Saturday, December 3, 2022
বাড়িখেলাদ্বিতীয়ার্ধের রোমাঞ্চে ইন্টারকে হারাল ইউভেন্তুস

দ্বিতীয়ার্ধের রোমাঞ্চে ইন্টারকে হারাল ইউভেন্তুস

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, আগরতলা, ৭ নভেম্বর: আলিয়াঞ্জ স্টেডিয়ামে রোববার রাতে সেরি আর ম্যাচটি ২-০ গোলে জিতেছে ইউভেন্তুস।চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দুই দলের অভিজ্ঞতা দুইরকম। ইন্টার জায়গা করে নিয়েছে শেষ ষোলোয়। ছয় ম্যাচের পাঁচটিই হেরে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছে ইউভেন্তুস।তবে ঘরোয়া লিগে জয়ের ধারা ধরে রাখল তুরিনের দলটি। এটি তাদের টানা চতুর্থ জয়। আর টানা চার জয়ের পর হারল ইন্টার।  প্রথমার্ধে প্রতিপক্ষ গোলরক্ষকের পরীক্ষা নিতে পারেনি কোনো দলই। এই সময়ে ইউভেন্তুস লক্ষ্যে কোনো শটই নিতে পারেনি। ইন্টারের কেবল দুটি শট লক্ষ্যে ছিল।পঞ্চম মিনিটে ভালো একটি সুযোগ পেয়ে বাইরে মারেন লাউতারো মার্তিনেস। ২৬তম মিনিটে কর্নারে এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারের মাথা ছুঁয়ে যাওয়া বলে এদিন জেকোর হেড লক্ষ্যে থাকেনি।বিরতির আগে সবচেয়ে বড় সুযোগটা হারান ইন্টারের ডেনজেল ডামফ্রিস। নিকোলো বারেল্লার পাস ছয় গজ বক্সের সামনে ফাঁকায় পেয়ে অবিশ্বাস্যভাবে উড়িয়ে মারেন এই ডাচ ডিফেন্ডার।৪৭তম মিনিটে গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিল ইন্টার। ২৫ গজ দূর থেকে হাকান কালহানোগলুর জোরাল শটে বল এক হাতে ক্রসবারের ওপর দিয়ে পাঠান গোলরক্ষক ভয়চেখ স্ট্যাসনি।চার মিনিট পর লক্ষ্যে নিজেদের প্রথম শটেই সাফল্য পেয়ে যায় ইউভেন্তুস। বাঁ দিক দিয়ে আক্রমণে উঠে ফিলিপ কসতিচ পাস দেন বক্সে আর প্রথম স্পর্শে ডান পায়ের শটে বল জালে পাঠান আদ্রিওঁ রাবিও।

৬২তম মিনিটে কর্নারে দারুণ ভলিতে বল জালে পাঠিয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করার উল্লাসে মাতেন দানিলো। তবে ভিএআরে অনেকটা সময় নিয়ে হ্যান্ডবলের বাঁশি বাজান রেফারি। বল দানিলোর হাত ছুঁয়ে গিয়েছিল।৭২তম মিনিটে কাছ থেকে কালহানোগলুর শট ঠেকান দানিলো। দুই মিনিট পর মার্তিনেসের শট ঠেকান স্ট্যাসনি।৭৬তম মিনিটে আরেকটি গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিল ইউভেন্তুস। কসতিচের জোরাল নিচু শটে বল গোলরক্ষকের হাত ছুঁয়ে পোস্টে লাগে।৮১তম মিনিটে বদলি নামেন আনহেল দি মারিয়া। পেশির চোট কাটিয়ে প্রায় এক মাস পর মাঠে ফিরলেন আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার। বিশ্বকাপের আগে তার ফেরা জাতীয় দলের জন্য বড় স্বস্তির খবর।৮৪তম মিনিটে দ্বিতীয় গোলে জয় প্রায় নিশ্চিত করে ফেলে স্বাগতিকরা। মাঝমাঠ থেকে দি মারিয়া পাস দেন কসতিচকে। বক্সে ঢুকে এই সার্বিয়ান মিডফিল্ডার পাস দেন অন্য পাশে নিকোলো ফাগিওলিকে। ইতালিয়ান এই মিডফিল্ডারের শটে বল ইন্টারের এক ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে জালে জড়ায়।খানিক পর গোল হতে পারত আরেকটি। কাছ থেকে ফেদেরিকো চিয়েসার শট ফিরিয়ে ব্যবধান আর বাড়তে দেননি গোলরক্ষক আন্দ্রে ওনানা।এই জয়ে পয়েন্ট টেবিলে আট থেকে পাঁচ নম্বরে উঠে এসেছে ইউভেন্তুস। ১৩ ম্যাচে ৭ জয়ে তাদের ২৫ পয়েন্ট। সমান ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে সাতে নেমে গেছে ইন্টার।৩৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে নাপোলি। তাদের চেয়ে ৬ পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে এসি মিলান।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য