Monday, December 5, 2022
বাড়িরাজ্যসিটি লেভের এডভাইজারি ফোরামের পর্যালোচনা বৈঠক

সিটি লেভের এডভাইজারি ফোরামের পর্যালোচনা বৈঠক

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৫ নভেম্বর : পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী আগরতলা শহর স্মার্ট সিটি-তে পরিণত করার জন্য সিটি লেভেল এডভাইজারি ফোরাম গঠন করা হয়েছিল। মঙ্গলবার রাজধানীর সিটি সেন্টার স্থিত আগরতলা পুর নিগমের কার্যালয়ের কনফারেন্স হলে হয় সিটি লেভেল এডভাইজারি ফোরামের গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় প্রতি মন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক, আগরতলা পুর নিগমের মেয়র দীপক মজুমদার, পুর নিগমের কমিশনার শৈলেশ কুমার যাদব, বিধায়ক ডাক্তার দিলীপ দাস সহ অন্যনরা।

 বৈঠকে স্মার্ট সিটি প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক এক সাক্ষাৎকারে জানান আগরতলা শহরকে স্মার্ট সিটির আওতায় আনার সময় অনেক কিছু ছার দেওয়া হয়েছিল। স্মার্ট সিটির কাজ দ্রুত গতিতে চলছে। সিটি লেভের এডভাইজারি ফোরামের চেয়ারম্যান দিপক মজুমদারের নেতৃত্বে আধিকারিকরা ভালো কাজ করছেন। বিভিন্ন জায়গায় কাজ হচ্ছে। আগামী দুই মাসের মধ্যে আগরতলা শহরের গুরুত্বপূর্ণ দুইটি রাস্তার কাজ সম্পন্ন হয়ে যাবে। তিনি আরও জানান লাইট হাউসের জন্য ১ হাজার জন বুকিং করে নিয়েছে। অতিরিক্ত আরও ৩০০ জন বুকিং করতে চাইছে। আগরতলা শহরের যখন স্মার্ট সিটি প্রকল্পের কাজ চলছিল তখন অনেকে অনেক মন্তব্য করেছে। কিন্তু আধিকারিকরা নানান সমালোচনার মধ্যেও তাদের কাজ চালিয়ে গেছে বলে জানান কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক।

এদিকে আগরতলা পুর নিগমের কমিশনার শৈলেশ কুমার যাদব জানান, এখন পর্যন্ত স্মার্ট সিটিতে কি কি কাজ সম্পন্ন হয়েছে এবং এ কাজের জন্য কত টাকা ব্যয় হয়েছে সে বিষয়ে আলোচনা হয়। কেন্দ্রীয় সরকার এখন পর্যন্ত ২৯৪ কোটি টাকা স্মার্ট সিটির জন্য প্রদান করেছে। রাজ্য সরকার প্রদান করেছে ৭৮ কোটি টাকা। সর্বমোট ৩৭২ কোটি টাকা আগরতলা স্মার্ট সিটি এখন পর্যন্ত পেয়েছে। এর মধ্যে ৩৪২ কোটি টাকার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। স্মার্ট সিটিতে ৬৭ টি প্রকল্প রয়েছে। এর মধ্যে ৪৯ টি প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বাকি ১৭ টি প্রকল্প কাজ চলছে। তিনি আরো জানান বিমানবন্দরে ফোর লেনের জন্য একানব্বই কোটি টাকার কাজ হচ্ছে। রাস্তাটি কাজ জানুয়ারি মাস থেকে ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে সম্পূর্ণ করার জন্য লক্ষ্যমাত্রা স্হির হয়েছে। এছাড়াও আগরতলা শহরবাসীকে বৃষ্টির জল জমাট বাধা থেকে মুক্তি দিতে ড্রেইন নতুন করে সংস্কার করা হয়েছে। পাঁচটি জলের পাম্পের পাশাপাশি ছটি ডিজেল পাম্প বসানো হয়েছে। পাশাপাশি রানী পুকুর, ডিম সাগর, মডান ক্লাব পুকুর সংস্কার করা হয়েছে। এছাড়াও আগরতলা শহরের হাওড়া নদীর দুপাশে দুই কিলোমিটার এলাকা সাজিয়ে তোলা হবে। শহরবাসী সেখানে প্রাতঃ ভ্রমন করতে পারবে। নদীর জল পরিষ্কার করার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য