Monday, February 6, 2023
বাড়িখেলা‘নেইমার ও দানিলো এখনও বিশ্বকাপে খেলবে’

‘নেইমার ও দানিলো এখনও বিশ্বকাপে খেলবে’

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, আগরতলা,২৮ নভেম্বর: সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে নিশ্চিতভাবেই নেইমার ও দানিলোকে পাবে না ব্রাজিল। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচেও এই দুইজনকে পাওয়া নিয়ে রয়েছে শঙ্কা। কতদিন মাঠের বাইরে থাকতে হবে তাদের, এখন জাগছে এমন প্রশ্ন। দলটির কোচ তিতে অবশ্য শোনালেন আশার বানী। তার বিশ্বাস, বিশ্বকাপে সামনের পথচলায় পাওয়া যাবে দলের গুরুত্বপূর্ণ এই দুই খেলোয়াড়কে।‘জি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সার্বিয়ার বিপক্ষে গোড়ালিতে চোট পান তারকা ফরোয়ার্ড নেইমার ও ডিফেন্ডার দানিলো। ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন গত শুক্রবার জানায়, সুইসদের বিপক্ষে খেলতে পারবেন না নেইমার ও দানিলো।তবে ব্রাজিল দলের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র রয়টার্সকে জানায়, ক্যামেরুনের বিপক্ষেও পাওয়া যাবে না এই দুই জনকে।দোহার স্টেডিয়াম ৯৭৪-এ সোমবার বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় সুইজারল্যান্ডের মুখোমুখি হবে ব্রাজিল। আগের দিনের সংবাদ সম্মেলনে তিতে জানান, চোট পাওয়া খেলোয়াড়দের সামনে ফিরে পাওয়ার ব্যাপারে তিনি আশাবাদী।“আমার মনে হয়, নেইমার ও দানিলো এখনও বিশ্বকাপে খেলবে, এটা আমার মতামত। মেডিকেল ইস্যু নিয়ে আমি বলতে পারব না, কারণ আমি সেই জায়গায় নেই। আমরা আশা করি, বিশ্বকাপে তাদেরকে পাওয়া যাবে।”

বিশ্বকাপ অভিযানের শুরুতেই দলের সেরা তারকা নেইমারকে হারানো ব্রাজিলের জন্য বড় ধাক্কা। ২০১৪ বিশ্বকাপে কোয়ার্টার-ফাইনালে চোট পেয়ে ছিটকে গিয়েছিলেন নেইমার। তাকে ছাড়া সেমি-ফাইনালে জার্মানির কাছে ৭-১ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল দলটি।এবার গ্রুপ পর্বের বাকি দুই ম্যাচে তাকে পাওয়ার সম্ভাবনা নেই খুব একটা। তবে নেইমারকে ছাড়াই ২০১৯ সালে কোপা আমেরিকার শিরোপা জিতেছিল ব্রাজিল। দলের সবচেয়ে বড় তারকা ছাড়াও ভালো করার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী তিতে।“দলে থাকা সব দারুণ প্রতিভার ওপর আস্থা আছে ব্রাজিলের। নেইমার অন্য মানের খেলোয়াড়, তবে আমরা সবাইকে ভরসা করি।”একই সঙ্গে প্রতিপক্ষের একজন খেলোয়াড়ের ওপর আক্রমণ করার মনোভাবও বদলাতে বললেন ব্রাজিল কোচ।“ফুটবলের ভালো চাইলে আমাদের সতর্ক হতে হবে এবং ফাউলের পুনরাবৃত্তির দিকে মনোযোগ দিতে হবে। কারণ তারা নির্দিষ্ট খেলোয়াড়দের দিকে লক্ষ্য করে, যা তাদের প্রভাবিত করে। এটা বন্ধ করতে হবে।”সার্বিয়ার বিপক্ষে ২-০ গোলে জেতা ম্যাচে চোট পাওয়ার পরও কয়েক মিনিট খেলেন নেইমার। এরপর আর পারেননি তিনি। ৮০ মিনিটে তাকে তুলে নেন তিতে। ব্রাজিল কোচের মতে, ব্যথা পাওয়ার বিষয়টি শুরুতে কাউকে বুঝতেই দেননি নেইমার।“সে চোট পেয়েছিল, কিন্তু আমি বুঝতেই পারিনি। আমাদের কাছে তার ব্যথা পাওয়ার তথ্য ছিল না। সে খেলা চালিয়ে যেতে চেষ্টা করেছে যতক্ষণ পর্যন্ত না পেরেছে।”

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য