Monday, April 15, 2024
বাড়িশীর্ষ সংবাদভোটকর্মীদের স্বাস্থ্যের দিকে নজর রাখতে নির্বাচন কমিশনকে সতর্ক করেছে আবহাওয়া দফতর

ভোটকর্মীদের স্বাস্থ্যের দিকে নজর রাখতে নির্বাচন কমিশনকে সতর্ক করেছে আবহাওয়া দফতর

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ২ এপ্রিল: লোকসভা ভোটের মাঝেই দেশজুড়ে বইবে মারাত্মক লু। প্রখর গ্রীষ্মের মাঝেই ভোটের লাইনে দাঁড়াতে হবে। এপ্রিল থেকে জুন মাস জুড়ে চলবে এই জ্বালাপোড়া গরম। তার মাঝেই লু বইবার আশঙ্কা। ভোটার এবং ভোটকর্মীদের স্বাস্থ্যের দিকে নজর রাখতে নির্বাচন কমিশনকে সতর্ক করেছে আবহাওয়া দফতর । মৌসম ভবনের পক্ষ থেকে একটি বিশেষ অ্যাডভাইসরিও জারি করা হয়েছে।

এপ্রিল থেকে জুন মাসের মধ্যে ভয়ংকর গরম পড়ার পূর্বাভাস দিয়েছে মৌসম ভবন। তাপমাত্রা ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার পাশাপাশিই মারাত্মক লু বইবার সম্ভাবনাও রয়েছে। আর এর মাঝেই রয়েছে দেশে ১৮তম লোকসভা নির্বাচন। ফলে নির্বাচন কমিশনকে বিশেষভাবে সতর্ক করেছে আবহাওয়া দফতর ।

মৌসম ভবনের ডিজি মৃত্যুঞ্জয় মহাপাত্র বলেন, ‘এই মরশুমে যে কেবলমাত্র মারাত্মক গরম পরবে তাই নয়, বইবে লু। তাপপ্রবাহ অস্বাভাবিক হারে চলবে দেশজুড়ে। ১০ থেকে ২০ দিন পর্যন্ত নাগাড়ে ভুগতে হবে তারপ্রবাহে।’

সবচেয়ে বেশি গরমে হাঁসফাঁস পরিস্থিতি তৈরি হবে গুজরাট, মধ্য মহারাষ্ট্র, উত্তর কর্নাটক, রাজস্থান, মধ্য প্রদেশ, ওডিশা, উত্তর ছত্তিশগড়, অন্ধ্র প্রদেশে। এই রাজ্যগুলিতে তাপপ্রবাহের সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়বে। পশ্চিম হিমালয়ের পাদদেশীয় রাজ্যগুলি, পূর্ব ভারত এবং উত্তর ওডিশায় তাপমাত্রা মারাত্মক হারে বৃদ্ধি পাবে। এপ্রিলেই দেশের বেশিরভাগ অংশে তাপমাত্রা হু হু করে বাড়তে শুরু করবে।

মৌসম ভবনের নির্দেশক ড. মৃত্যুঞ্জয় মহাপাত্র বলেন, ‘এপ্রিল থেকে জুন মাস পর্যন্ত এই মরশুমে ১০ থেকে ২০ দিন টানা চলবে লু। এপ্রিলে ২ থেকে ৮ দিন পর্যন্ত তাপপ্রবাহের অ্যালার্ট জারি থাকবে। এই মাসেই ১ থেকে ৩ দিন লু চলবে।’ তাপপ্রবাহের কবলে থাকবে গপজরাট, মহারাষ্ট্র, উত্তর কর্নাটক, ওডিশা, অন্ধ্র প্রদেশ এবং পশ্চিম মধ্য প্রদেশের বাসিন্দারা। এপ্রিলে দেশজুড়ে বৃষ্টির আশা ক্ষীণ।

এপ্রিল মাস থেকেই শুরু হচ্ছে দেশের লোকসভা নির্বাচন। ফলে হিটওয়েভের কথা মাথায় রেখে বিশেষ অ্যাডভাইসরি জারি করেছে আবহাওয়া দফতর । লোকসভা ভোটের সময় সাধারণ ভোটারদের যাতে বুথের লাইনে দাঁড়িয়ে কোনও দুর্ভোগ না পোয়াতে হয় তার জন্য বিশেষ পরামর্শ দিয়েছে মৌসম ভবন। যে যে রাজ্যগুলিতে লু বইবে সেখানে বিশেষ সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে নির্বাচন কমিশনকে। ভোটারদের পাশাপাশি নির্বাচন কর্মীদেরও তাপপ্রবাহের সময় স্বাস্থ্যের দিকে নজর রাখতে বলা হয়েছে। রাজ্যভিত্তিক আবহাওয়ার পূর্বাভাস ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে শেয়ার করেছে আবহাওয়া দফতর । অ্যাডভাইসরিও পৌঁছে দেওয়া হয়েছে নির্দিষ্ট দফতরে। প্রত্যেক রাজ্যের সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী কেন্দ্রেও এই অ্যাডভাইসরি পৌঁছে দেওয়ার আর্জি রেখেছে মৌসম ভবন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য