Sunday, April 21, 2024
বাড়িরাজ্যপানীয় জল ও রাস্তার দাবিতে পথ অবরোধ

পানীয় জল ও রাস্তার দাবিতে পথ অবরোধ

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৭ মার্চ : বুধবার সকাল থেকে কৈলাসহর বাবুরবাজার-হীরাছড়া রাস্তাটি অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে শ্রীনাথপুর গ্রামবাসী। মূলত শ্রীনাথপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের দুই নং ওয়ার্ড এলাকায় পানীয় জল এবং রাস্তার জন্য পঞ্চায়েত সচিব নানু মিঞা সহ প্রধান সহ অন্যান্য পঞ্চায়েত সদস্যদের দায়ী করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন গ্রামবাসীরা। শ্রীনাথপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের দুই নং ওয়ার্ড এলাকায় প্রায় দেড়শো পরিবারের বসবাস রয়েছে।

এই দেড়শো পরিবারের যাতায়াতের জন্য কেবলমাত্র একটি মাটির রাস্তা রয়েছে। রাস্তাটি বর্তমানে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। ইট সলিং করার জন্য চার হাজার ইট আসলেও শ্রীনাথপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সচিব নানু মিঞা এবং পঞ্চায়েতের প্রধান সহ অন্যান্য পঞ্চায়েত সদস্যরা ইট গুলো গায়েব করে নেন বলে অবরোধকারীরা জানান। তাছাড়া পানীয় জলের জন্য বাড়ি বাড়ি নল পৌঁছে দিলেও পঞ্চায়েত সচিব এবং প্রধানকে টাকা না দেওয়ায় জলের সংযোগ দিচ্ছেন না বলে অবরোধকারীরা দাবি করেন। রাস্তা অবরোধের খবর পেয়ে অবরোধস্থলে ছুটে আসে ইরানি থানার বিশাল পুলিশ। গ্ৰামবাসী তথা অবরোধকারীদের বক্তব্য, দীর্ঘদিন ধরে শ্রীনাথপুর এলাকার ২নং ওয়ার্ডে পানীয় জলের সমস্যার কথা বার বার স্থানীয় পঞ্চায়েতকে জানানো হলেও পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষ তাতে কর্ণপাতও করেননি।

এছাড়াও পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে বিভিন্ন স্থানে কুয়া তৈরী করে দিলেও বরাদ্দকৃত অর্থ সঠিক ভাবে ব্যবহার না করে আত্মসাৎ করে, ফলে কুয়োতে জল না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ গোটা এলাকাবাসী। এককথায় বার বার পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষকে জানানোর পরেও কুম্ভ নিদ্রায় পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষ। পানীয় জল সহ রাস্তা সংস্কারের দাবি এবং পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে বার বার আশ্বাস দিলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। পঞ্চায়েতে রাস্তা সংস্কারের জন্য ইট আসলেও রাতের আধারে সেই ইট গায়েব হওয়ার ঘটনায় বেহাল রাস্তায় যাতায়াতে চরম সমস্যায় পড়তে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। আর তাই পানীয় জল সহ রাস্তা সংস্কারের দাবিতে শ্রীনাথপুর এলাকার ২ নং ওয়ার্ডে প্রায় দেড় শতাধিক পরিবার বাবুরবাজার থেকে হীরাছড়া চা বাগান যাওয়ার পথটি অবরোধ করে গ্রামবাসীরা। গ্রামবাসীদের দাবী অনুযায়ী পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষ আশ্বাস দিলেও এখনো রাস্তা বা পানীয় জল সরবরাহের বিষয়ে কোনো উন্নতি সাধন হয়নি। তাই যতক্ষণ পর্যন্ত উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কোনো আশ্বাস না পাবে ততক্ষণ পর্যন্ত এই অবরোধ চলবে। পরে দুপুর প্রায় দুইটা নাগাদ ইরানি থানার ওসি যতীন্দ্র দাস অবিরোধকারীদের সাথে কথা বলে আশ্বস্ত করেন, পানীয় জল সরবরাহের জন্য রাস্তা সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট দুই দপ্তরের আধিকারিকদের সাথে আগামী দুই দিনের মধ্যে কথা বলে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবেন। ওসি যতীন্দ্র দাসের কাছ থেকে এই আশ্বাস পাবার পর অবরোধকারীরা রাস্তা অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য