Tuesday, July 16, 2024
বাড়িবিশ্ব সংবাদগাজার আরেকটি আশ্রয় শিবিরে ইসরায়েলের হামলায় নিহত ২৯

গাজার আরেকটি আশ্রয় শিবিরে ইসরায়েলের হামলায় নিহত ২৯

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ১০ জুলাই: ফিলিস্তিনি ছিটমহল গাজার দক্ষিণাঞ্চলে খান ইউনিস শহরের নিকটবর্তী আবাসন আল-কাবিরা শহরে এক স্কুল সংলগ্ন শরণার্থী শিবিরে ইসরায়েলের বিমান হামলায় অন্তত ২৯ জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের অধিকাংশই নারী ও শিশু বলে জানিয়েছেন ফিলিস্তিনি চিকিৎসা কর্মকর্তারা।গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মঙ্গলবার খান ইউনিসের পূর্ব দিকের আবাসন শহরের আল-আওদা স্কুলের গেইটের পাশেই আঘাত হানে ইসরায়েলি বিমান।আল জাজিরা জানিয়েছে, এই নিয়ে চার দিনের মধ্যে চতুর্থবারের মতো গাজার আরেকটি স্কুল ভবনে আঘাত হানল ইসরায়েল, যেটি একটি আশ্রয় শিবির হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছিল।

ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, ‘নির্ভুল অস্ত্র’ ব্যবহার করে ‘হামাসের সামরিক শাখার এক সন্ত্রাসীর’ অবস্থান লক্ষ্য করে হামলাটি চালানো হয়েছে। হামাসের এই যোদ্ধা গত বছরের ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে চালানো হামলায় অংশ নিয়েছিল বলে দাবি করেছে তারা।এ হামলায় ‘কোনো বেসামরিক নিহত হয়েছে কিনা’ তা তারা খতিয়ে দেখবে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী; খবর বিবিসির।এক সপ্তাহ আগে ইসরায়েলি বাহিনী আবাসন আল-কাবিরা শহর ও খান ইউনিসের পূর্বাংশ থেকে বেসামরিকদের চলে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল। তাদের এ নির্দেশ পাওয়ার পর ওই এলাকাগুলো থেকে হাজার হাজার ফিলিস্তিনি পালিয়ে যায়।

গাজার হামাস পরিচালিত গণমাধ্যম দপ্তরের পরিচালক ইসমাইল আল-থাওয়াবতা জানান, ভূখণ্ডটির মধ্যাঞ্চলে ইসরায়েলের অন্য হামলাগুলোতে আরও কয়েক ডজন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।মঙ্গলবার গাজাজুড়ে ইসরায়েলের হামলায় অন্তত ৬০ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন বলে জানান তিনি।গাজার বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ইসরায়েলি ট্যাংকগুলো গাজা সিটির তাল আল-হাওয়া, সুজাইয়া ও সাবরা এলাকার অনেক ভেতরে ঢুকে পড়ে রাস্তা ও ভবনগুলোতে গোলাবর্ষণ করছে, এতে তারা ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছেন।

এর আগে সামাজিক মাধ্যমে একটি পোস্ট দিয়ে এই এলাকাগুলোসহ গাজার সিটির পূর্বাংশ ও পশ্চিমাংশের বেশ কয়েকটি এলাকা থেকে বাসিন্দাদের চলে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল ইসরায়েলি বাহিনী।এক বিবৃতিতে আল-থাওয়াবতা বলেছেন, “বেসামরিকদের বিরুদ্ধে এই ভয়াবহ গণহত্যা চালানোর জন্য আমরা দখলদারদের ও মার্কিন প্রশাসন দায়ী বলে মনে করছি।”হামাসের সশস্ত্র শাখা কাসাম ব্রিগেড ও তাদের মিত্র ইসলামিক জিহাদ জানিয়েছে, গাজা শহরে তাদের যোদ্ধারা মেশিনগান, মর্টার ও ট্যাংক বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে হামলা চালিয়ে ইসরায়েলি সেনাদের হত্যা ও আহত করছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য