Friday, March 1, 2024
বাড়িবিশ্ব সংবাদবর্ষপূর্তিতে বড় হামলা চালাতে পারে রাশিয়া, আমরা প্রস্তুত: ইউক্রেন

বর্ষপূর্তিতে বড় হামলা চালাতে পারে রাশিয়া, আমরা প্রস্তুত: ইউক্রেন

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক,৬ফেব্রুয়ারি: ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেস্কি রেজনিকভ বলেছেন, চলতি মাসেই রাশিয়া তাঁর দেশে বড় ধরনের একটি হামলা চালাতে পারে। তবে তিনি মনে করেন, ওই সময়ের মধ্যে পশ্চিমা মিত্রদের প্রতিশ্রুত সামরিক সহায়তা না পৌঁছালেও রুশ বাহিনীকে মোকাবিলার মতো যথেষ্ট সামর্থ্য কিয়েভের আছে। গতকাল রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে ওলেস্কি রেজনিকভ এসব কথা বলেছেন।গত বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা শুরু করে রাশিয়া। চলতি মাসে হামলার এক বছর পূর্তি হতে যাচ্ছে। ইউক্রেনের আশঙ্কা, বর্ষপূর্তিকে ঘিরে বড় ধরনের হামলা চালাতে পারে রাশিয়া।রোববারের সংবাদ সম্মেলনে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেস্কি রেজনিকভ বলেন, আসন্ন সপ্তাহগুলোতে রাশিয়া বড় ধরনের অভিযান শুরু করবে। হামলা চালানোর মতো যথেষ্ট প্রস্তুতি না থাকা সত্ত্বেও মস্কো এমন পদক্ষেপ নেবে। তবে এ ধরনের হামলা ঠেকাতে যথেষ্টসংখ্যক সেনা ও সরঞ্জাম ইউক্রেনের কাছে আছে।

ওলেস্কি রেজনিকভ বলেন, ‘সবকিছুর পরও আমরা আশঙ্কা করছি, ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া বড় ধরনের হামলা চালাতে পারে। কেবল প্রতীকী দৃষ্টিকোণ থেকে এ হামলা চালানো হতে পারে। সামরিক দৃষ্টিকোণ থেকে এ হামলার কোনো যৌক্তিকতা নেই। কারণ, তাদের সব সরঞ্জাম প্রস্তুত নেই। তারপরও এটা তারা করে ছাড়বে।’রাশিয়ার হামলা মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা মিত্ররা ইউক্রেনকে ট্যাংক, পদাতিক যুদ্ধযানসহ কোটি কোটি ডলার মূল্যের নতুন সামরিক সহায়তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তবে রাশিয়া বড় ধরনের হামলা চালানোর আগে সব সহায়তা না-ও পৌঁছাতে পারে বলে মনে করছে কিয়েভ।

রেজনিকভ বলেন, ‘পশ্চিমা বিশ্বের সব অস্ত্র সহায়তা সময়মতো না-ও পৌঁছাতে পারে। তবে আমরা প্রস্তুত। আমাদের যুদ্ধ সরঞ্জাম ও আপৎকালীন মজুত সেনারা (রিজার্ভ সেনা) প্রস্তুত আছে। আমরা তাদের মোতায়েন করতে পারব। আর এর মধ্য দিয়ে হামলা মোকাবিলা করতে পারব আমরা।’রাশিয়ার বাহিনী ইউক্রেনের পূর্ব দিকে অগ্রসর হচ্ছে। মস্কো বাখমুত শহরের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার চেষ্টা করছে। ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনে করেন, পূর্ব দিকে কিংবা দক্ষিণ দিকে বড় ধরনের অভিযানটি চালাতে পারে রাশিয়া। মস্কো পূর্বাঞ্চলীয় দনবাস এলাকার পুরোপুরি দখল নেওয়ার চেষ্টা করছে। দখলকৃত ক্রিমিয়া উপদ্বীপের সঙ্গে স্থল করিডর বিস্তৃত করতে দক্ষিণাঞ্চলেরও নিয়ন্ত্রণ নিতে চায় রাশিয়া।রেজনিকভের হিসাব অনুযায়ী, বেলারুশের সামরিক ঘাঁটিতে রাশিয়ার ১২ হাজার সেনা আছে। বেলারুশ থেকে ইউক্রেনের উত্তরাঞ্চলে হামলার জন্য এ সেনাসংখ্যা যথেষ্ট নয় বলে মনে করেন তিনি।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য