Wednesday, July 24, 2024
বাড়িখেলারদ্রিকে কম্পিউটার বললেন স্পেন কোচ

রদ্রিকে কম্পিউটার বললেন স্পেন কোচ

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ১ জুলাই: ম্যাচে চারটা গোল করেছে স্পেন, এর মধ্যে রদ্রির মাত্র একটা। কিন্তু শুধু গোলসংখ্যায় কি আর অবদান পুরোপুরি বোঝা যায়?কাল রাতে ইউরোর শেষ ষোলোয় জর্জিয়াকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে স্পেন। কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করা এই জয়ের পর রদ্রিতে যারপরনাই মুগ্ধ স্পেন কোচ লুইস দে লা ফুয়েন্তে। ২৮ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার নিজের জায়গায় তো বটেই, আক্রমণ ও রক্ষণে, পাসিংয়ে সমানতালে খেলেছেন। উয়েফার রায়ে হয়েছেন ম্যাচসেরাও। ম্যাচ শেষে স্পেন কোচ তাঁকে অভিহিত করেছেন কম্পিউটার বলে।রোববার কোলন স্টেডিয়ামে লে নরম্যান্ডের আত্মঘাতী গোলে ১৮ মিনিটে পিছিয়ে পড়ে স্পেন। তবে ম্যাচটা যে স্পেনের নাগালেই আছে, বল পায়ে প্রতিবার সেটাই বুঝিয়ে যাচ্ছিলেন রদ্রি। গোল হজমের পরের দৃশ্যপটের বর্ণনা দিয়ে লা ফুয়েন্তে বলেন, ‘গোল হজমের পর, বিশেষ করে আত্মঘাতী গোলের পর কিছুটা সময় নার্ভাসই কাটার কথা। এমনটাই হয়। তবে আমরা দ্রুত নিয়ন্ত্রণ নিতে পেরেছি, ছেলেরাও খেলার ধারাটা পড়তে পেরেছিল। বিরতির সময় আমরা স্থিরই ছিলাম। খেলোয়াড়েরা জানত, তাদের কী করতে হবে।’

ম্যাচের ৩৯ মিনিটে স্পেনকে সমতায় ফেরান রদ্রি। পরের তিনটি গোল ফ্যাবিয়ান রুইজ, নিকো উইলিয়ামস আর দানি ওলমোরা করলেও রদ্রির প্রভাব ছিল স্পষ্ট। ম্যানচেস্টার সিটিতে খেলা এই মিডফিল্ডার অ্যাটাকিং থার্ডে ১১টি পাস দিয়েছেন, লম্বা করে বাড়ানো বলের ৬টির ৫টিই ছিল সফল, সব মিলিয়ে বলে স্পর্শ ছিল ১২৯ বার। রক্ষণে ট্যাকল জিতেছেন তিনটির দুটি, বল উদ্ধার করেছেন ১২ বার, এ ছাড়া মুখোমুখি লড়াইয়ে ছিলেন শতভাগ সফল (৬-এ ৬)।মাঠের সব প্রান্তে সব প্রয়োজনে রদ্রির এই দুর্দান্ত পারফরম্যান্সকেই কম্পিউটারের মতো স্বয়ংক্রিয় মনে হচ্ছে স্পেন কোচের, ‘আমাদের রদ্রি, যে কিনা একটা কম্পিউটার, সবাইকে দিয়ে খেলিয়েছে। সব আবেগ এবং প্রতিটি মুহূর্তেকে সে নিখুঁতভাবে পরিচালিত করেছে, যেটা সবাইকেই বড় সাহায্য করেছে।’

প্রথমবারের মতো ইউরো খেলতে আসা জর্জিয়ার বিপক্ষে মোট ৩৫টি শট নিয়েছে স্পেন, যা ১৯৮০ সালের পর থেকে কোনো বড় টুর্নামেন্টে স্পেনের এক ম্যাচে সর্বোচ্চ। এত বেশি শট নেওয়ার সুবাদে স্পেনের গোলও বেশি হওয়া উচিত ছিল বলে মনে করেন লা ফুয়েন্তে, ‘খেলার চিত্র স্কোরলাইনে ফুটে উঠছে না। আমরা ৮-১ বা ৯-১ গোলে জিততে পারতাম। তবে টুর্নামেন্টের এ পর্যায়ে এসে সেটা কঠিনও। সুযোগ কাজে লাগাতে না পারলে আপনাকে ভুগতেই হবে।’কোয়ার্টার ফাইনালে স্পেনের প্রতিপক্ষ জার্মানি। ইউরোর স্বাগতিকদের বিপক্ষে ভালো করার ব্যাপারে বেশ আত্মবিশ্বাসীই মনে হয়েছে স্পেন কোচকে, ‘সব দলের প্রতি সম্মান রেখেই বলছি, আমরাই সেরা দল, আমাদের খেলোয়াড়েরাই সেরা। এর মানে কি এটা যে আমরাই জিতব? না, তা নয়। তবে আমরা লড়াই করব। সব দলেরই ত্রুটি থাকে, কেউই নিখুঁত নয়। আমাদের যেসব শক্তির দিক আছে, সেগুলো কাজে লাগিয়ে দুর্বলতা কমিয়ে আনতে হবে। জার্মানি বড় দল, চমৎকার সব খেলোয়াড় আছে, যাদের কয়েকজন বিশ্বসেরাও। আমাদের শুধু নিজেদের দিকেই মনোযোগ দিতে হবে।’সেমিফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে জার্মানি-স্পেন মুখোমুখি হবে ৫ জুলাই।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য