Tuesday, October 4, 2022
বাড়িরাজ্যশারদোৎসবে শহর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে বিশেষ কাউন্সিল বৈঠক নিগমের

শারদোৎসবে শহর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে বিশেষ কাউন্সিল বৈঠক নিগমের

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৩ সেপ্টেম্বর : প্রাক পূজা উপলক্ষ্যে আগরতলা শহরকে সুন্দর, পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য শনিবার আগরতলা পুর নিগমের কনফারেন্স হলে এক বিশেষ কাউন্সিল বৈঠকের আয়োজন করা হয়। বৈঠকে পৌরহিত্য করেন নিগমের মেয়র দীপক মজুমদার। এছাড়াও ছিলেন ডেপুটি মেয়র মনিকা দাস দত্ত, কমিশনার শৈলেশ কুমার যাদব, মেয়র ইন কাউন্সিলের সদস্য, অন্যান্য কর্পোরেটার সহ আধিকারিকেরা। এই পুজাকে কেন্দ্র করে বহিঃরাজ্য ও বিদেশ থেকে বহু মানুষ আগরতলায় আসেন।

সেই অবস্থায় শহর পরিষ্কার রাখার পাশাপাশি রাস্তা সংস্কার, আলোর ব্যবস্থা করার বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হয়। এবার আগরতলা শহরবাসী পুজোয় নতুন করে আগরতলাকে দেখবেন। একই সঙ্গে প্রতিমা নিরঞ্জনের ক্ষেত্রে দশমীঘাটে আমূল পরিবর্তন করা হচ্ছে বলে জানান মেয়র দীপক মজুমদার। রবিবারও দশমীঘাট এলাকার ক্লাব ও জনপ্রতিনিধিদের বৈঠকের আহ্বান করা হয়েছে। জল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। এর উদ্দেশ্যে ছিল নিগম এলাকায় পাইপ লাইনের মাধ্যমে প্রতিটি বাড়িতে পানিয় জল পৌঁছে দেওয়ার। কিন্তু এই কাজ কিছুটা ব্যহত হয়। শহরে ৬১ হাজার ৫০০ পরিবার রয়েছে। এই ক্ষেত্রে মাত্র সাড়ে তিন হাজার পরিবার মাসিক ৪০ টাকা জল কর দিচ্ছে। বাকীরা দেন না। এস এইচ জি-র মাধ্যমে এই টাকা নেওয়া হচ্ছে ওয়ার্ড এলাকা থেকে। এই অবস্থায় মেয়র শহরবাসীর কাছে আহ্বান জানান সকলকে জল কর প্রদানের জন্য। নতুন করে সার্ভে করা হবে কত সংখ্যক বাড়িতে বৈধ সংযোগ আছে। কতজন জল কর দেন না।

আগামী দিনে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি। পুজোর আগে প্রতিটি ওয়ার্ডকে ৬ লক্ষ টাকা করে দেওয়া হয়েছে সংস্কারের জন্য বলে জানান মেয়র দীপক মজুমদার। আগরতলায় পুর নিগম এলাকার পুজো উদ্যোক্তাদের পুর নিগম থেকে অনুমতি বাবদ ২০০ টাকা করে দিতে হত। বর্তমান পুর নিগম সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেই টাকা প্রদান করতে হবে না পুজো উদ্যোক্তাদের। আগে ছয়টি দপ্তর থেকে অনুমতি নিতে হত। এখন তাতে শিথিলতা আনা হয়েছে। বর্তমানে পুর নিগম, দমকল থেকে অনুমতি নিলেই চলবে। হয়রানী দূর করতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান মেয়র। ২৫ বছরের সমস্যা দূর করতে এই ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এবছরও পুর নিগমের পক্ষ থেকে শারদ সম্মান প্রদান করা হবে। তবে তা ভিন্ন আঙ্গিকে করা হবে বলে জানান মেয়র দীপক মজুমদার। এর জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। নিয়ম মেনে সকলকে পুজো করার আহ্বান জানান তিনি।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য