Friday, May 31, 2024
বাড়িখেলাসেমিফাইনালে গোল করায় রোনালদো–ডি ব্রুইনাদের পাশে ভিনিসিয়ুস

সেমিফাইনালে গোল করায় রোনালদো–ডি ব্রুইনাদের পাশে ভিনিসিয়ুস

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ১ মে: ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, কেভিন ডি ব্রুইনা, জারি লিটমানেন ও ভিনিসিয়ুস জুনিয়র—এই চার ফুটবলারের মধ্যে একটি মিল আছে। চারজনই জিতেছেন চ্যাম্পিয়নস লিগ। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে জিতেছেন রোনালদো ও ভিনিয়ুস, ডি ব্রুইনা জিতেছেন ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে আর লিটমানেন জিতেছেন আয়াক্সের জার্সিতে। এর বাইরেও আরেকটি মিল আছে এবং সেটি গতকাল রাতে মিউনিখে দেখা গেল ভিনির কারণে।

চ্যাম্পিয়নস লিগ সেমিফাইনাল প্রথম লেগে জোড়া গোল করেছেন ভিনিসিয়ুস। ব্রাজিলিয়ান তারকার জোড়া গোলে বায়ার্নের মাঠে ২–২ গোলে ড্র করেছে স্প্যানিশ ক্লাবটি। চ্যাম্পিয়নস লিগ সেমিফাইনালে এ নিয়ে টানা তৃতীয় মৌসুম গোল করলেন ভিনিসিয়ুস। ২০২১–২২ মৌসুম এবং ২০২২–২৩ মৌসুমে গোল করেছিলেন ম্যানচেস্টার সিটির জালে। এবার বায়ার্নের বিপক্ষে। আর এর মধ্য দিয়ে রোনালদো, ডি ব্রুইনা ও লিটমানেনদের একটি অভিজাত ক্লাবে নামও লেখালেন ভিনিসিয়ুস।চ্যাম্পিয়নস লিগ সেমিফাইনালে অন্তত টানা তিন মৌসুমে গোল করেছেন রোনালদো, ডি ব্রুইনা ও লিটমানেন। পর্তুগিজ কিংবদন্তি রোনালদো তো আরও এক কাঠি সরেস—তিনি গোল করেছেন চার মৌসুম। রিয়ালে থাকতে ২০১১–১২, ২০১২–১৩, ২০১৩–১৪ ও ২০১৪–১৫ মৌসুমে সেমিফাইনালে গোল করেছেন রোনালদো। সিটির মাঝমাঠের প্রাণভোমরা ডি ব্রুইনা গোল করেছেন ২০২০–২১, ২০২১–২২ ও ২০২২–২৩ মৌসুমের সেমিফাইনালে। কারও কারও কাছে ফিনল্যান্ডের সর্বকালের সেরা ফুটবলার হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়া লিটমানেন ১৯৯৪–৯৫, ১৯৯৫–৯৬ ও ১৯৯৬–৯৭ মৌসুমের সেমিফাইনালে গোল করেছেন। তখন তিনি আয়াক্সের খেলোয়াড়।

গতকাল রাতের জোড়া গোলে একটি হিসাবও সমান করেছেন ভিনিসিয়ুস। ফুটবলের পরিসংখ্যান বিষয়ক ‘এক্স’ অ্যাকাউন্ট ‘স্কোয়াকা’ জানিয়েছে, গতকাল রাতের জোড়া গোলে চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্ব এবং নকআউট পর্বের হিসাব সমান হলো ভিনির—গ্রুপ পর্বে ২৭ ম্যাচে করেছেন ১০ গোল। নকআউট পর্বেও তাই—২৭ ম্যাচ ও ১০ গোল। আর ভিনির জোড়া গোলের ‘অভ্যাস’ নিয়েও আলাদা করে বলতে হয়। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে রিয়ালের হয়ে এ নিয়ে ১৩তম বার ম্যাচে অন্তত জোড়া গোল করলেন ভিনি। এর মধ্যে পাঁচটি ম্যাচ চলতি মৌসুমে, যার মধ্যে চারটি ম্যাচই আবার চ্যাম্পিয়নস লিগে। ইউরোপের শীর্ষ ক্লাব প্রতিযোগিতা নিয়েই যেহেতু কথা হচ্ছে, তাই এখানে ভিনির আরেকটি দুর্দান্ত পরিসংখ্যান জানাতেই হয়—২০২১–২২ মৌসুম থেকে চ্যাম্পিয়নস লিগে ভিনির চেয়ে বেশি ড্রিবল কেউ করতে পারেনি। একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে এ সময় ড্রিবলে পেরিয়ে গেছেন এক শর কোটা (১০১)। এ সময় যেকোনো খেলোয়াড়ের চেয়ে অন্তত ৩০টি ড্রিবল বেশি করেছেন ভিনি। ২০২১–২২ মৌসুম থেকে গোল করা ও করানো মিলিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে ভিনির গোলে অবদানই সবচেয়ে বেশি (৩০)।

চ্যাম্পিয়নস লিগে ব্রাজিলিয়ানদের মধ্যে গোলেও শীর্ষ দশে উঠে এলেন ভিনিসিয়ুস। এই প্রতিযোগিতায় ২০ গোল করে ভিনি পেছনে ফেললেন রোনালদিনিওর মতো কিংবদন্তিকে এবং বসলেন রোমারিওর পাশে। ৪৩ গোল নিয়ে তালিকার শীর্ষে নেইমার। বোঝাই যাচ্ছে, ভিনির সামনে এখনো অনেক পথ। তবে রিয়ালের এই উইঙ্গার কিন্তু এ পর্যন্ত উঠে আসতে পেরেই সন্তুষ্ট, ‘এটা আমার জন্য সম্মানের ব্যাপার। কারণ যেখান থেকে উঠে এসেছি, সেখান থেকে এই উচ্চতায় পৌঁছানো কঠিন। তাই আমি সব সময়ই বলি, এখানে (রিয়াল) আসতে পেরেই আমি বিজয়ী। কারণ, বিশ্বসেরা কিছু খেলোয়াড়ের সান্নিধ্য পেয়েছি।’সংবাদমাধ্যম ‘টিএনটি’কে এসব বলার সময় ব্রাজিলের একজনকে স্মরণও করেছেন ভিনিসিয়ুস, ‘গোল করতে পেরে আমি অবশ্যই খুশি। তবে বেশি ভালো লাগছে (গোলে) রোনালদোকে টপকে যাওয়ায়। তিনি আমার আদর্শ। টিভিতে ম্যাচটা তিনি দেখেছেন এবং আমাকে পরামর্শও দিয়েছেন। তিনি ফেনোমেনন।’

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য