Wednesday, July 24, 2024
বাড়িরাজ্যরেমাল মুকাবিলা করার জন্য ৫০ কোটি টাকার ফান্ড রাখা হয়েছে : সুশান্ত

রেমাল মুকাবিলা করার জন্য ৫০ কোটি টাকার ফান্ড রাখা হয়েছে : সুশান্ত

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৮ মে : ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে কৃষি ক্ষেত্র এবং বিদ্যুৎ পরিষেবায়। স্টেট ডিজিস্টার ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে রেমাল মোকাবিলা করতে এবং ক্ষয়ক্ষতি পূরণ করার জন্য ৫০ কোটি টাকার ফান্ড রাখা হয়েছে। এবং পরিস্থিতি দেখে সার্বিক নজর রাখছে জেলাশাসকরা ও মহকুমা শাসকরা। মঙ্গলবার মহাকরণে সাংবাদিক সম্মেলন করে এই কথা জানান মন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী।

 তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড় রেমালের ক্ষয়ক্ষতি নিয়ে ব্যাপক সংবেদনশীল। এখন পর্যন্ত রাজস্ব দপ্তরের নেতৃত্বে পূর্ত দপ্তর, বিদ্যুৎ নিগম সহ বিভিন্ন দপ্তর সজাগ রয়েছে রেমাল মোকাবেলা করতে। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে মুখ্য সচিব ও বিভিন্ন দপ্তরের সচিবদের নেতৃত্বে বলা হয়েছে রাজ্যের প্রত্যেক জেলার জেলা শাসক যাতে মহকুমা শাসকদের এবং লাইনম্যানদের সাথে নিয়ে সজাগ থাকে, যতক্ষণ না পর্যন্ত রেমাল সমাপ্ত হচ্ছে। এবং এখন পর্যন্ত এই ঘূর্ণিঝড়ে কোন মানুষের মৃত্যু হয়নি। তারপরও এন.ডি.আর.এফ ও এস.ডি.আর.এফ ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা সর্বদা সজাগ রয়েছে।

 মেট্রোলজি ডিপার্টমেন্ট আবহাওয়া সম্পর্কে যে তথ্য দিয়েছে তাতে বলা হয়েছে মঙ্গলবার এবং বুধবার দুদিন সকলকে সাবধান থাকতে হবে রাজ্যবাসীকে। বিশেষ করে মৎস্যজীবীদের পুকুরে এবং নদীতে না যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় লাগবে ২১৫.৫ মিমি হয়েছে। সবথেকে বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে ঊনকোটি জেলায়। সেখানে ২৫২.৪ মিমি হয়েছে। সবচেয়ে কম বৃষ্টিপাত হয়েছে দক্ষিণ জেলার। দক্ষিণ জেলা ১৬৮ মিমি বৃষ্টিপাত হয়েছে। ৪৬৭ টি বাড়িঘর এই ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতি হয়েছে। এবং মানুষের জন্য ১৫ টি অস্থায়ী শিবির খোলা হয়েছে। এই ১৫ টি অস্থায়ী শিবিরে ৭৪৬ জন মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে এসে আশ্রয় নিয়েছে। এই শিবির গুলির মধ্যে খাবার ও ঔষধ পত্র বিতরণ করে চলেছে প্রশাসন। ৩৯৭ হেক্টর জমির ১৭৬৪ জন কৃষক সারারাজ্যে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ৩৮০৪ মেট্রিক টন ধান ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। যার মূল্য হবে ৮.৩০ লক্ষ টাকা। স্টেট ডিজিস্টার ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে রেমাল মোকাবিলা করতে এবং ক্ষয়ক্ষতি পূরণ করার জন্য ৫০ কোটি টাকার ফান্ড রাখা হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য