Tuesday, May 28, 2024
বাড়িরাজ্যআইন-শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখা সরকারের মূল লক্ষ্য : মুখ্যমন্ত্রী

আইন-শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখা সরকারের মূল লক্ষ্য : মুখ্যমন্ত্রী

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৩০ এপ্রিল : বিধানসভা নির্বাচনের পর রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে কিছু কিছু অনৈতিক ঘটনা ঘটেছে। কিছু কিছু লোক এই অনৈতিক কাজের সাথে যুক্ত। এই সকল লোকদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য গঠন করা হয়েছে বিশেষ টাস্ক ফোর্স। যে কোন পরিস্থিতিতে যে কোন জায়গায় আইন-শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখা সরকারের মূল লক্ষ্য। রবিবার ত্রিপুরা সরকারি কর্মচারী ফেডারেশনের উদ্যোগে আয়োজিত রক্তদান শিবিরে এ কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী ডাক্তার মানিক সাহা। রাজধানীর জ্যাকসন গেটস্থিত উজ্জয়ন্ত মার্কেটে মুখ্যমন্ত্রী এদিন রক্তদান শিবির প্রসঙ্গে বলেন, নির্বাচনের কারনে রাজ্যের ব্লাড ব্যাঙ্ক গুলিতে রক্তের সঙ্কট দেখে দিয়েছিল।

 তাই তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন রক্তদানে এগিয়ে আসার জন্য। ওনার আহবানে সাড়া দিয়ে সকলে রক্তদানে এগিয়ে আসছে। রক্তের কোন বিকল্প নেই। রক্তদানের মধ্যদিয়ে ভ্রাতৃত্ব বোধ সকলের মধ্যে জাগ্রত হয়। মুমুর্ষ রোগীকে রক্তদান করলে সেই  মুমুর্ষ রোগী অনুভব করে কি অমূল্য গিফট সে পেয়েছে। রক্তদাতাও এই রক্তদানের মূল্য বুঝে। এস.তি.এফ গঠনের বিষয়ে বলতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন নির্বাচনের পর বারে বারে বিভিন্ন মহল থেকে সন্ত্রাসের অভিযোগ উঠেছে। সরকারের পক্ষ থেকে বারে বারে হুশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। দলের পক্ষ থেকেও বারে বারে সতর্ক করা হয়েছে। তারপরও কিছু কিছু জায়গায় অনৈতিক কাজের অভিযোগ প্রকাশ্যে আসছিল। তাই এসটিএফ গঠন করা হয়েছে। এসটিএফ-কে সম্পূর্ণ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। যেখানে চাঁদা বাজি, মাফিয়া গিরির ঘটনা ঘটবে সেখানে এসটিএফ তাদের ভূমিকা গ্রহণ করবে। যারা চাঁদা বাজি, মাফিয়াগিরির সাথে যুক্ত তাদেরকে আইনের আওতায় নিয়ে এসে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। এদিন এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন আগরতলা পুর নিগমের মেয়র দিপক মজুমদার, কাউন্সিলার রত্না দত্ত সহ অন্যান্যরা।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য