই বললেন বিরোধী দলনেতা মানিক সরকার। তিনি বলেন, বিজেপি নেতৃত্বরা বুঝতে পারছে ত্রিপুরা রাজ্যের অবস্থা ভালো না। অভ্যন্তরীণ ভাবে খবর পেয়ে গেছেন তারা। ২০১৮ সালে যে পরিমন্ডল তৈরি করা হয়েছিল তা ভেঙে চৌচির হয়ে গেছে।

 ত্রিপুরাতে বর্তমান এবং প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর আলিঙ্গনে রাজ্য চলছে। ফলে মুখ্যমন্ত্রীর পরিবর্তনের পরেও পরিস্থিতি কোন উন্নয়ন হয়নি। বরং পরিস্থিতি আরো বেশি খারাপ হয়েছে এমনটাই অভিযোগ তুললেন বিরোধী দলনেতা মানিক সরকার। তিনি আরো বলেন বর্তমান মুখ্যমন্ত্রীকে মানুষ ছাপ্পা ভোটের মুখ্যমন্ত্রী বলছে। কারণ উপনির্বাচনে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে ভোটারদের বড়দোয়ালি বিধানসভা কেন্দ্রে নিয়ে এসে ছাপ্পা ভোট করেছে বিজেপি। এখন মুখ্যমন্ত্রী নাম পড়ে গেছে ছাপ্পা ভোটের মুখ্যমন্ত্রী। কিভাবে তিনি মানুষের মধ্যে গিয়ে মুখ দেখান তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মানিক সরকার। মানিক সাহা মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত গত কয়েক মাসে রাজ্যের কোন উন্নয়নমূলক কাজ করতে দেখা যায় না। আর কয়েক মাস বাদই বিধানসভা নির্বাচন। তাই এই সরকারের উপর আস্থা রাখলে মানুষ ভুল করবে। তাই শান্তি এবং গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে এ সরকারকে উৎখাত করতে হবে। তাই মানুষকে সাথে নিয়ে ময়দানে নামতে হবে বলে জানান বিরোধী দলনেতা মানিক সরকার। আয়োজিত সম্মেলনে এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক জিতেন্দ্র চৌধুরী, বিধায়ক রতন ভৌমিক, সংগঠনের রাজ্য সম্পাদক মনিন্দ্র চন্দ্র দাস সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য