Wednesday, October 5, 2022
বাড়িরাজ্যরাজ্যসভার উপনির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণা বামফ্রন্টের

রাজ্যসভার উপনির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণা বামফ্রন্টের

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৭ সেপ্টেম্বর : আগামী ২২ সেপ্টেম্বর ত্রিপুরার রাজ্যসভার একমাত্র আসনে উপনির্বাচনে লড়াই করতে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করল বামফ্রন্ট। বুধবার সিপিআইএম রাজ্য দপ্তরের সাংবাদিক সম্মেলন করে বিধানসভার সদস্য তথা প্রাক্তন মন্ত্রী ভানুলাল সাহার নাম ঘোষণা দেন বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান নারায়ণ কর। তিনি বলেন আগামী দু’দিনের মধ্যেই প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দেবেন। তিনি বলেন, রাজ্যের মানুষকে নিয়ে বিজেপি ছেলে খেলা শুরু করেছে। ত্রিপুরার একটিমাত্র রাজ্যসভার আসন। এই আসনে গত পাঁচ মাস আগে নির্বাচন সংঘটিত হয়েছে।

৫ মাস ব্যবধানে আবারো একটা নির্বাচনের দিকে ঠেলে দিয়েছে বিজেপি। আগামী ২২ সেপ্টেম্বর এই আসনে পুনরায় নির্বাচন সংঘটিত হবে। এই নির্বাচনে বামফ্রন্ট বিজেপিকে পরাজিত করতে লড়াই করবে। এর জন্য বিরোধী দলের বিধানসভার সদস্যদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। পাশাপাশি বিজেপি দলে ও আইপিএফটি দলে যেসব বিধায়কেরা মর্যাদাহীনতার কারণে ভুগছে তাদেরও এক মঞ্চে আসার আহ্বান করেন নারায়ন কর। তিনি আরো বলেন বিজেপি’কে শিক্ষা দিতে এক মঞ্চে আসার জন্য আহ্বান করা হচ্ছে। ফ্যাসিস্ট সুলভ বিজেপি সরকার ত্রিপুরা রাজ্যের মানুষের দুঃখ দুর্দশার জন্য দায়ী বলেও এদিন দায়ী করেন নারায়ন কর।

সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক জিতেন্দ্র চৌধুরী বলেন আগামী ১০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাজ্যের প্রত্যেকটি ব্লক ও মহাকুমা অফিসে স্থানীয় জ্বলন্ত সমস্যাগুলো নিয়ে জনগণের স্বার্থে ডেপুটেশন প্রদান করছে সিপিআইএম। এতে সিপিআইএমের ভালো সাড়া মিলছে। অন্যদিকে শাসক দল জনগণের সাড়া দেখে ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে মানুষের উপর সন্ত্রাস নামে আনছে বিজেপি। শাসকদলের ভয় তাদের অকমণ্যতা ফুটে উঠবে এবং দুর্নীতির মুখোশ খুলবে। সুতরাং এই ভয়-ভীতিতে তাদের দলের অন্দরে ভূকম্প শুরু হয়ে গেছে বলে জানান জিতেন্দ্র চৌধুরী। তিনি আরো বললেন সর্বভারতীয় কর্মসূচি অঙ্গ হিসেবে কৃষক শ্রমিকদের অধিকারের দাবি, বেকারদের কর্মসংস্থানের দাবি সহ জলন্ত বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর সারা রাজ্য জুড়ে প্রচার কর্মসূচি জুয়ার তোলা হবে। জনবহুল বাজার সহ বিভিন্ন এলাকা একটি করে মিছিল ও জন সমাবেশ সংঘটিত করা হবে বলে জানান তিনি। শ্রী চৌধুরী আরো বলেন ত্রিপুরায় বিধানসভা নির্বাচনের আর বেশি দিন বাকি নেই। বিজেপি কোন প্রতিশ্রুতি পালন করতে না পারার কারণে তারা টের পেয়ে গেছে ক্ষমতায় থাকার বিষয়ে। তাই এখন থেকেই ফাইল সরানো এবং ফাইল চুরির ঘটনা সংঘটিত করে চলেছে বলে অভিযোগ করলেন শ্রী চৌধুরী।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য