Saturday, October 8, 2022
বাড়িরাজ্যপদত্যাগ করলেন বিধায়ক বুর্ব মোহন ত্রিপুরা

পদত্যাগ করলেন বিধায়ক বুর্ব মোহন ত্রিপুরা

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৩ সেপ্টেম্বর : কড়া নাড়ছে ২৩ -এর বিধানসভা নির্বাচন। রাজ্য রাজনীতিতে চেহারা বদলাচ্ছে প্রতিদিন। আবারো শাসক দল বিজেপিকে রীতিমতো চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল তিপ্রা মথা। শুক্রবার সকালে বিজেপি দলের বিধায়ক বুর্ব মোহন ত্রিপুরা পদত্যাগ করেন। তিনি করবুক বিধানসভা কেন্দ্রের এসটি আসনে বিধায়ক ছিলেন। এদিন সকালে বিধানসভায় এসে অধ্যক্ষ রতন চক্রবর্তী কাছে তিনি পদত্যাগ পত্র জমা দেন। সাথে ছিলেন তিপ্রা মথার চেয়ারম্যান প্রদ্যোত কিশোর দেববর্মন এবং সদ্য বিধানসভা থেকে বহিষ্কার হওয়া বৃষকেতু দেববর্মা।

অধ্যক্ষ রতন চক্রবর্তী জানান, তিনি বূর্ব মোহন ত্রিপুরাকে বলেছিলেন বর্তমান সরকারের পাঁচ বছর মেয়াদকালের অন্তিম বিধানসভা অধিবেশন। এ অধিবেশনে উপস্থিত থাকার জন্য। কিন্তু বূর্ব মোহন ত্রিপুরা নিজ ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে অসম্ভব বলে জানান। এমনটাই জানান প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে অধ্যক্ষ রতন চক্রবর্তী। রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন উঠতে শুরু করেছে বুর্ব মোহন ত্রিপুরা যোগদান করবেন তিপ্রা মথায়। ইতিমধ্যে দলের খাতায় নাম লিখিয়েছেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি বিজেপি থেকে অনেকটাই দূরে সরে গিয়েছিলেন। গত কয়েকদিন ধরে দল বিরোধী কাজের অভিযোগ উঠছিল করবুক বিধানসভা কেন্দ্রে। শেষ পর্যন্ত জল্পনা অবসান করে বাস্তব চিত্র সামনে উঠে এসেছে। তবে ইতিমধ্যে রাজ্য বিধানসভার দুটি আসন বিধায়ক শূন্য হয়ে গেছে। এবং দুটি আসনই এস টি আসন।

একটি হলো বিধানসভার প্রথম আসন সিমনা। সিমনা বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক বৃষকেতু দেববর্মা প্রায় এক বছর আগেই অধ্যক্ষের কাছে পদত্যাগের চিঠি পাঠিয়ে তিপ্রা মথায় যোগদান করেছিলেন। পরবর্তী সময়ে দল বিরোধী অভিযোগ এনে গত ২০ সেপ্টেম্বর বিধায়ক পদ খারিজ করা হয়েছে বৃষকেতু দেববর্মার। আর এর রেশ কাটতে না কাটতে আবারো আরো এক বিধায়কের পদত্যাগ পত্র পেয়ে হতভম্ব শাসক শিবির। বিধানসভা নির্বাচন আর মাত্র পাঁচ মাস বাকি। এই মুহূর্তে দুটি বিধানসভা কেন্দ্রের জন্য কি উপনির্বাচন সংঘটিত করা হবে ? নাকি বিধানসভা নির্বাচনে অপেক্ষা থাকবে রাজ্য রাজনীতি? এদিকে সুখের খবর, বিজেপির প্রদেশ কমিটি অন্যতম সহ-সভাপতি তথা রাজ্য বিধানসভার প্রাক্তন উপাধ্যক্ষ গৌরীশংকর রিয়াং তিপ্রা মথার চেয়ারম্যান প্রদ্যোত কিশোর দেববর্মনের সাথে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রাখছেন। তিনিও বিজেপি ছেড়ে যোগদান করতে পারেন তিপ্রা মথায়, এমনটাই গুঞ্জন কান পাতলে শোনা যাচ্ছে।তবে আগামী দিনের রাজ্য রাজনীতি পিকচার কি হবে সেটা বলা মুশকিল হয়ে পড়েছে। তবে পাহাড়ে বিজেপির মূল প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে দাঁড়াচ্ছে তিপ্রা মথা।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য