Wednesday, June 19, 2024
বাড়িরাজ্যরাতের আঁধারে দুই ক্লাবের মধ্যে মারপিট নতুন বাজারে

রাতের আঁধারে দুই ক্লাবের মধ্যে মারপিট নতুন বাজারে

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৭ নভেম্বর: শাসকদলের গোষ্ঠী কোন্দল ও নেতাদের ক্ষমতা জাহির করাকে কেন্দ্র করে নতুন বাজারের কালী পূজার ঐতিহ্য প্রশ্নচিহ্নের মুখে। রাতের আঁধারে দুই ক্লাবের মধ্যে মারপিটের ঘটনায় উত্তপ্ত এলাকার পরিবেশ। ঘটনায় আহত মা ও ছেলে। থানায় মামলা দায়ের করা হলেও পুলিশ নিষ্ক্রিয়। জানা যায়, কালি পূজা ও দীপাবলী উৎসবের জন্য গোমতী জেলার নতুনবাজার এলাকার যথেষ্ট সুনাম রয়েছে। প্রতিবছর রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের পাশাপাশি প্রতিবেশী রাষ্ট্র বাংলাদেশ থেকে আগত লক্ষাধিক পূর্নার্থী নতুন বাজারে ভীড় জমায়। আগত পূর্ণর্থীদের আনন্দ দানের লক্ষ্যে নতুন বাজারের তিনটি পুজো উদ্যোক্তা তাদের নিজেদের সাধ্যমত আয়োজন করে থাকে।

 কিন্তু এই বছর এক মন্ডল নেতা নিজের ক্ষমতা জাহির করতে গিয়ে কালী পূজার শান্তি-শৃংখল পরিবেশকে বিশৃংখল করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ। নতুন বাজার সুকান্ত কলোনি এলাকায় যুবসমাজ ওয়েলফেয়ার সোসাইটি দীর্ঘ বহু বছর যাবত শ্যামা মায়ের আরাধনা করে আসছে। কিন্তু এই বছর ওই যুবসমাজ ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সাথে জড়িত শাসক দলেরই কিছু নেতাদের শায়েস্তা করার লক্ষ্যে ওই মন্ডল নেতার নির্দেশে সুকান্ত কলোনিতেই হঠাৎ করে আম্বেদকর স্মৃতি ক্লাবের জন্ম হয়। ওই ক্লাবের নাম করে একাংশ নেশাখোর যুবকের উশৃংখলতায় অতিষ্ঠ সুকান্ত কলোনী এলাকার মানুষ। পুলিশের নিষ্ক্রিয়তার ফলে হাটবাজারে কিংবা গাড়ি থামিয়ে চলছে চাঁদার জুলুমবাজি। রবিবার রাত ১১ টা নাগাদ আম্বেদকর স্মৃতি ক্লাবের পূজা প্যান্ডেলের সামনে যুব সমাজ ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সভাপতি তথা শাসকদলের শ্রমিক সংগঠনের নেতা স্বাগতম দাসের উপর আক্রমণ চালানো হয়।

 আক্রান্ত স্বাগতম দাস জানান ঝরঝরিয়া থেকে নিমন্ত্রণ খেয়ে বাড়িতে ফেরার পথে সুকান্ত কলোনির জগন্নাথ মন্দিরের সামনে কয়েকজন বখাটে যুবক তার বাইকের রাস্তা আটকে দাঁড়ায়। মুহূর্তের মধ্যে একদল যুবক তাকে ঘেরাও করে তার ওপর আক্রমণ চালায় বলে অভিযোগ। স্বাগতম দাসের বাড়ির ঢিল ছোড়া দূরত্বে ঘটনাটি সংঘটিত হওয়ায় স্ত্রী অঞ্জু দাস স্বামীকে বাঁচানোর জন্য দৌড়ে আসে। মহিলার উপরও আক্রমণ চালানো হয় এবং তাকে শ্লীলতাহানি করা হয় বলে অভিযোগ। মা বাবার উপর আক্রমণ করা হচ্ছে দেখে ছেলে চিরঞ্জিত দাস ঘটনাস্থলে দৌড়ে গেলে তাকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয় বলে অভিযোগ। খবর পেয়ে নতুন বাজার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালেও এক প্রকার পুলিশের উপস্থিতিতেই স্বাগতম দাসের বাড়িতে ইট পাটকেল ছোড়া হয় বলে অভিযোগ। পরবর্তী সময়ে গুরুতর আহত অবস্থায় মা ও ছেলেকে নতুন বাজার গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। আহত মহিলা অঞ্জু দাস জানান রবীন্দ্র দাস ওরফে মহন্তের নেতৃত্বে একদল যুবক তাদের উপর আক্রমণ চালিয়েছে। তাদের হাতের রড, রামদা সহ বেশ কিছু ধারালো অস্ত্র ছিল। এমনকি আক্রমণকারীরা স্বাগতম দাসের পরিবারকে সুকান্ত কলোনি ছাড়া করবে বলে হুমকি দেন বলে অভিযোগ। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে নতুন বাজার থানায় সাত জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে আরক্ষা প্রশাসন যদি দ্রুত কোনো ব্যবস্থা না গ্রহণ করে তাহলে যুব সমাজ ওয়েলফেয়ার সোসাইটিও পাল্টা আক্রমণের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে সূত্রে খবর। এতে করে যে নতুন বাজারের সার্বিক পরিস্থিতি বিশৃঙ্খল হয়ে উঠছে। তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য