Wednesday, June 29, 2022
বাড়িরাজ্যসৌজন্যতার নজির, প্রাক্তনের হাতেই দায়িত্বভার গ্রহণ বর্তমান মুখ্যমন্ত্রীর

সৌজন্যতার নজির, প্রাক্তনের হাতেই দায়িত্বভার গ্রহণ বর্তমান মুখ্যমন্ত্রীর

আগরতলা, ১৬ মে (হি.স.) : অকৃত্রিম সৌজন্যতার নজির স্থাপন হয়েছে ত্রিপুরায়। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেব সচিবালয়ে নতুন মুখ্যমন্ত্রী ডা. মানিক সাহাকে সরকার-প্রধানের কুর্সিতে বসিয়ে দায়িত্ব বুঝিয়ে দিয়েছেন। ওই সময় প্রাক্তন এবং বর্তমান মুখ্যমন্ত্রীর আলিঙ্গনের দৃশ্য ক্যামেরাবন্দির মধ্য দিয়ে নতুন ইতিহাস রচিত হয়েছে। কারণ, সংসদীয় গণতন্ত্রে এমন বিরল দৃশ্য সচরাচর দেখা যায় বলে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করতে পারছেন না।

 অন্তত ত্রিপুরার সংসদীয় ইতিহাসে এমন নজিরবিহীন মুহূর্তের সাক্ষী ইতিপূর্বে রাজ্যবাসী হয়েছেন বলেও মনে করতে পারছেন না কেউ।

গত রবিবার ত্রিপুরার একাদশতম মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন ডা. মানিক সাহা। আজ সোমবার তাঁর মন্ত্রিসভার সদস্যরাও শপথ গ্রহণ করেছেন। শপথ গ্রহণ পর্ব সমাপ্ত হওয়ার পর মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে প্রথম সচিবালয়ে পদার্পণ করেন ডা. সাহা। তাঁকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেব, উপ-মুখ্যমন্ত্রী জিষ্ণু দেববর্মা, রাজ্য মন্ত্রিসভার সদস্য নরেন্দ্রচন্দ্র দেববর্মা সহ অন্যান্যরা এবং বিজেপির সর্বভারতীয় নেতা তথা উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সাংগঠনিক সাধারণ সম্পাদক অজয় জামোয়াল। এছাড়া ছিলেন মুখ্যসচিব কুমার অলক সহ প্রশাসনের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা।

এদিন সচিবালয়ে নিজের অফিস কক্ষে পৌঁছতেই সরকার-প্রধানের কুর্সিতে বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী ডা. মানিক সাহাকে বসানোর জন্য এগিয়ে যান প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। প্রাক্তনের সাথে আলিঙ্গন করেই মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সিতে বসেন মানিক সাহা। তাঁকে মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সিতে বসিয়ে দায়িত্বভার সমঝে দেন বিপ্লব। এর পর নতুন মুখ্যমন্ত্রীকে পুষ্প স্তবক দিয়ে স্বাগত জানান প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। তার পর এক এক করে এনসি দেববর্মা সহ অন্যান্যরা নতুন মুখ্যমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান।

আজকের এই দৃশ্য সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশিত হতেই মুহূর্তের মধ্যে দারুণ সাড়া ফেলে দিয়েছে। বর্তমান মুখ্যমন্ত্রীর সাথে প্রাক্তনের এই সৌজন্যতা প্রশংসিত হয়েছে সর্বত্র। নেটিজেনদের একাংশ বিপ্লবের এই ভূমিকায় কুর্নিশ জানিয়েছেন। এভাবেই আজ ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী ডা. মানিক সাহার দায়িত্বভার গ্রহণ ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণালি অক্ষরে জায়গা করে নিয়েছে, তা অস্বীকার করার অবকাশ আছে বলে মনে হচ্ছে না।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য