Saturday, June 15, 2024
বাড়িখেলাআর্সেনালের হাভার্টজ এখন ‘সবচেয়ে বড় টটেনহ্যাম সমর্থক’

আর্সেনালের হাভার্টজ এখন ‘সবচেয়ে বড় টটেনহ্যাম সমর্থক’

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ১৩ মে:   মাঠে লড়বে ম্যানচেস্টার সিটি ও টটেনহ্যাম হটস্পার, কিন্তু ম্যাচে প্রবল আগ্রহ নিয়ে তাকিয়ে থাকবে আর্সেনালও। শিরোপা লড়াইয়ের শেষ বেলায় এই ম্যাচটির ফলাফল হয়ে উঠতে পারে যে মহাগুরুত্বপূর্ণ! ম্যানচেস্টার সিটি যদি পয়েন্ট হারায়, আর্সেনালের সম্ভাবনা তাহলে হয়ে উঠবে উজ্জ্বল। নিজেদের কাজ এগিয়ে রাখার পর আর্সেনালের হাভার্টজ বললেন, এই ম্যাচে টটেনহ্যামের জয়ের প্রবল প্রতীক্ষায় থাকবেন তিনি ও তারা।ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে রোববার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মাঠে ১-০ গোলের জয়ে বড় এক বাধা পেরোয় আর্সেনাল।লিগের এক ম্যাচ বাকি রেখে ৮৬ পয়েন্ট নিয়ে আপাতত পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে তারা। তবে শিরোপার চাবি এখনও ম্যানচেস্টার সিটির হাতেই। তাদের ম্যাচ বাকি দুটি, পয়েন্ট ৮৫। নিজেদের কাজটা ঠিকঠাক করতে পারলে তাই ট্রফি ধরে রাখবে সিটিই।

আর্সেনালের জন্য জরুরি সিটির পয়েন্ট হারানো। মঙ্গলবার টটেনহ্যামের বিপক্ষে সিটির লড়াই। ইউনাইটেডকে হারানোর পর আর্সেনালের জার্মান ফরোয়ার্ড হাভার্টজ চওড়া হাসিতে স্কাই স্পোর্টসকে বললেন, “এই ম্যাচে আমি থাকব সর্বকালের সবচেয়ে বড় টটেনহ্যাম সমর্থক। আশা করি, ভালো কিছুই হবে।”টটেনহ্যামকে নিয়ে একই আশার সুর আর্সেনাল কোচ মিকেল আর্তেতার কণ্ঠেও। তবে সিটি এই ম্যাচে পয়েন্ট হারাক বা না হারাক, শিরোপার ফয়সালা হবে শেষ ম্যাচেই। ঘরের মাঠে নিজেদের দর্শকদের সামনে শিরোপার সুবাস মেখে শেষ দিনে মাঠে নামতে পারবে দল, এতেই দারুণ রোমাঞ্চিত আর্তেতা।

“এই লিগে আমার অভিজ্ঞতা হলো, যে কোনো দল যে কাউকে হারাতে পারে। লিগের শেষ দিনে অনেক দলেরই অনেক কিছুর প্রয়োজন, এরকম পরিস্থিতি অনেক দেখেছি। ম্যাচগুলিতে পারস্পরিক যে সমীহ দেখা যায়, তা অসাধারণ।”“আমরা জানি যে, এই ম্যাচের (সিটি বনাম টটেনহ্যাম) ফলটা আমাদের পক্ষে আসাটা জরুরি। আমরা এটাও জানি, শেষ ম্যাচে নিজেদের কাজটাও করতে হবে আমাদের। তবে আজকে আমরা স্বপ্নের সেই বাক্স খুলতে চেয়েছিলাম যে, শেষ দিনে নিজেদের দর্শকদের সামনে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা সম্ভাবনা নিয়ে আমরা নামব। আমি খুবই তৃপ্ত যে এই স্টাফ ও ফুটবলারদের নিয়ে আমরা তা করতে পেরেছি।”

গতবার শিরোপার আশা জাগিয়েও শেষ দিকে খেই হারিয়ে পরে সিটির থেকে ৫ পয়েন্ট পেছনে থেকে রানার্স আপ হয়েছিল আর্সেনাল। এবার এই পর্যায়ে এসে চাপের সময়টায় এখনও পর্যন্ত নিজেদের ধরে রাখতে পেরেছে তারা। মানসিকতায় উন্নতির ছাপ এখানে স্পষ্ট।শুধু এটিই নয়, আর্তেতার কোচিংয়ে আর্সেনালের সামগ্রিক অগ্রগতিও স্পষ্ট। ইউনাইটেডের বিপক্ষে জয় দিয়ে যেমন একটি রেকর্ড গড়ে ফেলেছে তারা। এবারের লিগে ২৭টি জয় হয়ে গেল তাদের, প্রিমিয়ার লিগ জমানায় যা ক্লাবের রেকর্ড। প্রিমিয়ার লিগের আগে এর চেয়ে বেশি জয় ছিল তাদের স্রেফ দুবার, ১৯৭০-৭১ মৌসুমে ২৯ জয় ও ১৯৩০-৩১ মৌসুমে ২৮ জয়।

এই অর্জনেও দারুণ উচ্ছ্বসিত আর্তেতা।“এটা স্রেফ অগ্রগতি নয়, এটাকে বলা যায় ইতিহাস। খুব কঠিন কাজ এমন ধারাবাহিকতা দেখানো, বিশেষ করে আমরা যে লিগে খেলি। এই মাইলফলকের জন্য সব ফুটবলার ও স্টাফকে বিশাল কৃতিত্ব দিতেই হবে।”আগামী রোববার লিগের শেষ ম্যাচে আর্সেনালের প্রতিপক্ষ পয়েন্ট তালিকায় ১৫ নম্বরে থাকা এভারটন। মঙ্গলবার টটেনহ্যামের বিপক্ষে ম্যাচের পর রোববার শেষ ম্যাচে সিটি লড়বে পয়েন্ট তালিকার ৯ নম্বরে থাকা ওয়েস্ট হ্যামের বিপক্ষে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য