Monday, February 26, 2024
বাড়িবিশ্ব সংবাদসহিংসতা কমানোর প্রতিশ্রুতি দিল ইসরায়েল-ফিলিস্তিন

সহিংসতা কমানোর প্রতিশ্রুতি দিল ইসরায়েল-ফিলিস্তিন

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক,২৭ ফেব্রুয়ারি: বাড়তে থাকা সহিংসতা অবিলম্বে বন্ধের পদক্ষেপ নিতে একযোগে প্রতিশ্রুতি ঘোষণা করেছে ইসরায়েল সরকার এবং ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ।জর্ডানের মধ্যস্থতায় হওয়া ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের বিরল বৈঠক থেকে এসেছে এ প্রতিশ্রুতি, যে আলোচনায় সামিল ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র এবং মিশরের কর্মকর্তারাও।বৈঠকে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে আস্থা গড়ার পদক্ষেপ নেওয়া এবং ন্যায় ও স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠায় কাজ করে যাওয়ার বিষয়ে সমঝোতা হয়েছে।তবে জর্ডানের লোহিত সাগর তীরবর্তী আকাবায় এই বৈঠক চলার মধ্যেই অধিকৃত পশ্চিম তীরে এক ফিলিস্তিনি বন্দুধারীর গুলিতে দুই ইসরায়েলি নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।ইসরায়েলের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, তারা বন্দুকধারীর পিছু ধাওয়া করছে এবং পশ্চিম তীরে সেনা সংখ্যা বাড়চ্ছে। সেখানে অতিরিক্ত দুই ব্যাটেলিয়ান সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

 নাবলুসের কাছে হাওয়ারা গ্রামে নিহত দুই ইসরায়েলির একজন সেনা বলে নিশ্চিত করেছে সেনাবাহিনী। ইসরায়েল সরকার হাওয়ারা গ্রামের এ হত্যাকাণ্ডকে ‘ফিলিস্তিনি সন্ত্রাসী হামলা’ আখ্যা দিয়েছে।গ্রামটিতে রোববার গুলির ঘটনার পর সহিংসতা হয়েছে। অন্তত ১৫ টি ঘরবাড়ি এবং বেশকিছু সংখ্যক গাড়ি জ্বালিয়ে দিয়ে বিক্ষুব্ধরা। সংঘর্ষে কয়েকশ জন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিনের রেডক্রিসেন্ট জরুরি সেবা বিভাগ।কাছের পশ্চিম তীরের জাতারায় ইসরায়েলি বসতিস্থপনকারী এবং সেনারা প্রবেশ করার পর এক ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা।কয়েকবছরের মধ্যে সম্প্রতি ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সহিংসতা বেড়ে গেছে। আসছে রমজান মাসে দুইপক্ষের মধ্যে সংঘাত আরও বাড়ার শঙ্কা আছে। তাই সহিংসতা এড়াতে যুক্তরাষ্ট্র এবং মিশরের সঙ্গে কূটনৈতিক প্রচেষ্টার আওতায় জর্ডান রোববার ইসরায়েল-ফিলিস্তিন আলোচনা অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নেয়।

ইসরায়েলসহ অধিকৃত পশ্চিম তীর এবং গাজায় শান্তি ফেরাতে বহুবছর পর এই প্রথম শীর্ষ ইসরায়েলি এবং ফিলিস্তিনি নিরাপত্তা প্রধানদের মধ্যে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হল।বৈঠকের যৌথ বিবৃতিতে প্রথমেই বলা হয়েছে, “দুই পক্ষ (ফিলিস্তিন এবং ইসরায়েল) তাদের মধ্যকার আগের সব চুক্তিতে দৃঢ় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হচ্ছে এবং ন্যায় ও স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠায় কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে।”“তারা মাঠ পর্যায়ে সংঘাত কমানো এবং আর কোনওরকম সহিংসতা রোধে প্রতিশ্রুতিব্ধ হওয়ার প্রয়োজনীয়তা পুনর্ব্যক্ত করছে।”বিবৃতিতে ইসরায়েল চারমাসের জন্য নতুন বসতিস্থাপন নিয়ে আলোচনা বন্ধ রাখারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। বিনিময়ে ফিলিস্তিন জাতিসংঘে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেবে না বলে স্থির হয়েছে।এছাড়া, আলোচনায় জড়িত পাঁচ পক্ষই আগামী মাসে মিশরের শার্ম আল-শেখ এ আরও আলোচনায় বসতে সম্মত হয়েছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য