Saturday, December 3, 2022
বাড়িখেলা'গোলের নেশায় রক্ষণ সামলাতে ভুলে গিয়েছিল বার্সা'

‘গোলের নেশায় রক্ষণ সামলাতে ভুলে গিয়েছিল বার্সা’

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, আগরতলা,১৪ অক্টোবর: চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ‘সি’ গ্রুপে কাম্প নউয়ে গত বুধবারের ম্যাচটি ড্র হয় ৩-৩ গোলে। রোমাঞ্চে ঠাসা দ্বিতীয়ার্ধে ইন্টার দুই দফা এগিয়ে যাওয়ার পর লেভানদোভস্কির জোড়া গোলে হার এড়ায় শাভির দল।  লেভানদোভস্কি নিজের কাজটা ঠিকঠাক করলেও তার সতীর্থ ডিফেন্ডাররা সেটা করতে পারেননি। রক্ষণের ভুলে প্রথম গোল হজমের পর ২-২ সমতায় থাকা অবস্থায় আরেকটি গোলের জন্য মরিয়া হয়ে চেষ্টা চালাতে থাকে শাভি এরনান্দেসের দল। তখনই দলটির রক্ষণভাগের আরেক ভুলে ইন্টারকে এগিয়ে দেন রবিন গোসেন্স। যোগ করা সময়ে সমতা টানেন লেভানদোভস্কি। ম্যাচের পর মুভিস্টার প্লাসের সঙ্গে আলাপচারিতায় লেভানদোভস্কির কণ্ঠে ফুটে ওঠে হতাশা।  “আমরা এত বেশি গোল করতে চেয়েছিলাম যে রক্ষণ সামলানোর কথা ভুলেই গিয়েছিলাম। ইন্টার খুব সহজে গোল পর্যন্ত চলে গেছে।” “গত কয়েক সপ্তাহে আমাদের অনেক খেলোয়াড় চোটেও পড়েছে এবং সবসময় দল পরিবর্তন করা সহজ নয়। আমাদের স্থিতিশীলতার অভাব রয়েছে। আর এতেই হয়তো পরিস্থিতি কেমন, তা বোঝা যায়।” 

লেভানদোভস্কি মনে করেন, রক্ষণ ও আক্রমণের মধ্যে সঠিক ভারসাম্য বজায় রাখতে পারেননি তারা। “যেকোনো স্ট্রাইকারের জন্যই ইন্টার কঠিন প্রতিপক্ষ। তারা পাঁচজন খেলোয়াড় নিয়ে ডিফেন্ড করে এবং তাদের একজন ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডারও থাকে।” “আমরা অনেক খেলোয়াড় নিয়ে আক্রমণ করার চেষ্টা করেছি, এর মানে আমরা তাদের জন্য অনেক জায়গা উন্মুক্ত করে দিয়েছি। আমরা তিনটি গোল করেছি, কিন্তু একই পরিমাণ গোল হজমও করেছি। জয় না পেয়ে আমরা হতাশ।” লা লিগায় পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা বার্সেলোনা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শুরুটা দারুণ করেছিল। প্রথম ম্যাচে তারা হারিয়েছিল ভিক্তোরিয়া প্লাজেনকে, ৫-১ গোলে। কিন্তু পরের দুই ম্যাচে হেরে বসে; বায়ার্ন মিউনিখ ও ইন্টারের বিপক্ষে প্রথম দেখায়।ইন্টারের বিপক্ষে দ্বিতীয় দেখায়ও পয়েন্ট হারানোর পর শেষ ষোলোয় জায়গা করে নেওয়া ভীষণ কঠিন হয়ে গেছে বার্সেলোনার জন্য। নিজেদের পরের দুই ম্যাচে কেবল জিতলেই হবে না তাদের, ইন্টারের দুই ম্যাচের ফলাফলও আসতে হবে তাদের পক্ষে।৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে ইন্টার, বার্সেলোনা আছে তিন নম্বর স্থানে, তাদের পয়েন্ট পয়েন্ট ৪। ১২ পয়েন্ট নিয়ে নকআউট পর্ব নিশ্চিত করেছে বায়ার্ন মিউনিখ। শূন্য পয়েন্ট নিয়ে সবার নিচে ভিক্টোরিয়া প্লাজেন।ইন্টারের পরবর্তী দুই ম্যাচ বায়ার্ন ও ভিক্টোরিয়া প্লাজেনের বিপক্ষে। এর মধ্যে এক ম্যাচে জয় পেলেই তারা শেষ ষোলো নিশ্চিত করে ফেলবে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য