Tuesday, July 23, 2024
বাড়িখেলাপাওয়ার প্লেতে ডি ককের কাছে হেরেছে ইংল্যান্ড, ধারণা বাটলারের

পাওয়ার প্লেতে ডি ককের কাছে হেরেছে ইংল্যান্ড, ধারণা বাটলারের

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ২২ জুন: ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারে মইন আলিকে চার ও ছক্কায় উড়িয়ে ডানা মেলে দেওয়ার পর কেবল ছুটতে থাকেন কুইন্টন ডি কক। পাওয়ার প্লেতে প্রতিপক্ষ বোলারদের ওপর ছড়ি ঘুরিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে গড়ে দেন বড় সংগ্রহের ভিত। কিন্তু রান তাড়ায় ইংল্যান্ড পারেনি প্রথম ছয় ওভারের সুবিধা কাজে লাগাতে। ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার মনে করছেন, ওই জায়গায়ই হেরে গেছে তার দল।টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুপার এইটের রোমাঞ্চকর ম্যাচে শুক্রবার শিরোপাধারী ইংল্যান্ডকে ৭ রানে হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা। চারটি করে ছক্কা-চারে ৩৮ বলে ৬৫ রানের ইনিংসে জয়ের ভিতটা গড়ে দেন ডি কক। বাটলারের মতে, প্রতিপক্ষের অভিজ্ঞ কিপার-ব্যাটসম্যানের ইনিংসটিই ম্যাচের ফলাফলে গড়ে দিয়েছে পার্থক্য।

পাওয়ার প্লেতে জফ্রা আর্চারের ওপর তাণ্ডব চালান ডি কক। গতিময় এই পেসারকে টানা তিন বলে মারেন দুই ছক্কা ও এক চার। সঙ্গে রিজা হেনড্রিকসের একটি চারে ওই ওভার থেকে আসে ২১ রান। রিস টপলিকে চার মারা ডি কক ষষ্ঠ ওভারে ছক্কায় ওড়ান স্যাম কারানকে।ডি ককের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে পাওয়ার প্লেতে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৬৩ রান তোলে দক্ষিণ আফ্রিকা। ওই সময়ে ২০ বলে ৪৯ রান করেন বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান। ২২ বলে ফিফটি করে অবশ্য বেশিদূর যেতে পারেননি তিনি। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকার রানও হয়নি তেমন আহামরি, করে কেবল ১৬৩।

মাঝারি লক্ষ্য তাড়ায় ইংল্যান্ডের শুরুটা ভালো হয়নি। বিশেষ করে, পাওয়ার প্লেতে করতে পারে তারা ১ উইকেটে ৪১ রান। প্রথম ১০ ওভার শেষে করে ৩ উইকেটে ৬০। হ্যারি ব্রুক ও লিয়াম লিভিংস্টোনের জুটিতে জয়ের আশা জাগালেও শেষ পর্যন্ত আর পারেনি তারা, থামে ১৫৬ রানে।ম্যাচ শেষে বাটলার হতাশা প্রকাশ করলেন পাওয়ার প্লে কাজে লাগাতে না পারার জন্য।“আমি বলব, পাওয়ার প্লেতে (ইংল্যান্ড হেরে গেছে)। কুইন্টন ডি কক পাওয়ার প্লেতে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছে এবং আমরা সেটার ধারেকাছে যেতে পারিনি। আমরা সম্ভবত ছয় ওভার শেষে তাদের চেয়ে ২০ রান পিছিয়ে ছিলাম।”

“উইকেটের গতি কমে গিয়েছিল এবং আমরা খুব ভালোভাবে ম্যাচে ফিরেছিলাম। ১৬০ (আসলে ১৬৪) রান তাড়া করতে নেমে আমরা বেশ খুশি ছিলাম। তবে হ্যাঁ, ওরা পাওয়ার প্লে-তে ভালো বোলিং করেছে এবং কুইন্টন ডি ককের ইনিংসটাই সম্ভবত পার্থক্য গড়ে দিয়েছে।”ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে সুপার এইট পর্ব শুরু করা ইংল্যান্ড দুই নম্বর গ্রুপে এখন তৃতীয় স্থানে। সেমি-ফাইনালে ওঠার আশা এখনও আছে তাদের। সেই লক্ষ্যে রোববার যুক্তরাষ্ট্রের মুখোমুখি হবে দুইবারের চ্যাম্পিয়নরা।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য