Tuesday, April 16, 2024
বাড়িখেলাসংহতিকে হারালো ফ্রেন্ডস, জয়ী জেসিসি

সংহতিকে হারালো ফ্রেন্ডস, জয়ী জেসিসি

ক্রীড়া প্রতিনিধি।। সদ্য সুপার ডিভিশন লিগ চ্যাম্পিয়ন সংহতি ক্লাব জোর ধাক্কা খেলো। মরশুমে তৃতীয় সাক্ষাৎকারেও হারলো ইউনাইটেড ফ্রেন্ডসের কাছে। সুপার ডিভিশনে দুবারের পর ফ্রেন্ডসের কাছে টি-২০ আসরে হেরে হারের হ্যাটট্রিক করলো সংহতি। বুধবার এমবিবি স্টেডিয়ামে সংহতি পরাজিত হয় ২৭ রানে। ইউনাইটেড ফ্রেন্ডসের গড়া ১৯৫ রানের জবাবে সংহতি ১৬৮ রান করতে সক্ষম হয়। বিজয়ী দলের তেজস্বী জশোয়াল শতরান এবং বিশাল ঘোষ অর্ধশতরান করেন। টসে জিতে ফ্রেন্ডস নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৯৫ রানের বড় স্কোর গড়ে। শুরুতেই সেন্ট সরকারকে হারানোর পর বিশাল এবং তেজস্বী দ্বিতীয় উইকেটে ৬৬ বল খেলে ১০৩ রান যোগ করে দলকে বড় স্কোর গড়ার ইঙ্গিত দেন। বিশাল ৩৯ বল খেলে ৫টি বাউন্ডারি ও ৪টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৫৪ রান করে আউট হলেও অপর প্রান্তে মারমুখি মেজাজে থাকা তেজস্বী শেষ পর্যন্ত ৫৯ বল খেলে

৭টি বাউন্ডারি ও ৯টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ১০৩ রানে অপরাজিত থেকে যান। জবাবে সংহতি ভালো করলেও বিপক্ষের গড়া বিশাল রানের নীচে শেষ পর্যন্ত চাপে পড়ে যায়। ১৬৮ রান করতে সক্ষম হয়। দলনায়ক শ্রীদাম পাল ১৮ বল খেলে ৫টি বাউন্ডারি ও ২টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৩৬, রাণা দত্ত ২৮ বল খেলে ৩টি বাউন্ডারি ও ১টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে অপরাজিত ৩৪, সম্রাট সূত্রধর ১৪ বল খেলে ৩টি বাউন্ডারি ও ১টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ২২, অমরেশ দাস ১২ বল খেলে ২টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ১৮ এবং

সঞ্জয় মজুমদার ১০ বল খেলে ১টি বাউন্ডারি ও ১টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ১৪ বান করেন। ইউনাইটেড ফ্রেন্ডসের প্রিন্স রাণা ২৯ রানে ৪টি, ঋত্বিক শ্রীবাস্তব ২০ রানে এবং দলনায়ক রজত দে ২৩ রানে ২টি করে উইকেট দখল করেন।

একই মাঠে অপর ম্যাচে জয়ের ধারা অব্যহত রাখলো জয়নগর ক্রিকেট ক্লাব (জেসিসি)। বুধবার দুরন্ত খেলে হারিয়ে দিলো হার্ভেকে। দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে জেসিসি ৭৭ রানে জয় পায়। প্রথমে ব্যাট নিয়ে জেসিসি-র গড়া ১৮৪ রানের জবাবে হার্ভে ১০৭ রান করতে সক্ষম হয়। 

দলের কৌশল আচার‍্য ৭১ রান করেন। টসে জিতে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৮৪ রানের বড় স্কোর গড়ে জেসিসি। প্রাথমিক বিপর্যয়ের পর দলেক টেনে তুলেন হিমাংশু সিং এবং কৌশল আচার‍্য। কৌশল ৪৮ বল খেলে ৭টি বাউন্ডারি ও ৪টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৭১ রানে এবং শুভম ঘোষ ৩০ বল খেলে ১টি বাউন্ডারি ও ৪টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৪৪ রানে অপরাজিত থেকে যান। এছাড়া হিমাংশু ২৫ বল খেলে ৮টি বাউন্ডারি ও ১টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৪৬ রান করেন। জবাবে হার্ভে নির্ধারিত ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১০৪ রান করতে সক্ষম হয়। আরমান হোসেন ৪৭ বল খেলে ৩টি বাউন্ডারি ও ৪টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৪৭ এবং রিয়াজ উদ্দিন ৪৩ বল খেলে ২টি বাউন্ডারি ও ১টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে অপরাজিত ২৩ রান করেন। অতিরিক্ত পায় ২৩ রান। জেসিসি-র ইন্দ্রজিৎ দেবনাথ ১৫ রানে ৩টি উইকেট পান।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য