Tuesday, July 23, 2024
বাড়িখেলা‘ডু ইট ফর দ্রাবিড়’ প্রচারণা সরিয়ে নিতে বললেন দ্রাবিড়

‘ডু ইট ফর দ্রাবিড়’ প্রচারণা সরিয়ে নিতে বললেন দ্রাবিড়

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ২৯ জুন: এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে রোহিত শার্মা ও ভিরাট কোহলির জন্য শেষ সুযোগ বলে মনে করছেন অনেকে। যদিও ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপজয়ী দলে ছিলেন রোহিত, ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপজয়ী দলে ছিলেন কোহলি। তবে তখনও তারা ঠিক বড় তারকা হয়ে ওঠেননি বা এই উচ্চতায় ওঠেননি। ২০২৭ ওয়ানডে বিশ্বকাপে তাদের থাকার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে, ২০২৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে থাকার সম্ভাবনাও সামান্য।

তবে তাদের তবু ক্ষীণ হলেও সম্ভাবনা আছে, দ্রাবিড়ের বিদায় নিশ্চিতই। গত ওয়ানডে বিশ্বকাপ দিয়েই ভারতের কোচ হিসেবে তার দায়িত্বের মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছিল। পরে বোর্ডের অনুরোধে এই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত রয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। তবে এটিও জানিয়ে দিয়েছেন, এরপর আর নয়। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বারবাডোজে শনিবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচটিই ভারতের কোচ হিসেবে তার শেষ ম্যাচ। এজন্যই ‘ডু ইট ফর দ্রাবিড়’ প্রচারণা আরও বেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

তবে দ্রাবিড় তো বরাবরই প্রচারবিমুখ, নিজেকে আড়ালে রাখতে পছন্দ করেন। তার পেশাদারিত্বও অন্য পর্যায়ের। ফাইনালের আগে স্টার স্পোর্টসে তিনি বললেন, ‘ডু ইট ফর দ্রাবিড়’ ধারণাটির সঙ্গেই তিনি একমত নন।“আমি যে ধরনের লোক, এসব কোনোভাবেই আমার সঙ্গে যায় না। আমার মূল্যবোধের পুরো বিরুদ্ধে এসব। ‘কারও জন্য এটা করতে হবে’ এমন ধারণায় মোটেও বিশ্বাসী নই আমি। ওই কথাটি খুব ভালো লাগে আমার, কোনো একজনকে কেউ জিজ্ঞেস করেছিল, ‘এভারেস্টে উঠতে চাও কেন?’ সে উত্তর দিয়েছিল, ‘এভারেস্টে উঠতে চাই, কারণ সেটা ওখানে আছে!’ আমার ক্ষেত্রেও এমন। কেন আমরা বিশ্বকাপ জিততে চাই? কারণ এটা এখানে আছে।

”সামাজিক মাধ্যমের এই প্রচারণার সঙ্গে শামিল হয়েছে স্টার স্পোর্টসও। তারাও এই পালে জোর হাওয়া দিয়েছে। কিন্তু তাদেরকেই দ্রাবিড় অনুরোধ করলেন এটা সরিয়ে নিতে।“এটা কারও জন্যই নয়, কোনো একজনের জন্য জেতার ব্যাপার নয়। এখানে জিততে হবে, এটিই আসল। আমরা ভালো ক্রিকেট খেলতে চাই। ‘অমুকের জন্য জিততে হবে’ এসব আমার সঙ্গে যায় না, আমার বিশ্বাসের সঙ্গে যায় না। এটা নিয়ে তাই কথা বলতে ও আলোচনা করতে চাই না। এই প্রচারণা যদি আপনারা সরিয়ে নেন, আমার ভালো লাগবে।”

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য